Dhaka ১১:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিনপতন নীরবতায় রবীন্দ্রনাথের গান ও আবৃত্তি

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৫২:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
  • / ১০৩৪ জন সংবাদটি পড়েছেন

পিনপতন নীরবতায় রবীন্দ্রনাথের গান ও আবৃত্তি মোহিত হয়ে উপভোগ করলেন দর্শক। রাজবাড়ীর রাবেয়া-কাদের স্মৃতি ফাউন্ডেশন শনিবার রাতে আয়োজন করে বিশ^ হৃদয় নামে এ অনুষ্ঠানের।

সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের তালিকাভুক্ত শিল্পী মীযানুর রহমান তাসলীম। আবৃত্তি করেন পশ্চিমবঙ্গ থেকে আগত দুরদর্শনের সংবাদ পাঠিকা এবং আকাশববাণী এফএম এর উপস্থাপক স্বপ্না দে। তাদের তবলায় সঙ্গত দেন ড. রাজীব লোচন দাস এবং এসরাজ বাজান ভারতের অল ইন্ডিয়া রেডিও’র এ গ্রেড শিল্পী সৌগত দাস। চারজনের সমন্বয়ে রবীন্দ্রনাথের কবিতা আবৃত্তি ও গান দর্শকরা প্রাণভরে উপভোগ করে।

আবৃত্তিকালে শিল্পী স্বপ্না দে বলেন, আমরা শিলাইদহের খুব কাছেই আছি। শিলাইদহ নিয়ে রবীন্দ্রনাথের অনেক স্মৃতি আছে। এখানে এসে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। তখন তিনি গীতাঞ্জলির অনুবাদ করেন। রবীন্দ্রনাথকে আমাদের জানতে হবে। ধারণ করতে হবে।

পুরো বিষয়টি সমন্বয় করেন রাবেয়া-কাদের স্মৃতি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা নজরুল ইসলাম। সূচনা বক্তৃতায় তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ আমাদের প্রাণ। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি সবখানেই রবীন্দ্রনাথ। রাজবাড়ী শিল্প সংস্কৃতির শহর। আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডকে আরও এগিয়ে নিতে হবে। সেলক্ষ্যেই এমন আয়োজন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পিনপতন নীরবতায় রবীন্দ্রনাথের গান ও আবৃত্তি

প্রকাশের সময় : ০৬:৫২:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

পিনপতন নীরবতায় রবীন্দ্রনাথের গান ও আবৃত্তি মোহিত হয়ে উপভোগ করলেন দর্শক। রাজবাড়ীর রাবেয়া-কাদের স্মৃতি ফাউন্ডেশন শনিবার রাতে আয়োজন করে বিশ^ হৃদয় নামে এ অনুষ্ঠানের।

সঙ্গীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের তালিকাভুক্ত শিল্পী মীযানুর রহমান তাসলীম। আবৃত্তি করেন পশ্চিমবঙ্গ থেকে আগত দুরদর্শনের সংবাদ পাঠিকা এবং আকাশববাণী এফএম এর উপস্থাপক স্বপ্না দে। তাদের তবলায় সঙ্গত দেন ড. রাজীব লোচন দাস এবং এসরাজ বাজান ভারতের অল ইন্ডিয়া রেডিও’র এ গ্রেড শিল্পী সৌগত দাস। চারজনের সমন্বয়ে রবীন্দ্রনাথের কবিতা আবৃত্তি ও গান দর্শকরা প্রাণভরে উপভোগ করে।

আবৃত্তিকালে শিল্পী স্বপ্না দে বলেন, আমরা শিলাইদহের খুব কাছেই আছি। শিলাইদহ নিয়ে রবীন্দ্রনাথের অনেক স্মৃতি আছে। এখানে এসে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। তখন তিনি গীতাঞ্জলির অনুবাদ করেন। রবীন্দ্রনাথকে আমাদের জানতে হবে। ধারণ করতে হবে।

পুরো বিষয়টি সমন্বয় করেন রাবেয়া-কাদের স্মৃতি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা নজরুল ইসলাম। সূচনা বক্তৃতায় তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ আমাদের প্রাণ। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি সবখানেই রবীন্দ্রনাথ। রাজবাড়ী শিল্প সংস্কৃতির শহর। আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডকে আরও এগিয়ে নিতে হবে। সেলক্ষ্যেই এমন আয়োজন।