Dhaka ০৩:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীর মামলায় কারাগারে ব্যাংক কর্মকর্তা আনোয়ার

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ১০:০১:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪
  • / ১০৬১ জন সংবাদটি পড়েছেন

রাজবাড়ীতে স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেপ্তার হয়েছেন। তাকে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের আব্দুল মজিদ শেখের ছেলে। ইউনাইটেড কমার্র্শিয়াল ব্যাক পিএলসি সাতৈর শাখায় সিনিয়র অফিসার হিসেবে কর্মরত তিনি।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি ইফতেখারুল আলম প্রধান জানান, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার স্ত্রী রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলাটি রাজবাড়ী সদর থানায় এফআইআর হিসেবে গ্রহণ করার পর সোমবার অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে রাজবাড়ীর আদালতে চালান করা হয়।

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, ২০২২ সালের ১০ মে তারিখে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় তার বাবা ১৫ লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালংকার ও আসবাবপত্র যৌতুক হিসেবে দেন। কিছুদিন আগে তিনি জানতে পারেন আনোয়ার পরনারীতে আসক্ত। ছয় মাস আগে আনোয়ার তার কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করেন। তিনি দিতে অস্বীকৃতি জানান। যৌতুক দিতে না পারায় তিন মাস আগে তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ায় তিনি বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। তার বাবা আনোয়ারকে বারংবার নিয়ে যেতে অনুরোধ করলেও আনোয়ার তা শোনেনি। গত ৫ এপ্রিল তারিখে আনোয়ার তার বাবার বাড়িতে গিয়ে আবারও ১০ লাখ টাকার দাবি করে। এবারও তারা যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আনোয়ার তাকে না নিয়েই চলে যান। এ ঘটনায় তিনি গত ১৮ এপ্রিল তারিখে আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা করেন। মামলার কথা জেনে আনোয়ার আপস মীমাংসার জন্য তার দুই স্বজনকে নিয়ে বাবার বাড়িতে আসে। তাকে নিয়ে যেতে বলায় আবারও ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। তারা যৌতুকের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় তাকে বেদম প্রহার করে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

স্ত্রীর মামলায় কারাগারে ব্যাংক কর্মকর্তা আনোয়ার

প্রকাশের সময় : ১০:০১:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

রাজবাড়ীতে স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেপ্তার হয়েছেন। তাকে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের আব্দুল মজিদ শেখের ছেলে। ইউনাইটেড কমার্র্শিয়াল ব্যাক পিএলসি সাতৈর শাখায় সিনিয়র অফিসার হিসেবে কর্মরত তিনি।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি ইফতেখারুল আলম প্রধান জানান, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার স্ত্রী রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলাটি রাজবাড়ী সদর থানায় এফআইআর হিসেবে গ্রহণ করার পর সোমবার অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে রাজবাড়ীর আদালতে চালান করা হয়।

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, ২০২২ সালের ১০ মে তারিখে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় তার বাবা ১৫ লাখ টাকা মূল্যের স্বর্ণালংকার ও আসবাবপত্র যৌতুক হিসেবে দেন। কিছুদিন আগে তিনি জানতে পারেন আনোয়ার পরনারীতে আসক্ত। ছয় মাস আগে আনোয়ার তার কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করেন। তিনি দিতে অস্বীকৃতি জানান। যৌতুক দিতে না পারায় তিন মাস আগে তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ায় তিনি বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। তার বাবা আনোয়ারকে বারংবার নিয়ে যেতে অনুরোধ করলেও আনোয়ার তা শোনেনি। গত ৫ এপ্রিল তারিখে আনোয়ার তার বাবার বাড়িতে গিয়ে আবারও ১০ লাখ টাকার দাবি করে। এবারও তারা যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আনোয়ার তাকে না নিয়েই চলে যান। এ ঘটনায় তিনি গত ১৮ এপ্রিল তারিখে আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা করেন। মামলার কথা জেনে আনোয়ার আপস মীমাংসার জন্য তার দুই স্বজনকে নিয়ে বাবার বাড়িতে আসে। তাকে নিয়ে যেতে বলায় আবারও ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। তারা যৌতুকের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় তাকে বেদম প্রহার করে।