Dhaka ০৭:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বালিয়াকান্দির গড়াই নদীর চর থেকে বালু উত্তোলনের অভিযোগ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৯:০৪:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯
  • / ১৫৮৬ জন সংবাদটি পড়েছেন


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রাম গড়াই নদীর চর থেকে আবার বালু উত্তোলন চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। প্রতিদিন ১৬-১৭টি গাড়ীতে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপের কারণে ও ভ্রাম্যমান আদালতে বালুর গাড়ী পুড়িয়ে দেওয়ার পর দীর্ঘদিন বালু উত্তোলন বন্ধ থাকে। কেউ কেউ গোপনে রাতের অন্ধকারে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিল। এক সপ্তাহ ধরে ১৬-১৭টি গাড়ীতে বালু উত্তোলন করে আসছে। তারা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বালু উত্তোলন করছে এমন গুজব এলাকায় ছড়িয়ে প্রকাশ্যে এ কার্যক্রম চলে আসছে। এ বালু দস্যু চক্র কাউকে তোয়াক্কা না করে বালু উত্তোলন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। রবিবার বিকালে নারুয়া ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা জনাব আলী ঘটনাস্থলে গেলেও তার আগেই বালুর গাড়ী নিয়ে সটকে পড়ে। এদেরকে চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সচেতন মহল।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজা বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দির গড়াই নদীর চর থেকে বালু উত্তোলনের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ০৯:০৪:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯


জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের কোনাগ্রাম গড়াই নদীর চর থেকে আবার বালু উত্তোলন চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। প্রতিদিন ১৬-১৭টি গাড়ীতে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, বালিয়াকান্দি উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপের কারণে ও ভ্রাম্যমান আদালতে বালুর গাড়ী পুড়িয়ে দেওয়ার পর দীর্ঘদিন বালু উত্তোলন বন্ধ থাকে। কেউ কেউ গোপনে রাতের অন্ধকারে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিল। এক সপ্তাহ ধরে ১৬-১৭টি গাড়ীতে বালু উত্তোলন করে আসছে। তারা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বালু উত্তোলন করছে এমন গুজব এলাকায় ছড়িয়ে প্রকাশ্যে এ কার্যক্রম চলে আসছে। এ বালু দস্যু চক্র কাউকে তোয়াক্কা না করে বালু উত্তোলন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। রবিবার বিকালে নারুয়া ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা জনাব আলী ঘটনাস্থলে গেলেও তার আগেই বালুর গাড়ী নিয়ে সটকে পড়ে। এদেরকে চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সচেতন মহল।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজা বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।