Dhaka ০৯:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে মারপিটের শিকার আনসার সদস্য

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৫৯:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল ২০২০
  • / ১৩৭৩ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন :
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে সেনা সদস্যদের সাথে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে পরিচালিত অভিযানে অংশ নেয়ায় শামসুল হক (৪২) নামে এক আনসার সদস্য মারপিটের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গোয়ালন্দঘাট থানায় বৃহস্পতিবার বিকেলে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
জানা যায়, গত বুধবার বিকালে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও আনসার সদস্য যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় উপজেলার ছোট ভাকলা ইউনিয়নের নলডুবি গ্রামে কিছু যুবক জটলা করে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট চালাচ্ছিল। তাদের সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে সেনা সদস্যরা লাঠি চার্জ করে। অভিযান পরিচালনাকারী দলের সাথে উপস্থিত ছিলেন আনছার সদস্য পার্শ্ববর্তী চর বালিয়াকান্দি গ্রামের শামছুল হক।
পরেরদিন বৃহস্পতিবার আনছার সদস্য শামছুল হকের উপর ওই যুবকরা হামলা চালায়। এ ঘটনায় তিনিসহ ৪ জন আহত হন। আহতরা হলেন, আনাসার সদস্য শামসুল হক (৪২) তার বোন রাবেয়া বেগম (৬২), নাসিমা আক্তার (৩০) ও হোসেন শেখ (১৯)। রাবেয়া ও নাসিমা গুরুতর আহত অবস্থায় গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।
এ ঘটনায় আনসার সদস্য শামসুল হক বাদী হয়ে আজিজ খা, মিজান খান, ইমদাদুল ও শওকতকে আসামী করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ দুটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। ঘটনার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুলাহ আল মামুন ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, সরকারী দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মারপিটের শিকার হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ ঘটনার পর ওই এলাকায় বৃহস্পতিবার ফের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

গোয়ালন্দে মারপিটের শিকার আনসার সদস্য

প্রকাশের সময় : ০৬:৫৯:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন :
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে সেনা সদস্যদের সাথে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে পরিচালিত অভিযানে অংশ নেয়ায় শামসুল হক (৪২) নামে এক আনসার সদস্য মারপিটের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গোয়ালন্দঘাট থানায় বৃহস্পতিবার বিকেলে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
জানা যায়, গত বুধবার বিকালে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও আনসার সদস্য যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় উপজেলার ছোট ভাকলা ইউনিয়নের নলডুবি গ্রামে কিছু যুবক জটলা করে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট চালাচ্ছিল। তাদের সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে সেনা সদস্যরা লাঠি চার্জ করে। অভিযান পরিচালনাকারী দলের সাথে উপস্থিত ছিলেন আনছার সদস্য পার্শ্ববর্তী চর বালিয়াকান্দি গ্রামের শামছুল হক।
পরেরদিন বৃহস্পতিবার আনছার সদস্য শামছুল হকের উপর ওই যুবকরা হামলা চালায়। এ ঘটনায় তিনিসহ ৪ জন আহত হন। আহতরা হলেন, আনাসার সদস্য শামসুল হক (৪২) তার বোন রাবেয়া বেগম (৬২), নাসিমা আক্তার (৩০) ও হোসেন শেখ (১৯)। রাবেয়া ও নাসিমা গুরুতর আহত অবস্থায় গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।
এ ঘটনায় আনসার সদস্য শামসুল হক বাদী হয়ে আজিজ খা, মিজান খান, ইমদাদুল ও শওকতকে আসামী করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ দুটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। ঘটনার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুলাহ আল মামুন ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, সরকারী দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মারপিটের শিকার হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ ঘটনার পর ওই এলাকায় বৃহস্পতিবার ফের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।