Dhaka ০২:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

“কলা গাছের সাথে শত্রুতা”

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৫১:২৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৯
  • / ১৫৬৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে প্রকাশ্যে দিবালোকে কলা গাছ কর্তন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের সোনাপুর বাজার সংলগ্ন গিয়ে দেখাযায়, সোনাপুর গ্রামের মোছাঃ রোকেয়া বেগমের জমিতে থাকা কলাগাছ কর্তন করেছে। রোকেয়া বেগমের ছেলে মোঃ ফারুক হোসেন বলেন, সোনাপুর মৌজার বিএস ২৭৭ নং খতিয়ানের ৩৯ শতাংশ জমিতে থাকা ২০-২৫টি কলাগাছ পুর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার সকাল ৯টার দিকে বিনয়, ছাত্তার, ইউসুফসহ কয়েকজন প্রকাশ্যে দিবালোকে কলাগাছ কর্তন করে। ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলায় রাজবাড়ী জজ কোর্ট থেকে রোকেয়া বেগম রায় পেয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে প্রতিকার চেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার ( পাংশা সার্কেল) নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
তিনি আরো বলেন, প্রায় ১০-১২ বছর ধরে একটি চক্র তাকে ও তার পরিবারকে দিনের পর দিন নানা ভাবে হয়রানী করে আসছেন। জমি নিয়ে বিরোধে বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে তাকে হয়রানী করা হয়।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত বিনয় কুমার পালসহ অন্যান্যেদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

“কলা গাছের সাথে শত্রুতা”

প্রকাশের সময় : ০৭:৫১:২৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ অক্টোবর ২০১৯

জনতার আদালত অনলাইন ॥ জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে প্রকাশ্যে দিবালোকে কলা গাছ কর্তন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শনিবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের সোনাপুর বাজার সংলগ্ন গিয়ে দেখাযায়, সোনাপুর গ্রামের মোছাঃ রোকেয়া বেগমের জমিতে থাকা কলাগাছ কর্তন করেছে। রোকেয়া বেগমের ছেলে মোঃ ফারুক হোসেন বলেন, সোনাপুর মৌজার বিএস ২৭৭ নং খতিয়ানের ৩৯ শতাংশ জমিতে থাকা ২০-২৫টি কলাগাছ পুর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার সকাল ৯টার দিকে বিনয়, ছাত্তার, ইউসুফসহ কয়েকজন প্রকাশ্যে দিবালোকে কলাগাছ কর্তন করে। ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলায় রাজবাড়ী জজ কোর্ট থেকে রোকেয়া বেগম রায় পেয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে প্রতিকার চেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার ( পাংশা সার্কেল) নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
তিনি আরো বলেন, প্রায় ১০-১২ বছর ধরে একটি চক্র তাকে ও তার পরিবারকে দিনের পর দিন নানা ভাবে হয়রানী করে আসছেন। জমি নিয়ে বিরোধে বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে তাকে হয়রানী করা হয়।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত বিনয় কুমার পালসহ অন্যান্যেদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।