Dhaka 6:59 am, Tuesday, 29 November 2022

জেলা কালচারাল অফিসার পার্থ পেলেন এপিএ পুরষ্কার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 06:31:50 pm, Thursday, 7 October 2021
  • / 1291 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার পার্থ প্রতীম দাশ বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি (এপিএ) পুরষ্কার পেয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এ পুরষ্কার গ্রহণ করেন। ২০১৯-২০ অর্থ সালে জেলা পর্যায়ে জেলা কালচারাল অফিসারদের কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি ছাড়াও আরও নয় কালচারাল অফিসার এ পুরষ্কার পেয়েছেন। পার্থ প্রতীম দাশ তৃতীয় হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

১ম পুরষ্কার অর্জন করেছেন সিলেটের অসিত বরন দাশগুপ্ত, দ্বিতীয় ময়মনসিংহের আরজু পারভেজ। অপর পুরষ্কারপ্রাপ্তরা হলেন সুনামগঞ্জের মঞ্জুরুল হক, চট্টগ্রামের মোসলেমউদ্দিন, গাজীপুরের শারমীন জাহান, বগুড়ার শাহাদত হোসেন, মানিকগঞ্জের সেলিনা সাইয়েদা সুলতানা এবং গোপালগঞ্জের আল মামুন বিন।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী তার বক্তব্যে বলেন, সারাদেশে  জেলা কালচারাল অফিসারদের নিয়ে আমরা ৩শটি নাটক, ৭৫টি নৃত্য, ৩০টি পুতুল নৃত্য, একশটি যাত্রাপালা এবং ৬৫টি পরিবেশ থিয়েটার নির্মাণ ও পরি্েশনার উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা শিল্প সংস্কৃতি ঋদ্ধ সৃজনশীল মানিবিক দেশ গড়ার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের কার্যক্রমের উদ্দেশ্য হচ্ছে তৃণমূল জনগণকে সম্পৃক্ত করা।

জেলা কালচারাল অফিসার পার্থ প্রতীম দাশকে জনতার আদালতের পক্ষ থেকে অভিনন্দন। শুভ কামনা

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

জেলা কালচারাল অফিসার পার্থ পেলেন এপিএ পুরষ্কার

প্রকাশের সময় : 06:31:50 pm, Thursday, 7 October 2021

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার পার্থ প্রতীম দাশ বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি (এপিএ) পুরষ্কার পেয়েছেন। বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এ পুরষ্কার গ্রহণ করেন। ২০১৯-২০ অর্থ সালে জেলা পর্যায়ে জেলা কালচারাল অফিসারদের কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি ছাড়াও আরও নয় কালচারাল অফিসার এ পুরষ্কার পেয়েছেন। পার্থ প্রতীম দাশ তৃতীয় হওয়ার গৌরব অর্জন করেন।

১ম পুরষ্কার অর্জন করেছেন সিলেটের অসিত বরন দাশগুপ্ত, দ্বিতীয় ময়মনসিংহের আরজু পারভেজ। অপর পুরষ্কারপ্রাপ্তরা হলেন সুনামগঞ্জের মঞ্জুরুল হক, চট্টগ্রামের মোসলেমউদ্দিন, গাজীপুরের শারমীন জাহান, বগুড়ার শাহাদত হোসেন, মানিকগঞ্জের সেলিনা সাইয়েদা সুলতানা এবং গোপালগঞ্জের আল মামুন বিন।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী তার বক্তব্যে বলেন, সারাদেশে  জেলা কালচারাল অফিসারদের নিয়ে আমরা ৩শটি নাটক, ৭৫টি নৃত্য, ৩০টি পুতুল নৃত্য, একশটি যাত্রাপালা এবং ৬৫টি পরিবেশ থিয়েটার নির্মাণ ও পরি্েশনার উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা শিল্প সংস্কৃতি ঋদ্ধ সৃজনশীল মানিবিক দেশ গড়ার লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের কার্যক্রমের উদ্দেশ্য হচ্ছে তৃণমূল জনগণকে সম্পৃক্ত করা।

জেলা কালচারাল অফিসার পার্থ প্রতীম দাশকে জনতার আদালতের পক্ষ থেকে অভিনন্দন। শুভ কামনা