Dhaka ০৫:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘বিকাশ বাহিনী’র তান্ডব! গুলিবিদ্ধ গ্রাম পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৭:১২:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪
  • / ১০৩২ জন সংবাদটি পড়েছেন

চাঁদার টাকা না পেয়ে গ্রাম পুলিশ সদস্য মনিরুল ইসলামকে গুলি করে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের বসাকুষ্টিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত মনিরুল একই গ্রামের করম আলীর ছেলে। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এর আগে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে চারটি বসতবাড়ি ভাংচুর করেছে। বিকাশ বাহিনীর সদস্যরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা পুলিশের।

কলিমহর ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ দিলবার আলী জানান, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ১০/১২ জনের একদল সশ্রস্ত্র দুর্বৃত্ত অতর্র্কিতে হামলা চালিয়ে বসাকুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আলী, কালাম শেখ ও রেজাউল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। ওই সময় বাড়ির লোকেরা তাদের ভয়ে পালিয়ে যায়। হামলার বিষয়টি একজন মনিরুলকে জানালে সে বাইরে বের হয়। দুর্বৃত্তরা তাকে পেয়ে প্রথমে পিটিয়ে জখম করে ও বাম পায়ে গুলি করে চলে যায়। দুর্বৃত্তরা রেজাউলসহ দুজনের কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছিল। চাঁদা না পেয়ে এ হামলা করেছে বলে ধারণা তার। ঘটনার পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পাংশা থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, বিকাশ বাহিনীর বিকাশ ভারতে বসে তার লোকদের দিয়ে ওই এলাকায় চাঁদাবাজি করছে। কিছুদিন আগে বিকাশ বাহিনী ওই এলাকার দুজনের কাছে চাঁদা দাবি করেছিল। চাঁদার টাকা না দেওয়ায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আহত মনিরুলকে পায়ে ঠেকিয়ে গুলি করেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার পর থেকে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। বর্তমানে মনিরুলের পরিবারের সদস্যরা চিকিৎসার জন্য ব্যস্ত থাকায় মামলা হয়নি। এ বিষয়ে মামলা হবে বলে জানান তিনি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

‘বিকাশ বাহিনী’র তান্ডব! গুলিবিদ্ধ গ্রাম পুলিশ

প্রকাশের সময় : ০৭:১২:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪

চাঁদার টাকা না পেয়ে গ্রাম পুলিশ সদস্য মনিরুল ইসলামকে গুলি করে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের বসাকুষ্টিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত মনিরুল একই গ্রামের করম আলীর ছেলে। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এর আগে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে চারটি বসতবাড়ি ভাংচুর করেছে। বিকাশ বাহিনীর সদস্যরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা পুলিশের।

কলিমহর ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ দিলবার আলী জানান, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ১০/১২ জনের একদল সশ্রস্ত্র দুর্বৃত্ত অতর্র্কিতে হামলা চালিয়ে বসাকুষ্টিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আলী, কালাম শেখ ও রেজাউল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। ওই সময় বাড়ির লোকেরা তাদের ভয়ে পালিয়ে যায়। হামলার বিষয়টি একজন মনিরুলকে জানালে সে বাইরে বের হয়। দুর্বৃত্তরা তাকে পেয়ে প্রথমে পিটিয়ে জখম করে ও বাম পায়ে গুলি করে চলে যায়। দুর্বৃত্তরা রেজাউলসহ দুজনের কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা চেয়েছিল। চাঁদা না পেয়ে এ হামলা করেছে বলে ধারণা তার। ঘটনার পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পাংশা থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, বিকাশ বাহিনীর বিকাশ ভারতে বসে তার লোকদের দিয়ে ওই এলাকায় চাঁদাবাজি করছে। কিছুদিন আগে বিকাশ বাহিনী ওই এলাকার দুজনের কাছে চাঁদা দাবি করেছিল। চাঁদার টাকা না দেওয়ায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আহত মনিরুলকে পায়ে ঠেকিয়ে গুলি করেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনার পর থেকে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। বর্তমানে মনিরুলের পরিবারের সদস্যরা চিকিৎসার জন্য ব্যস্ত থাকায় মামলা হয়নি। এ বিষয়ে মামলা হবে বলে জানান তিনি।