Dhaka ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ দোকানে সরবরাহের অভিযোগ, তদন্ত কমিটি

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:২৩:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০
  • / ১৪২১ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী পৌর এলাকার কলেজ রোডের একটি দোকানে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে বেশ কয়েক বস্তা সার এবং আউশ ধানের বীজ কলেজ রোডের সরদার ট্রেডার্স নামক একটি দোকানে নামানো হয়। দোকান মালিক মুরাদ হোসেন জানান, এই সার ও বীজ সদর উপজেলা মিজানপুর ইউনিয়নের চরনারায়নপুর গ্রামের জনৈক কাশেম দর্জি তার দোকানে পাঠিয়েছেন।
রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. বাহাউদ্দিন জানান, গত সোমবার মিজানপুর, বাণিবহ সহ পাঁচটি ইউনিয়নের কৃষকদের মাঝে প্রণোদনার সার বীজ বিতরণ করা হয়। সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করার জন্য সব কৃষককে ডাকা হয়নি। কিছু সংখ্যক কৃষককে ডেকে এনে পাঁচটি ইউনিট করে প্রত্যেককে পাঁচ কেজি আউশ ধানের বীজ, ২০ কেজি ডিএপি সার ও ১০ কেজি এমওপি সার বিতরণ করা হয়। আমরা কৃষি অফিস থেকে সুষ্ঠুভাবেই বিতরণ করেছি। দোকানে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ পাওয়া গেছে বলে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তখন দোকানে পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাঈদুজ্জামান খান জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখতে উপজেলা কৃষি অফিসারকে ওই দোকানে পাঠানো হয়েছে। সদর উপজেলা সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তোফাজ্জেল হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ দোকানে সরবরাহের অভিযোগ, তদন্ত কমিটি

প্রকাশের সময় : ০৭:২৩:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী পৌর এলাকার কলেজ রোডের একটি দোকানে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত সোমবার বিকেলে বেশ কয়েক বস্তা সার এবং আউশ ধানের বীজ কলেজ রোডের সরদার ট্রেডার্স নামক একটি দোকানে নামানো হয়। দোকান মালিক মুরাদ হোসেন জানান, এই সার ও বীজ সদর উপজেলা মিজানপুর ইউনিয়নের চরনারায়নপুর গ্রামের জনৈক কাশেম দর্জি তার দোকানে পাঠিয়েছেন।
রাজবাড়ী সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. বাহাউদ্দিন জানান, গত সোমবার মিজানপুর, বাণিবহ সহ পাঁচটি ইউনিয়নের কৃষকদের মাঝে প্রণোদনার সার বীজ বিতরণ করা হয়। সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করার জন্য সব কৃষককে ডাকা হয়নি। কিছু সংখ্যক কৃষককে ডেকে এনে পাঁচটি ইউনিট করে প্রত্যেককে পাঁচ কেজি আউশ ধানের বীজ, ২০ কেজি ডিএপি সার ও ১০ কেজি এমওপি সার বিতরণ করা হয়। আমরা কৃষি অফিস থেকে সুষ্ঠুভাবেই বিতরণ করেছি। দোকানে কৃষি প্রণোদনার সার বীজ পাওয়া গেছে বলে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তখন দোকানে পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।
রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাঈদুজ্জামান খান জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখতে উপজেলা কৃষি অফিসারকে ওই দোকানে পাঠানো হয়েছে। সদর উপজেলা সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তোফাজ্জেল হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।