Dhaka ০৯:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অগ্নিদগ্ধ হয়ে গোয়ালন্দ উপজেলা স্যানিটারী অফিসারের মৃত্যু

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:০০:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০
  • / ১৬১০ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ্। রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর মোঃ সাইফুল ইসলাম শামীম (৪২) অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। শুক্রবার (২৭ মার্চ) সকাল ৯টার দিকে তিনি মারা যান। সাইফুল ইসলাম ফরিদপুর মধুখালী এলাকার বলে জানাগেছে।
জানাগেছে, সাইফুল ইসলাম শামীম প্রায় ৫ বছর যাবত গোয়ালন্দ উপজেলায় স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর হিসেবে কর্মরত। তিনি গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক কোয়াটারের দ্বিতীয় তলার একটি রুমে একাই থাকতেন। বৃহস্পতিবার দুপুরের খাবার খেয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। হঠাৎ তার গোঙরানির শব্দ শুনে পাশের রুমের লোকজন তার রুমের দরজা ভেঙ্গে সারা শরীর আগুনে ঝলসানো অবস্থায় উদ্ধার করে। এ সময় তার রুমের মধ্যে ধোয়ায় আচ্ছন্ন ছিল। এ অবস্থায় তাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে আজ সকাল ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে কয়েলের আগুন থেকে তার শয়নকক্ষে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ আসিফ মাহমুদ বলেন, অগ্নিদগ্ধের পর স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। শুক্রবার সকালে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি সেখানে মারা গেছে। তবে কি ভাবে সে অগ্নিদগ্ধ হয়েছিলেন, সেটা এখনো জানতে পারেন নি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

অগ্নিদগ্ধ হয়ে গোয়ালন্দ উপজেলা স্যানিটারী অফিসারের মৃত্যু

প্রকাশের সময় : ০৬:০০:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ্। রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলা স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর মোঃ সাইফুল ইসলাম শামীম (৪২) অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। শুক্রবার (২৭ মার্চ) সকাল ৯টার দিকে তিনি মারা যান। সাইফুল ইসলাম ফরিদপুর মধুখালী এলাকার বলে জানাগেছে।
জানাগেছে, সাইফুল ইসলাম শামীম প্রায় ৫ বছর যাবত গোয়ালন্দ উপজেলায় স্যানিটারী ইন্সেপেক্টর হিসেবে কর্মরত। তিনি গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক কোয়াটারের দ্বিতীয় তলার একটি রুমে একাই থাকতেন। বৃহস্পতিবার দুপুরের খাবার খেয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। হঠাৎ তার গোঙরানির শব্দ শুনে পাশের রুমের লোকজন তার রুমের দরজা ভেঙ্গে সারা শরীর আগুনে ঝলসানো অবস্থায় উদ্ধার করে। এ সময় তার রুমের মধ্যে ধোয়ায় আচ্ছন্ন ছিল। এ অবস্থায় তাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে আজ সকাল ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে কয়েলের আগুন থেকে তার শয়নকক্ষে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ আসিফ মাহমুদ বলেন, অগ্নিদগ্ধের পর স্যানিটারী ইন্সেপেক্টরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। শুক্রবার সকালে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি সেখানে মারা গেছে। তবে কি ভাবে সে অগ্নিদগ্ধ হয়েছিলেন, সেটা এখনো জানতে পারেন নি।