Dhaka ০১:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দাঁত ভাঙার পরও ছাড়েনি ছিনতাইকারীকে

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৩৮:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ১০৩৩ জন সংবাদটি পড়েছেন

 ছিনতাইকারীরে মারধরে দাঁত ভেঙে যাওয়ার পরও এক ছিনতাইকারীকে ধরে রেখেছিলেন আজিজ কাজী। পরে স্থানীয় জনতার মাধ্যমে ওই ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। মঙ্গলবার রাতে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের অদূরে এ ঘটনা ঘটে। ছিনতাকারীর নাম মো. শরিফ। সে একই উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের হামিদ মোল্লার ছেলে। ভুক্তভোগী আজিজ কাজী বাবুপাড়া ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

পাংশা থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত ১১টার দিকে এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে আলো জে¦লে আজিজ কাজী পায়ে ঁেহটে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। এসময় মোটরসাইকেলযোগে দুই যুবক তার গতিরোধ করে মোটরসাইকেলের পেছনে বসা যুবক তার মোবাইল ফোন হাত থেকে কেড়ে নিতে যায়। ছিনতাইয়ে ব্যর্থ হয়ে আজিজ কাজীকে কিল ঘুষি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে পালাতে গেলে আজিজ কাজী ছিনতাইকারী শরীফের পা চেপে ধরে চিৎকার দেয়। অপর ছিনতাইকারী শরীফকে ফেলেই পালিয়ে যায়। স্থানীয় জনগণ ঘটনাস্থলে গিয়ে শরীফকে ধরে পুলিশে দেয়। আহতাবস্থায় আজিজকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার একটি দাঁত পড়ে গেছে। আরও চারটি দাঁত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

পাংশা থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, ছিনতাই হওয়া ফোনটি উদ্ধার হয়েছে। আটক শরিফকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। অপর ছিনতাইাকারীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

দাঁত ভাঙার পরও ছাড়েনি ছিনতাইকারীকে

প্রকাশের সময় : ০৬:৩৮:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 ছিনতাইকারীরে মারধরে দাঁত ভেঙে যাওয়ার পরও এক ছিনতাইকারীকে ধরে রেখেছিলেন আজিজ কাজী। পরে স্থানীয় জনতার মাধ্যমে ওই ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। মঙ্গলবার রাতে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার বাবুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের অদূরে এ ঘটনা ঘটে। ছিনতাকারীর নাম মো. শরিফ। সে একই উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের হামিদ মোল্লার ছেলে। ভুক্তভোগী আজিজ কাজী বাবুপাড়া ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

পাংশা থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত ১১টার দিকে এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোনে আলো জে¦লে আজিজ কাজী পায়ে ঁেহটে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। এসময় মোটরসাইকেলযোগে দুই যুবক তার গতিরোধ করে মোটরসাইকেলের পেছনে বসা যুবক তার মোবাইল ফোন হাত থেকে কেড়ে নিতে যায়। ছিনতাইয়ে ব্যর্থ হয়ে আজিজ কাজীকে কিল ঘুষি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে পালাতে গেলে আজিজ কাজী ছিনতাইকারী শরীফের পা চেপে ধরে চিৎকার দেয়। অপর ছিনতাইকারী শরীফকে ফেলেই পালিয়ে যায়। স্থানীয় জনগণ ঘটনাস্থলে গিয়ে শরীফকে ধরে পুলিশে দেয়। আহতাবস্থায় আজিজকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার একটি দাঁত পড়ে গেছে। আরও চারটি দাঁত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

পাংশা থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, ছিনতাই হওয়া ফোনটি উদ্ধার হয়েছে। আটক শরিফকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। অপর ছিনতাইাকারীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।