Dhaka 4:17 pm, Wednesday, 8 February 2023

বালিয়াকান্দিতে ক্লাসে ঢুকে ছাত্রীকে যৌন হয়রানী॥ সালিশে রফা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 09:17:11 pm, Sunday, 30 June 2019
  • / 1298 জন সংবাদটি পড়েছেন


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে ঢুকে প্রকাশ্যে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে সুজন সরকার নামে এক বখাটের বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটার পর নামকাওয়াস্তে সালিসে মীমাংসা করে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়া হয়। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্ত সুজন একই ইউনিয়নের নটাপাড়া গ্রামের সুকুমার সরকারের ছেলে।
ওই ছাত্রী জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্কুল চলাকালীন সুজন শ্রেণিকক্ষে ঢুকে তাকে টানা হিচড়ে বাইরে নিয়ে সবার সামনে যৌন হয়রানী করে। বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা দেখেছে। আমি লজ্জায় কারো সামনে যেতে পারছি না। আমি সুজনের বিচার দাবী করছি।
স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রকাশ্যে দিবালোকে স্কুলের শ্রেণী কক্ষে প্রবেশ করে একজন বখাটে ছাত্রীর যৌন হয়রানী করেছে। এরপর সালিসে লোক দেখানো বিচার করা হয়েছে। তাকে আইনে আওতায় আনা উচিত ছিল। সহজে পার পেয়ে যাওয়ার কারণে পুনরায় এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। ইতিপূর্বে শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে পিটিয়ে জখম ও কোপানোর ঘটনা ঘটেছিল।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একজন ইউপি সদস্য বলেন, প্রকাশ্যে স্কুলের ক্লাস রুমে ঢুকে একজন ছাত্রীর যৌন হয়রানী ঘটিয়েছে। যে অপরাধ করেছে তাকে প্রশাসনে সোপর্দ করা উচিত ছিল।
নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সালাম বলেন, এলাকার সুজন সরকার নামের এক ছেলে বিদ্যালয়ের ক্লাস রুমে ঢুকে স্কুল ছাত্রীকে হাত ধরে টানাটানি করেছে বলে শুনেছি। সুজন আগে নটাপাড়া স্কুলে পড়তো। বেশ কয়েক বছর ধরে স্কুলে আসেনা। ও এখন বহিরাগত। ঘটনার পর ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও উপস্থিত অভিভাবকদের নিয়ে সালিসে বিষয়টির মীমাংসা করে দেয়া হয়েছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, যেমন শুনেছি সেই অনুসারেই বিচার হয়েছে।
বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য সামছুর রহমান সাংবাকিদদের জানান, সুজনকে মারধর করে অঙ্গীকার পত্রে স্বাক্ষর নিয়ে মীমাংসা করা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দিতে ক্লাসে ঢুকে ছাত্রীকে যৌন হয়রানী॥ সালিশে রফা

প্রকাশের সময় : 09:17:11 pm, Sunday, 30 June 2019


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে ঢুকে প্রকাশ্যে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে সুজন সরকার নামে এক বখাটের বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটার পর নামকাওয়াস্তে সালিসে মীমাংসা করে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়া হয়। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্ত সুজন একই ইউনিয়নের নটাপাড়া গ্রামের সুকুমার সরকারের ছেলে।
ওই ছাত্রী জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্কুল চলাকালীন সুজন শ্রেণিকক্ষে ঢুকে তাকে টানা হিচড়ে বাইরে নিয়ে সবার সামনে যৌন হয়রানী করে। বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা দেখেছে। আমি লজ্জায় কারো সামনে যেতে পারছি না। আমি সুজনের বিচার দাবী করছি।
স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রকাশ্যে দিবালোকে স্কুলের শ্রেণী কক্ষে প্রবেশ করে একজন বখাটে ছাত্রীর যৌন হয়রানী করেছে। এরপর সালিসে লোক দেখানো বিচার করা হয়েছে। তাকে আইনে আওতায় আনা উচিত ছিল। সহজে পার পেয়ে যাওয়ার কারণে পুনরায় এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। ইতিপূর্বে শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে পিটিয়ে জখম ও কোপানোর ঘটনা ঘটেছিল।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একজন ইউপি সদস্য বলেন, প্রকাশ্যে স্কুলের ক্লাস রুমে ঢুকে একজন ছাত্রীর যৌন হয়রানী ঘটিয়েছে। যে অপরাধ করেছে তাকে প্রশাসনে সোপর্দ করা উচিত ছিল।
নটাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুস সালাম বলেন, এলাকার সুজন সরকার নামের এক ছেলে বিদ্যালয়ের ক্লাস রুমে ঢুকে স্কুল ছাত্রীকে হাত ধরে টানাটানি করেছে বলে শুনেছি। সুজন আগে নটাপাড়া স্কুলে পড়তো। বেশ কয়েক বছর ধরে স্কুলে আসেনা। ও এখন বহিরাগত। ঘটনার পর ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও উপস্থিত অভিভাবকদের নিয়ে সালিসে বিষয়টির মীমাংসা করে দেয়া হয়েছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, যেমন শুনেছি সেই অনুসারেই বিচার হয়েছে।
বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য সামছুর রহমান সাংবাকিদদের জানান, সুজনকে মারধর করে অঙ্গীকার পত্রে স্বাক্ষর নিয়ে মীমাংসা করা হয়েছে।