Dhaka ১০:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা উপসর্গ: বালিয়াকান্দিতে প্রসূতির মৃত্যু, আক্রান্ত মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৫৮:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মে ২০২০
  • / ১৫২৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে করোনার উপসর্গ নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদ বেগম (৪২) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের খালকুলা গ্রামে।

বালিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শাফিন জব্বার জানান, প্রসূতি ওই নারী গত মঙ্গলবার বালিয়াকান্দির শাপলা ক্লিনিকে ভর্তি হন। ওই সময় তিনি সুস্থ ছিলেন। ওই দিনই সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি সন্তান জন্ম দেন। দ্বিতীয় দিন থেকেই তিনি ক্রমশঃ অসুস্থ হতে থাকেন। জ্বর, শ্বাসকষ্ট, অক্সিজেন কমে যাওয়াসহ নানা সমস্যা দেখা দেয় তার। এটি করোনার কারণে হতে পারে আবার নাও পারে। যেহেতু তিনি বেশি বয়সে মা হয়েছেন। সেকারণেও হতে পারে। বৃহস্পতিবার রাতে তার অবস্থা ক্রমশঃ খারাপ হতে থাকায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হলে পথিমধ্যে সে মারা যায়। তবে তারা সদ্যজাত সন্তান সুস্থ রয়েছে। যেহেতু করোনার উপসর্গ নিয়ে তার মৃত্যু হয়েছে এজন্য  নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। শাপলা ক্লিনিকে চিকিৎসা আপাতত বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এনিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৪ জনে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

করোনা উপসর্গ: বালিয়াকান্দিতে প্রসূতির মৃত্যু, আক্রান্ত মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৮:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মে ২০২০

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে করোনার উপসর্গ নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদ বেগম (৪২) নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের খালকুলা গ্রামে।

বালিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শাফিন জব্বার জানান, প্রসূতি ওই নারী গত মঙ্গলবার বালিয়াকান্দির শাপলা ক্লিনিকে ভর্তি হন। ওই সময় তিনি সুস্থ ছিলেন। ওই দিনই সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি সন্তান জন্ম দেন। দ্বিতীয় দিন থেকেই তিনি ক্রমশঃ অসুস্থ হতে থাকেন। জ্বর, শ্বাসকষ্ট, অক্সিজেন কমে যাওয়াসহ নানা সমস্যা দেখা দেয় তার। এটি করোনার কারণে হতে পারে আবার নাও পারে। যেহেতু তিনি বেশি বয়সে মা হয়েছেন। সেকারণেও হতে পারে। বৃহস্পতিবার রাতে তার অবস্থা ক্রমশঃ খারাপ হতে থাকায় তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হলে পথিমধ্যে সে মারা যায়। তবে তারা সদ্যজাত সন্তান সুস্থ রয়েছে। যেহেতু করোনার উপসর্গ নিয়ে তার মৃত্যু হয়েছে এজন্য  নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। শাপলা ক্লিনিকে চিকিৎসা আপাতত বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এনিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৪ জনে।