Dhaka ০২:০৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে মেয়ে হত্যার বিচার দাবি রাজপথে মা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৫৩:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১৩৫৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ শ্বশুরবাড়িতে মেয়ে জয়াকে নির্মমভাবে হত্যার বিচার দাবি করে রাজপথে দাঁড়িয়েছেন মা আন্না সরকার। বুধবার সকালে ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে রাজবাড়ী শহরের প্রধান সড়কে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এসময় ছাত্র ইউনিয়ন ও মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখাও  তাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে।

আন্না সরকার জানান, দুই বছর আগে তার মেয়ে জয়ার বিয়ে হয় চুয়াডাঙ্গা জেলার হাসনাহাটি গ্রামের বাসুদেব বিশ্বাসের সাথে। বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে দেয় হয় নগদ ৩০ হাজার টাকা, আসবাবপত্র ও গহনা। বিয়ের কিছুদিন না যেতেই জামাতা বাসুদেব আরও যৌতুক দাবি করে। কিন্তু আমাদের আর্থিক অবস্থা ভালো নয় বিধায় জামাতার চাহিদা মেটাতে পারছিলাম না। একারণে তার মেয়ের উপর নির্যাতন শুরু করে। কিছুদিন ধরে জামাতা বাসুদেব পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছে বলে জানতে পারেন। গত ৪ আগস্ট তারিখে বাসুদেব তার মেয়েকে হত্যার লাশ রান্না ঘরে ঝলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালায়। তার মেয়ের মৃত্যুর খবর শুনে দেখতে চুয়াডাঙ্গায় গিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ দেখাও দেখতে পারেননি।

মানববন্ধনে নিহত জয়ার আত্মীয় স্বজন ও এলাকাবাসী অংশগ্রহণ করেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে মেয়ে হত্যার বিচার দাবি রাজপথে মা

প্রকাশের সময় : ০৬:৫৩:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ শ্বশুরবাড়িতে মেয়ে জয়াকে নির্মমভাবে হত্যার বিচার দাবি করে রাজপথে দাঁড়িয়েছেন মা আন্না সরকার। বুধবার সকালে ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে রাজবাড়ী শহরের প্রধান সড়কে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এসময় ছাত্র ইউনিয়ন ও মহিলা পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখাও  তাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে।

আন্না সরকার জানান, দুই বছর আগে তার মেয়ে জয়ার বিয়ে হয় চুয়াডাঙ্গা জেলার হাসনাহাটি গ্রামের বাসুদেব বিশ্বাসের সাথে। বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে দেয় হয় নগদ ৩০ হাজার টাকা, আসবাবপত্র ও গহনা। বিয়ের কিছুদিন না যেতেই জামাতা বাসুদেব আরও যৌতুক দাবি করে। কিন্তু আমাদের আর্থিক অবস্থা ভালো নয় বিধায় জামাতার চাহিদা মেটাতে পারছিলাম না। একারণে তার মেয়ের উপর নির্যাতন শুরু করে। কিছুদিন ধরে জামাতা বাসুদেব পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছে বলে জানতে পারেন। গত ৪ আগস্ট তারিখে বাসুদেব তার মেয়েকে হত্যার লাশ রান্না ঘরে ঝলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালায়। তার মেয়ের মৃত্যুর খবর শুনে দেখতে চুয়াডাঙ্গায় গিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ দেখাও দেখতে পারেননি।

মানববন্ধনে নিহত জয়ার আত্মীয় স্বজন ও এলাকাবাসী অংশগ্রহণ করেন।