Dhaka ১১:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ

৭৫ জনে পাশ মাত্র ২

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৯:২১:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩
  • / ১০৫৬ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

 

 প্রতিষ্ঠানটির নাম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ। রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার সরিষা ইউনিয়নে অবস্থিত কলেজটি থেকে চলতি বছর এইচএসসি পরীক্ষায় ৭৫ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে মাত্র দুইজন। এমন ফলাফলে হতবাক সবাই। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে এলাকায়।

জানা গেছে, এলাকার বিদ্যোৎসাহী কয়েক ব্যক্তি ১৯৯৪ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০২১ সালে কলেজটি সরকারি হয়। বর্তমানে কলেজে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় তিনশ। শিক্ষক রয়েছেন ২৮ জন। ২০২৩ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় ৭৫ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে মাত্র দুজন। যাদের একজন পেয়েছে জিপিএ ৫। অন্যজন বি গ্রেড পেয়ে পাশ করেছে।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য কলেজের অধ্যক্ষ নবিউল ইসলামের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হয়। প্রতিবারই ফোন রিসিভ করে কথা না বলে বিচ্ছিন্ন করে দেন। পরে কলেজের সহকারী অধ্যাপক অরুন কুমার সেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সরিষা ইউনিয়নটি দারিদ্রপীড়িত অঞ্চল। দরিদ্র জনগোষ্ঠির ছেলে মেয়েরা তাদের কলেজে ভর্তি হয়। তারা ঠিকমতো কলেজে আসেনা। উপস্থিতির হার খুবই কম। একশ জনের মধ্যে নিয়মিত আসে মাত্র ১০ থেকে ১৫ জন। নির্বাচনী পরীক্ষায় খারাপ হলেও তাদেরকে ছাড় দেওয়া হয়েছিল। এসব কারণেই রেজাল্ট খারাপ হয়েছে। গত বছরও রেজাল্ট ভালো ছিল বলে জানান তিনি। রেজাল্ট এবারই খারাপ হয়েছে। এটা খুবই লজ্জাস্কর।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে তারা কলেজে মিটিং করেছেন। আগামীতে যাতে ভালো ফলাফল করতে পারে সেব্যাপারে তারা উদ্যোগ নেবেন। অভিভাবকসহ সচেতন মহলের সাথে তারা নিয়মিত যোগাযোগ রাখবেন।

সরিষা ইউপি চেয়ারম্যান আজমল আল বাহার বলেন, বঙ্গবন্ধুর নামে কলেজের ফলাফল এমন খারাপ হওয়াটা খুবই দুঃখজনক। এজন্য শিক্ষকদের উদাসীনতাকে দায়ী করে বলেন, কলেজের উন্নয়নের জন্য তিনি জমি দিয়েছেন। কিন্তু কলেজের কোনো উন্নয়ন হয়নি। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এব্যাপারে এগিয়ে আসার আহŸান জানান তিনি।

পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাফর সাদিক চৌধুরী জানান, কলেজটির ম্যানেজিং কমিটিতে আগে ইউএনও সভাপতি ছিলেন। জাতীয়করণ হওয়ার পর থেকে নেই। কলেজের খারাপ ফলাফলের কথা তিনি জেনেছেন। যে ফলাফল হয়েছে তা খুবই ন্যাক্কারজনক। এটা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। বিষয়টি তিনি সিরিয়াসলি দেখবেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ

৭৫ জনে পাশ মাত্র ২

প্রকাশের সময় : ০৯:২১:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩

 

 

 প্রতিষ্ঠানটির নাম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজ। রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার সরিষা ইউনিয়নে অবস্থিত কলেজটি থেকে চলতি বছর এইচএসসি পরীক্ষায় ৭৫ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে মাত্র দুইজন। এমন ফলাফলে হতবাক সবাই। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে এলাকায়।

জানা গেছে, এলাকার বিদ্যোৎসাহী কয়েক ব্যক্তি ১৯৯৪ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০২১ সালে কলেজটি সরকারি হয়। বর্তমানে কলেজে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় তিনশ। শিক্ষক রয়েছেন ২৮ জন। ২০২৩ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় ৭৫ জন অংশ নিয়ে পাশ করেছে মাত্র দুজন। যাদের একজন পেয়েছে জিপিএ ৫। অন্যজন বি গ্রেড পেয়ে পাশ করেছে।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য কলেজের অধ্যক্ষ নবিউল ইসলামের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হয়। প্রতিবারই ফোন রিসিভ করে কথা না বলে বিচ্ছিন্ন করে দেন। পরে কলেজের সহকারী অধ্যাপক অরুন কুমার সেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সরিষা ইউনিয়নটি দারিদ্রপীড়িত অঞ্চল। দরিদ্র জনগোষ্ঠির ছেলে মেয়েরা তাদের কলেজে ভর্তি হয়। তারা ঠিকমতো কলেজে আসেনা। উপস্থিতির হার খুবই কম। একশ জনের মধ্যে নিয়মিত আসে মাত্র ১০ থেকে ১৫ জন। নির্বাচনী পরীক্ষায় খারাপ হলেও তাদেরকে ছাড় দেওয়া হয়েছিল। এসব কারণেই রেজাল্ট খারাপ হয়েছে। গত বছরও রেজাল্ট ভালো ছিল বলে জানান তিনি। রেজাল্ট এবারই খারাপ হয়েছে। এটা খুবই লজ্জাস্কর।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে তারা কলেজে মিটিং করেছেন। আগামীতে যাতে ভালো ফলাফল করতে পারে সেব্যাপারে তারা উদ্যোগ নেবেন। অভিভাবকসহ সচেতন মহলের সাথে তারা নিয়মিত যোগাযোগ রাখবেন।

সরিষা ইউপি চেয়ারম্যান আজমল আল বাহার বলেন, বঙ্গবন্ধুর নামে কলেজের ফলাফল এমন খারাপ হওয়াটা খুবই দুঃখজনক। এজন্য শিক্ষকদের উদাসীনতাকে দায়ী করে বলেন, কলেজের উন্নয়নের জন্য তিনি জমি দিয়েছেন। কিন্তু কলেজের কোনো উন্নয়ন হয়নি। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এব্যাপারে এগিয়ে আসার আহŸান জানান তিনি।

পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাফর সাদিক চৌধুরী জানান, কলেজটির ম্যানেজিং কমিটিতে আগে ইউএনও সভাপতি ছিলেন। জাতীয়করণ হওয়ার পর থেকে নেই। কলেজের খারাপ ফলাফলের কথা তিনি জেনেছেন। যে ফলাফল হয়েছে তা খুবই ন্যাক্কারজনক। এটা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। বিষয়টি তিনি সিরিয়াসলি দেখবেন।