Dhaka ০২:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অসহায় মানুষকে সহায়তা দিচ্ছেন কৃষকনেতা নুরে আলম সিদ্দিকী হক

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:২৪:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মে ২০২০
  • / ১৬৪৩ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

জনতার আদালত অনলাইন: করোনা ভাইরাস সংকমণের এ দুঃসময়ে অসহায় মানুষকে ক্রমশঃ সহযোগিতা করে চলেছেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতা নুরে আলম সিদ্দিকী হক।

শুক্রবার রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের ঘোরপালান গ্রামের বাসিন্দা আমিরুল মন্ডলকে ১০ হাজার টাকা সহায়তা দিয়েছেন। একই দিন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের শ্রমজীবি শহীদ কাজীকে দিয়েছেন খাদ্য সহায়তা।

রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের ঘোরপালান গ্রামের বাসিন্দা আমিরুল মন্ডলের বাড়ীতে গত ৪ এপ্রিল আগুন লেগে তার একমাত্র গরুটি নির্মমভাবে পুড়ে মারা যায়। বিষয়টি চন্দনীর চেয়ারম্যান সিরাজুল আলম চৌধুরীর মাধ্যমে তিনি জানতে  পেরে তাকে ১০ হাজার টাকা পাঠান।

দুপুরে চন্দনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সাংবাদিক করিম ইসহাকের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আমিরুলের পরিবারকে গরু কেনার জন্য ১০ (দশ হাজার) টাকা সহযোগিতা প্রদান করেন তিনি।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত বাংলাদেশ কৃষকলীগের হট লাইনে ফরিদপুর অঞ্চলেঃ নুরে আলম সিদ্দিকী হকের নাম্বার দেখে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের শ্রমজীবি শহীদ কাজী তাকে ফোন দিয়ে বলেন, আপনারা নাকি কৃষিশ্রমিকের সাহায্য করেন। করোনার ভিতরে কোন কাজ নাই,কেউ সাহায্য দিলো না। পাঁচজনের পরিবার বাড়ীতে খাবারের সমস্যা,একটু সাহায্য করা যায়?

একথা শুনে তাৎক্ষণিক ভাঙ্গা উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি/সাধারন সম্পাদকের ফোন দিয়ে তাদের মাধ্যমে ঢাকায় বসেই টাকা পাঠিয়ে ১৫ কেজি চাল,দুই কেজি ডাল,এক লিটার তৈল,কয়েক কেজি আলুর ব্যবস্থা করেন।

ইতিপূর্বে তিনি রাজবাড়ীতে আটকে পড়া শ্রমিক, পত্রিকা বিক্রেতাসহ বিভিন্ন মানুষকে আর্থিক ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

অসহায় মানুষকে সহায়তা দিচ্ছেন কৃষকনেতা নুরে আলম সিদ্দিকী হক

প্রকাশের সময় : ০৮:২৪:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মে ২০২০

 

জনতার আদালত অনলাইন: করোনা ভাইরাস সংকমণের এ দুঃসময়ে অসহায় মানুষকে ক্রমশঃ সহযোগিতা করে চলেছেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতা নুরে আলম সিদ্দিকী হক।

শুক্রবার রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের ঘোরপালান গ্রামের বাসিন্দা আমিরুল মন্ডলকে ১০ হাজার টাকা সহায়তা দিয়েছেন। একই দিন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের শ্রমজীবি শহীদ কাজীকে দিয়েছেন খাদ্য সহায়তা।

রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের ঘোরপালান গ্রামের বাসিন্দা আমিরুল মন্ডলের বাড়ীতে গত ৪ এপ্রিল আগুন লেগে তার একমাত্র গরুটি নির্মমভাবে পুড়ে মারা যায়। বিষয়টি চন্দনীর চেয়ারম্যান সিরাজুল আলম চৌধুরীর মাধ্যমে তিনি জানতে  পেরে তাকে ১০ হাজার টাকা পাঠান।

দুপুরে চন্দনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও সাংবাদিক করিম ইসহাকের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আমিরুলের পরিবারকে গরু কেনার জন্য ১০ (দশ হাজার) টাকা সহযোগিতা প্রদান করেন তিনি।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত বাংলাদেশ কৃষকলীগের হট লাইনে ফরিদপুর অঞ্চলেঃ নুরে আলম সিদ্দিকী হকের নাম্বার দেখে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের শ্রমজীবি শহীদ কাজী তাকে ফোন দিয়ে বলেন, আপনারা নাকি কৃষিশ্রমিকের সাহায্য করেন। করোনার ভিতরে কোন কাজ নাই,কেউ সাহায্য দিলো না। পাঁচজনের পরিবার বাড়ীতে খাবারের সমস্যা,একটু সাহায্য করা যায়?

একথা শুনে তাৎক্ষণিক ভাঙ্গা উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি/সাধারন সম্পাদকের ফোন দিয়ে তাদের মাধ্যমে ঢাকায় বসেই টাকা পাঠিয়ে ১৫ কেজি চাল,দুই কেজি ডাল,এক লিটার তৈল,কয়েক কেজি আলুর ব্যবস্থা করেন।

ইতিপূর্বে তিনি রাজবাড়ীতে আটকে পড়া শ্রমিক, পত্রিকা বিক্রেতাসহ বিভিন্ন মানুষকে আর্থিক ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।