Dhaka ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাংশায় করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির দাফন করলো পুলিশ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৩০:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০
  • / ১৬৩২ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সেনগ্রামে করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া রুহুল শেখের দাফন সম্পন্ন করেছে পুলিশ। সোমবার রাত ১১টার দিকে সেনগ্রাম কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। মৃত রুহুল শেখ একই গ্রামের হবিবর শেখের ছেলে। সোমবার দুইটার দিকে জ্বর, কাশি শ্বাসকষ্ট নিয়ে সে মৃত্যুবরণ করে।
এলাকাবাসী ও রাজবাড়ী জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, করোনা ভাইরাসে মারা গেছে এই ভয়ে মৃতের লাশ কেউ ধরতে চাইছিলনা। পরে পাংশা থানার পুলিশ উদ্যোগী হয়ে তার জানাজা ও দাফনের ব্যবস্থা করে। জানাজা পড়ান সেনগ্রাম জামে মসজিদের ইমাম। জানাজায় পাংশার সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) লাবীব আব্দুল্লাহ, পাংশা থানার ওসি আহসানউল্লাহসহ ছয় পুলিশ সদস্য, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাকিল এবং মৃতের পরিবারের চার সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
জানাজা শেষে পুলিশ সদস্যরাই মৃতের দাফন করেন।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, করোনার ভয়ে কেউ যখন এগিয়ে আসেনি তখন পুলিশ উদ্যোগী হয়ে তার দাফন কাফনের ব্যবস্থা করে। ধর্মীয় সকল বিধি বিধান অনুযায়ী তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. নুরুল ইসলাম জানান, করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করায় তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। এছাড়া সেনগ্রাম লকডাউন করা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পাংশায় করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির দাফন করলো পুলিশ

প্রকাশের সময় : ০৭:৩০:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সেনগ্রামে করোনা ভাইরাস উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া রুহুল শেখের দাফন সম্পন্ন করেছে পুলিশ। সোমবার রাত ১১টার দিকে সেনগ্রাম কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। মৃত রুহুল শেখ একই গ্রামের হবিবর শেখের ছেলে। সোমবার দুইটার দিকে জ্বর, কাশি শ্বাসকষ্ট নিয়ে সে মৃত্যুবরণ করে।
এলাকাবাসী ও রাজবাড়ী জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, করোনা ভাইরাসে মারা গেছে এই ভয়ে মৃতের লাশ কেউ ধরতে চাইছিলনা। পরে পাংশা থানার পুলিশ উদ্যোগী হয়ে তার জানাজা ও দাফনের ব্যবস্থা করে। জানাজা পড়ান সেনগ্রাম জামে মসজিদের ইমাম। জানাজায় পাংশার সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) লাবীব আব্দুল্লাহ, পাংশা থানার ওসি আহসানউল্লাহসহ ছয় পুলিশ সদস্য, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাকিল এবং মৃতের পরিবারের চার সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
জানাজা শেষে পুলিশ সদস্যরাই মৃতের দাফন করেন।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, করোনার ভয়ে কেউ যখন এগিয়ে আসেনি তখন পুলিশ উদ্যোগী হয়ে তার দাফন কাফনের ব্যবস্থা করে। ধর্মীয় সকল বিধি বিধান অনুযায়ী তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. নুরুল ইসলাম জানান, করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করায় তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। এছাড়া সেনগ্রাম লকডাউন করা হয়েছে।