Dhaka 12:51 am, Friday, 9 December 2022

বালিয়াকান্দিতে ত্রাণের ব্রীজ নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 07:39:25 pm, Friday, 17 May 2019
  • / 1450 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামে জামাল মেম্বারের বাড়ির সামনে খালের উপর ত্রাণের ব্রীজ নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। কাজে ত্রুটি থাকায় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছে কর্তৃপক্ষ।
বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় সুত্রে জানাগেছে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের তত্বাবধায়নে উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামের জামাল মেম্বারের বাড়ির সামনে খালের উপর ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪০ ফুট লম্বা এবং ১৪ ফুট চওড়া ব্রীজটি নির্মাণ কাজ গত ২৮ এপ্রিল শুরু হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স রহিমা এন্টার প্রাইজ একাজটি করছে। নির্মাণ কাজ শুরুর ৭৫ দিন সময়সীমার মধ্যে কাজটি শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।
এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে, কাজের শুরু থেকেই ব্যাপক নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও অনিয়মের অভিযোগ ওঠে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। ব্রীজ নির্মাণ কাজে কালো পাথর দেওয়ার কথা থাকলেও  দেয়া হচ্ছে সাদা পাথর। ঢালাই কাজে এক বস্তা সিমেন্ট, অর্ধেক বালি, যথেষ্ঠ পরিমাণ পাথর দেয়ার কথা থাকলেও তা দেয়া হচ্ছে না। কোনো মতে এক বস্তা সিমেন্ট, চার বস্তা বালি ও আট বস্তা পাথর দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। ওয়ালের বাইন্ডারে ছয় ইঞ্চি পর পর ১২ মি.লি. রড দেয়ার কথা থাকলেও দিয়েছে ১০থেকে ১২ ইঞ্চি পরপর আট মি.লি. রড। এছাড়া ওয়ালের লম্বা রড ছয় ইঞ্চি পর পর দেওয়ার কথা থাকলেও আট ইঞ্চি পরপর দেয়া হয়েছে।
বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, অনিয়মের অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার বিকেলে তিনি নিজে ব্রীজ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছেন। অনিয়ম পেয়ে তিনি ঠিকাদারকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছেন। যেখানে অনিয়ম হয়েছে সেখানে সঠিকভাবে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। নির্দেশের পর ঠিকাদার কাজ শুরু করেছেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দিতে ত্রাণের ব্রীজ নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : 07:39:25 pm, Friday, 17 May 2019

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামে জামাল মেম্বারের বাড়ির সামনে খালের উপর ত্রাণের ব্রীজ নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। কাজে ত্রুটি থাকায় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছে কর্তৃপক্ষ।
বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় সুত্রে জানাগেছে, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের তত্বাবধায়নে উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামের জামাল মেম্বারের বাড়ির সামনে খালের উপর ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪০ ফুট লম্বা এবং ১৪ ফুট চওড়া ব্রীজটি নির্মাণ কাজ গত ২৮ এপ্রিল শুরু হয়েছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স রহিমা এন্টার প্রাইজ একাজটি করছে। নির্মাণ কাজ শুরুর ৭৫ দিন সময়সীমার মধ্যে কাজটি শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।
এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে, কাজের শুরু থেকেই ব্যাপক নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার ও অনিয়মের অভিযোগ ওঠে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে। ব্রীজ নির্মাণ কাজে কালো পাথর দেওয়ার কথা থাকলেও  দেয়া হচ্ছে সাদা পাথর। ঢালাই কাজে এক বস্তা সিমেন্ট, অর্ধেক বালি, যথেষ্ঠ পরিমাণ পাথর দেয়ার কথা থাকলেও তা দেয়া হচ্ছে না। কোনো মতে এক বস্তা সিমেন্ট, চার বস্তা বালি ও আট বস্তা পাথর দিয়ে কাজ করা হচ্ছে। ওয়ালের বাইন্ডারে ছয় ইঞ্চি পর পর ১২ মি.লি. রড দেয়ার কথা থাকলেও দিয়েছে ১০থেকে ১২ ইঞ্চি পরপর আট মি.লি. রড। এছাড়া ওয়ালের লম্বা রড ছয় ইঞ্চি পর পর দেওয়ার কথা থাকলেও আট ইঞ্চি পরপর দেয়া হয়েছে।
বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা বলেন, অনিয়মের অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার বিকেলে তিনি নিজে ব্রীজ নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছেন। অনিয়ম পেয়ে তিনি ঠিকাদারকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছেন। যেখানে অনিয়ম হয়েছে সেখানে সঠিকভাবে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। নির্দেশের পর ঠিকাদার কাজ শুরু করেছেন।