Dhaka 1:16 am, Friday, 9 December 2022

আবারও ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ॥ ১০ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অর্ধ কোটি টাকার সম্পদ ভস্মিভূত

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 02:09:23 pm, Sunday, 19 February 2017
  • / 1402 জন সংবাদটি পড়েছেন

বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীতে আবারও ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াই টার দিকে জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের আড়কান্দি বাজারে সংঘটিত অগ্নিকান্ডে ১০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণ ভস্মিভূত হয়েছে। এতে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০ লাখ টাকার। এনিয়ে রাজবাড়ীতে তিন দিনের ব্যবধানে তিনটি অগ্নিকান্ডে প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হলো।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত আড়াইটার দিকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হলে তা মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। গভীর রাতে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। রাজবাড়ী থেকে দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌছানোর আগেই একে একে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ১০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা হলেন হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী আলামিন ট্রেডার্সের মালিক খায়রুল বাশার, কাপড় ব্যবসায়ী সুধীর কুমার, সঞ্জয় শর্মা ও ইমরান হোসেন, ফার্নিচার ব্যবসায়ী সুজিত শর্মা, জুয়েলারী ব্যবসায়ী শঙ্কর চন্দ্র, ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ, সার কীটনাশক ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ইদ্রিস এবং খলিল।
ক্ষতিগ্রস্ত আলামিন ট্রেডার্সের মালিক মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বাশার কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, রাত আড়াইটার সময় মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন তার দোকান পুড়ছে। তিনি বলেন, আমি অবসরপ্রাপ্ত আনসার ভিডিপি সরকারি কর্মকর্তা। পেনশনের পুরো টাকা দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিকে ধীরে ধীরে দাঁড় করাচ্ছিলাম। আগুনে পুড়ে সব শেষ হয়ে গেল। এখন আমি দিশেহারা হয়ে পড়েছি। তিনি প্রতিটি বাজারে অগ্নি নির্বাপনের জন্য স্যালোমেশিন স্থাপন করার দাবি করেন।
রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মাজহারুল ইসলাম জানান, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় চার ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৈদুত্যিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বুধবার গভীর রাতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড়ে অগ্নিকান্ডে সাতটি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ক্ষয়ক্ষতি হয় প্রায় কোটি টাকার। একই দিন ভোরে সদর উপজেলার শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের আহ্লাদিপুর নামক স্থানে একটি কার্বন কারখানায় অগ্নিকান্ড সংঘটিত হলে পুড়ে যায় ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

আবারও ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ॥ ১০ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের অর্ধ কোটি টাকার সম্পদ ভস্মিভূত

প্রকাশের সময় : 02:09:23 pm, Sunday, 19 February 2017

বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীতে আবারও ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াই টার দিকে জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের আড়কান্দি বাজারে সংঘটিত অগ্নিকান্ডে ১০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণ ভস্মিভূত হয়েছে। এতে ক্ষতি হয়েছে প্রায় ৫০ লাখ টাকার। এনিয়ে রাজবাড়ীতে তিন দিনের ব্যবধানে তিনটি অগ্নিকান্ডে প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হলো।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত আড়াইটার দিকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হলে তা মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। গভীর রাতে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। রাজবাড়ী থেকে দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌছানোর আগেই একে একে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ১০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা হলেন হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী আলামিন ট্রেডার্সের মালিক খায়রুল বাশার, কাপড় ব্যবসায়ী সুধীর কুমার, সঞ্জয় শর্মা ও ইমরান হোসেন, ফার্নিচার ব্যবসায়ী সুজিত শর্মা, জুয়েলারী ব্যবসায়ী শঙ্কর চন্দ্র, ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী আব্দুর রশিদ, সার কীটনাশক ব্যবসায়ী আজাদ হোসেন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ইদ্রিস এবং খলিল।
ক্ষতিগ্রস্ত আলামিন ট্রেডার্সের মালিক মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বাশার কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, রাত আড়াইটার সময় মোবাইল ফোনে খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন তার দোকান পুড়ছে। তিনি বলেন, আমি অবসরপ্রাপ্ত আনসার ভিডিপি সরকারি কর্মকর্তা। পেনশনের পুরো টাকা দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিকে ধীরে ধীরে দাঁড় করাচ্ছিলাম। আগুনে পুড়ে সব শেষ হয়ে গেল। এখন আমি দিশেহারা হয়ে পড়েছি। তিনি প্রতিটি বাজারে অগ্নি নির্বাপনের জন্য স্যালোমেশিন স্থাপন করার দাবি করেন।
রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মাজহারুল ইসলাম জানান, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় চার ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৈদুত্যিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বুধবার গভীর রাতে রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড়ে অগ্নিকান্ডে সাতটি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ক্ষয়ক্ষতি হয় প্রায় কোটি টাকার। একই দিন ভোরে সদর উপজেলার শহীদ ওহাবপুর ইউনিয়নের আহ্লাদিপুর নামক স্থানে একটি কার্বন কারখানায় অগ্নিকান্ড সংঘটিত হলে পুড়ে যায় ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল।