Dhaka 10:56 am, Sunday, 5 February 2023
পুলিশ পরিচয়ে বিয়ে

চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৭ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার আত্মসাতের অভিযোগে যুবক আটক

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : 10:06:03 pm, Sunday, 4 December 2022
  • / 1053 জন সংবাদটি পড়েছেন

পুলিশ পরিচয়ে বিয়ের পর শ্যালককে চাকরি দেওয়ার কথা বলে নগদ সাত লাখ টাকা ও তিন ভরি স্বর্ণালংকার আত্মসাতের অভিযোগে ফারহান নামে এক যুবককে আটক করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। শনিবার দুপুরে শহরের বেড়াডাঙ্গা তালতলা এলাকার শ^শুরবাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। সে রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার কাসেম মন্ডলের ছেলে। ফারহানের মোবাইল ফোনে পুলিশের ড্রেস পরিহিত ও পুলিশের গাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে তোলা ছবি পাওয়া গেছে।

ভুক্তভোগী ও রাজবাড়ী সদর থানা সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের মার্চ মাসে রাজবাড়ী শহরের বেড়াডাঙ্গা গ্রামের জাফর মিয়ার মেয়ের সাথে বিয়ে হয় ফারহানের। বিয়ের আগে সে কনে পক্ষের লোকদের বলেছিল সে পুলিশের বিশেষ শাখায়(ডিএসবি) কর্মরত। বর্তমানে তার পোস্টিং যাশোরে।

ফারহানের শ^শুর জাফর মিয়া জানান, বিয়ের কিছুদিন পর জামাতা ফারহান তার ছেলে অমিতকে বিআরটিএর অফিস সহকারী পদে চাকরি পাইয়ে দেবে এমন কথা বলে ১৫ লাখ টাকা চায়। তারা নিয়োগপত্র হাতে নিয়ে টাকা দিতে চান। পরে ফারহান একটি নিয়োগ পত্র দেয়। শর্তানুযায়ী তারা ফারহানের হাতে নগদ টাকা ও বাকী টাকার মূল্যমান হিসেবে তিন ভরি স্বর্ণালংকার তুলে দেন। তার ছেলে অমিত নিয়োগপত্র নিয়ে খুলনা বিআরটিএতে গিয়ে জানতে পারে সেটি ভুয়া। তারপর থেকেই ফারহান লাপাত্তা। ফোন দিলেও ফোন ধরেনা। শনিবার কৌশলে ফারহানকে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্ত ফারহান উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, তিনি চাকুরি দেওয়ার কথা বলে তিন লাখ টাকা নিয়েছিলেন। তবে সেই টাকা আরেকজনকে দিয়েছেন। তবে পুলিশ পরিচয়ে বিয়ে করার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

রাজবাড়ী সদর থানার এসআই মাহবুব হোসেন জানান, বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে এক ব্যক্তিকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগীরা এজাহার দেবে বলে জানিয়েছে। এজাহার পেলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পুলিশ পরিচয়ে বিয়ে

চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৭ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার আত্মসাতের অভিযোগে যুবক আটক

প্রকাশের সময় : 10:06:03 pm, Sunday, 4 December 2022

পুলিশ পরিচয়ে বিয়ের পর শ্যালককে চাকরি দেওয়ার কথা বলে নগদ সাত লাখ টাকা ও তিন ভরি স্বর্ণালংকার আত্মসাতের অভিযোগে ফারহান নামে এক যুবককে আটক করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। শনিবার দুপুরে শহরের বেড়াডাঙ্গা তালতলা এলাকার শ^শুরবাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। সে রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার কাসেম মন্ডলের ছেলে। ফারহানের মোবাইল ফোনে পুলিশের ড্রেস পরিহিত ও পুলিশের গাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে তোলা ছবি পাওয়া গেছে।

ভুক্তভোগী ও রাজবাড়ী সদর থানা সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের মার্চ মাসে রাজবাড়ী শহরের বেড়াডাঙ্গা গ্রামের জাফর মিয়ার মেয়ের সাথে বিয়ে হয় ফারহানের। বিয়ের আগে সে কনে পক্ষের লোকদের বলেছিল সে পুলিশের বিশেষ শাখায়(ডিএসবি) কর্মরত। বর্তমানে তার পোস্টিং যাশোরে।

ফারহানের শ^শুর জাফর মিয়া জানান, বিয়ের কিছুদিন পর জামাতা ফারহান তার ছেলে অমিতকে বিআরটিএর অফিস সহকারী পদে চাকরি পাইয়ে দেবে এমন কথা বলে ১৫ লাখ টাকা চায়। তারা নিয়োগপত্র হাতে নিয়ে টাকা দিতে চান। পরে ফারহান একটি নিয়োগ পত্র দেয়। শর্তানুযায়ী তারা ফারহানের হাতে নগদ টাকা ও বাকী টাকার মূল্যমান হিসেবে তিন ভরি স্বর্ণালংকার তুলে দেন। তার ছেলে অমিত নিয়োগপত্র নিয়ে খুলনা বিআরটিএতে গিয়ে জানতে পারে সেটি ভুয়া। তারপর থেকেই ফারহান লাপাত্তা। ফোন দিলেও ফোন ধরেনা। শনিবার কৌশলে ফারহানকে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্ত ফারহান উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, তিনি চাকুরি দেওয়ার কথা বলে তিন লাখ টাকা নিয়েছিলেন। তবে সেই টাকা আরেকজনকে দিয়েছেন। তবে পুলিশ পরিচয়ে বিয়ে করার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

রাজবাড়ী সদর থানার এসআই মাহবুব হোসেন জানান, বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে এক ব্যক্তিকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগীরা এজাহার দেবে বলে জানিয়েছে। এজাহার পেলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।