Dhaka ০৫:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি কাজী মতিনের দাফন সম্পন্ন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:০৯:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯
  • / ১৩১৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, রাজবাড়ী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা কাজী আব্দুল মতিনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় ভবানীপুর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
এর আগে সকালে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে প্রথম এবং দুপুর ২টায় রেলওয়ে ঈদগাহ ময়দানে তার দুই দফা জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। তার জানাজা নামাজে জেলা বিএনপি সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম, জেলা বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ এবং সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি..রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়ে, আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি রাজবাড়ী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারেরও দায়িত্ব পালন করেন। রাজবাড়ী শহরের বড়পুল এলাকার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাতে রাজবাড়ী রেলগেট এলাকায় হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎই পড়ে গিয়ে জ্ঞান হারান। পরে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
তার মৃত্যুতে জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দ গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি কাজী মতিনের দাফন সম্পন্ন

প্রকাশের সময় : ০৭:০৯:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, রাজবাড়ী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি মুক্তিযোদ্ধা কাজী আব্দুল মতিনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় ভবানীপুর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
এর আগে সকালে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে প্রথম এবং দুপুর ২টায় রেলওয়ে ঈদগাহ ময়দানে তার দুই দফা জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। তার জানাজা নামাজে জেলা বিএনপি সভাপতি আলী নেওয়াজ মাহমুদ খৈয়ম, জেলা বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ এবং সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি..রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়ে, আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি রাজবাড়ী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারেরও দায়িত্ব পালন করেন। রাজবাড়ী শহরের বড়পুল এলাকার বাসিন্দা ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাতে রাজবাড়ী রেলগেট এলাকায় হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎই পড়ে গিয়ে জ্ঞান হারান। পরে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
তার মৃত্যুতে জেলা বিএনপি নেতৃবৃন্দ গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।