Dhaka ০৪:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাংশায় শ্যালককে গুলি করে হত্যাচেষ্টা ॥ অস্ত্রগুলিসহ যুবক গ্রেপ্তার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:১৭:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০২০
  • / ১৫৮৮ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥  প্রাক্তন স্ত্রীর সাথে দেখা করতে না দেয়ায় শ্যালক ফরহাদ হোসেনকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করেছে আলামিন মন্ডল নামে এক যুবক। পুলিশ অস্ত্রগুলিসহ  আলামিনকে গ্রেপ্তার করেছে। গুরুতর আহত ফরহাদ হোসেনকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঈদের দিন শনিবার রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়নের দড়িচৌবাড়িয়া গ্রামে। গ্রেপ্তার আলামিন একই ইউনিয়নের রুপিয়াট গ্রামের আজিজ মন্ডলের ছেলে।

পাংশা থানা সূত্র জানায়, দড়ি চৌবাড়িয়া গ্রামের হারুন অর রশিদের মেয়ে মাহফুজা আক্তার পাখির সাথে আট বছর আগে বিয়ে হয় আলামিনের। তাদের সংসারে তাবাছছুম (৭) ও আব্দুল্লাহ (৫) নামে দুটি সন্তান রয়েছে। মাস খানেক আগে দাম্পত্য কলহের কারণে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এরপর থেকে মাহফুজা আক্তার দুই সন্তান নিয়ে বাবার বাড়িতেই বসবাস করেন। ঈদের দিন শনিবার সকালে আলামিন স্ত্রীকে খুন করার উদ্দেশ্যে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে কাউকে না পেয়ে ঘরে ঢুকে বসে থাকে। শ্যালক ফরহাদ বিষয়টি দেখে আলামিনকে বলে, তুই এখানে কেন?  আলামিন উত্তর দেয়; পাখির সাথে কথা বলবো। পাখির সাথে কোন কথা নাই বলে সাফ জানিয়ে দেয় ফরহাদ। এরপর আলামিন  উত্তেজিত হয়ে ফরহাদকে তিনটি গুলি করে। এতে সে মারাত্মক আহত হয়। এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ফরহাদকে আটক করে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে পুলিশে খবর দেয়। সেখানে আলামিন বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামিনের হেফাজতে থাকা একটি ওয়ান শুটারগান, দুইটি কার্তুজ, তিন রাউন্ড ফায়ারকৃত কার্তুজ ও একটি চাপাতি উদ্ধার করে। একই সাথে গুলিবিদ্ধ ফরহাদ ও অসুস্থ আলামিনকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে ফরহাদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আলামিন পুলিশ প্রহরায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পাংশায় শ্যালককে গুলি করে হত্যাচেষ্টা ॥ অস্ত্রগুলিসহ যুবক গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৭:১৭:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ অগাস্ট ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥  প্রাক্তন স্ত্রীর সাথে দেখা করতে না দেয়ায় শ্যালক ফরহাদ হোসেনকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করেছে আলামিন মন্ডল নামে এক যুবক। পুলিশ অস্ত্রগুলিসহ  আলামিনকে গ্রেপ্তার করেছে। গুরুতর আহত ফরহাদ হোসেনকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঈদের দিন শনিবার রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার মৌরাট ইউনিয়নের দড়িচৌবাড়িয়া গ্রামে। গ্রেপ্তার আলামিন একই ইউনিয়নের রুপিয়াট গ্রামের আজিজ মন্ডলের ছেলে।

পাংশা থানা সূত্র জানায়, দড়ি চৌবাড়িয়া গ্রামের হারুন অর রশিদের মেয়ে মাহফুজা আক্তার পাখির সাথে আট বছর আগে বিয়ে হয় আলামিনের। তাদের সংসারে তাবাছছুম (৭) ও আব্দুল্লাহ (৫) নামে দুটি সন্তান রয়েছে। মাস খানেক আগে দাম্পত্য কলহের কারণে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এরপর থেকে মাহফুজা আক্তার দুই সন্তান নিয়ে বাবার বাড়িতেই বসবাস করেন। ঈদের দিন শনিবার সকালে আলামিন স্ত্রীকে খুন করার উদ্দেশ্যে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে কাউকে না পেয়ে ঘরে ঢুকে বসে থাকে। শ্যালক ফরহাদ বিষয়টি দেখে আলামিনকে বলে, তুই এখানে কেন?  আলামিন উত্তর দেয়; পাখির সাথে কথা বলবো। পাখির সাথে কোন কথা নাই বলে সাফ জানিয়ে দেয় ফরহাদ। এরপর আলামিন  উত্তেজিত হয়ে ফরহাদকে তিনটি গুলি করে। এতে সে মারাত্মক আহত হয়। এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ফরহাদকে আটক করে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে পুলিশে খবর দেয়। সেখানে আলামিন বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামিনের হেফাজতে থাকা একটি ওয়ান শুটারগান, দুইটি কার্তুজ, তিন রাউন্ড ফায়ারকৃত কার্তুজ ও একটি চাপাতি উদ্ধার করে। একই সাথে গুলিবিদ্ধ ফরহাদ ও অসুস্থ আলামিনকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে ফরহাদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আলামিন পুলিশ প্রহরায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।