Dhaka ০১:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ী পৌর কাউন্সিলর পলাশ বরখাস্ত

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৯:৫৬:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১০৮১ জন সংবাদটি পড়েছেন

 একাধিক মামলায় রাজবাড়ী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান পলাশকে কাউন্সিলরের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজবাড়ীর সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস ও রেলওয়ে ট্রলিম্যান লিখন শেখকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা এবং সরকারের উন্নয়ন কাজ বন্ধ রাখার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে করা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি তিনি।

গত ৪ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখার উপসচিব মো. আব্দুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এ প্রজ্ঞাপনের পরিপ্রেক্ষিতে রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর শেখ পৌর কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান পলাশকে পৌর কাউন্সিলর হিসেবে সব দাপ্তরিক দায়িত্ব পালন করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন।

মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, গত ১২ সেপ্টেম্বর কাউন্সিলর পলাশ লোকজন নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনের উন্নয়ন কাজে দায়িত্বরত রেলওয়ের রাজবাড়ীর সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস এবং রেলওয়ের ট্রলিম্যান লিখন শেখকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। সেই সঙ্গে উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন। এ বিষয়ে গত ১৩ সেপ্টেম্বর পলাশের নামে রাজবাড়ী রেলওয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়। ৩১ অক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র গৃহীত হয়। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ১৭ জুন রাজবাড়ী সদর উপজেলার বিনোদপুরে এফএন টাওয়ারের সামনে থেকে দুই ব্যক্তিকে অবৈধভাবে আটক, শারীরিকভাবে নির্যাতন ও চাঁদা দাবির অভিযোগে সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলাটিও বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী কোনো পৌরসভার কাউন্সিলরের নামে ফৌজদারি মামলায় অভিযোগপত্র আদালত কর্তৃক গৃহীত হলে, নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় কাউন্সিলর কর্তৃক ক্ষমতা প্রয়োগ পৌরসভার স্বার্থের পরিপন্থী অথবা প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন না হলে, সরকার কর্তৃক লিখিত আদেশের মাধ্যমে কাউন্সিলরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা যাবে। কাউন্সিলর হিসেবে পলাশের ক্ষমতা প্রয়োগ করা প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় বলে সরকার মনে করে। এ কারণে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী মাহবুবুর রহমান পলাশকে রাজবাড়ী পৌরসভার ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্তকরা হলো।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ী পৌর কাউন্সিলর পলাশ বরখাস্ত

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৬:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ এপ্রিল ২০২৩

 একাধিক মামলায় রাজবাড়ী পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান পলাশকে কাউন্সিলরের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনে বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজবাড়ীর সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস ও রেলওয়ে ট্রলিম্যান লিখন শেখকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা এবং সরকারের উন্নয়ন কাজ বন্ধ রাখার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে করা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি তিনি।

গত ৪ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখার উপসচিব মো. আব্দুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এ প্রজ্ঞাপনের পরিপ্রেক্ষিতে রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর শেখ পৌর কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান পলাশকে পৌর কাউন্সিলর হিসেবে সব দাপ্তরিক দায়িত্ব পালন করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন।

মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, গত ১২ সেপ্টেম্বর কাউন্সিলর পলাশ লোকজন নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের রাজবাড়ী রেলওয়ে স্টেশনের উন্নয়ন কাজে দায়িত্বরত রেলওয়ের রাজবাড়ীর সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী গৌতম বিশ্বাস এবং রেলওয়ের ট্রলিম্যান লিখন শেখকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। সেই সঙ্গে উন্নয়ন কাজ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন। এ বিষয়ে গত ১৩ সেপ্টেম্বর পলাশের নামে রাজবাড়ী রেলওয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়। ৩১ অক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র গৃহীত হয়। মামলাটি বর্তমানে বিচারাধীন।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ১৭ জুন রাজবাড়ী সদর উপজেলার বিনোদপুরে এফএন টাওয়ারের সামনে থেকে দুই ব্যক্তিকে অবৈধভাবে আটক, শারীরিকভাবে নির্যাতন ও চাঁদা দাবির অভিযোগে সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলাটিও বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী কোনো পৌরসভার কাউন্সিলরের নামে ফৌজদারি মামলায় অভিযোগপত্র আদালত কর্তৃক গৃহীত হলে, নির্ধারিত কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় কাউন্সিলর কর্তৃক ক্ষমতা প্রয়োগ পৌরসভার স্বার্থের পরিপন্থী অথবা প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন না হলে, সরকার কর্তৃক লিখিত আদেশের মাধ্যমে কাউন্সিলরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা যাবে। কাউন্সিলর হিসেবে পলাশের ক্ষমতা প্রয়োগ করা প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় বলে সরকার মনে করে। এ কারণে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী মাহবুবুর রহমান পলাশকে রাজবাড়ী পৌরসভার ৮ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্তকরা হলো।