Dhaka ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বালিয়াকান্দিতে অপহরণের ১৪ দিন পর গৃহবধূ উদ্ধার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:১৬:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯
  • / ১৫১৮ জন সংবাদটি পড়েছেন


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি থানার পুলিশ অপহরণের ১৪ দিন পর শনিবার সকালে ইসলামপুর ইউনিয়নের হরিকোল এলাকা থেকে এক গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে।
বালিয়াকান্দি থানা সূত্র জানায়, গৃহবধূকে অপহরণের ঘটনায় তার স্বামী বাদী হয়ে গত ১০ জুলাই একই গ্রামের তোফাজ্জেল শেখের ছেলে শরিফুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা করেন। মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, শরিফুল দীর্ঘদিন ধরে তার স্ত্রীকে উত্যক্ত করতো। বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত হওয়ার পর শরিফুলকে নিবৃত্ত হতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শরিফুল গত ৬ জুলাই তার স্ত্রীকে অপরহণ করে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করে।
বালিয়াকান্দি থানার এসআই বিল্লাল হোসেন জানান, আদালত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বালিয়াকান্দি থানাকে নির্দেশ দিলে শনিবার গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়। তবে বিষয়টি পরকীয়া প্রেমঘটিতও হতে পারে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। মেডিকেল পরীক্ষার জন্য গৃহবধূকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দিতে অপহরণের ১৪ দিন পর গৃহবধূ উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ০৮:১৬:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি থানার পুলিশ অপহরণের ১৪ দিন পর শনিবার সকালে ইসলামপুর ইউনিয়নের হরিকোল এলাকা থেকে এক গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে।
বালিয়াকান্দি থানা সূত্র জানায়, গৃহবধূকে অপহরণের ঘটনায় তার স্বামী বাদী হয়ে গত ১০ জুলাই একই গ্রামের তোফাজ্জেল শেখের ছেলে শরিফুলসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা করেন। মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, শরিফুল দীর্ঘদিন ধরে তার স্ত্রীকে উত্যক্ত করতো। বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত হওয়ার পর শরিফুলকে নিবৃত্ত হতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শরিফুল গত ৬ জুলাই তার স্ত্রীকে অপরহণ করে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করে।
বালিয়াকান্দি থানার এসআই বিল্লাল হোসেন জানান, আদালত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বালিয়াকান্দি থানাকে নির্দেশ দিলে শনিবার গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়। তবে বিষয়টি পরকীয়া প্রেমঘটিতও হতে পারে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। মেডিকেল পরীক্ষার জন্য গৃহবধূকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।