Dhaka ০৬:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুলিশের মহানুভবতা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:১৭:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১
  • / ১২৯৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥  প্রচন্ড শীতে খালি গায়ে রাজবাড়ী শহরের ২ নং রেলগেট এলকায় এদিক ওদিক ঘোরাফিরা করছিল একটি শিশু। ওই সময় রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ সদস্যরা শিশুটিকে দেখে থানায় নিয়ে যান। গায়ে জড়িয়ে দেন গরম কাপড়। শিশুটিকে দেন জুতা মোজা। রাতের খাবারেরও ব্যবস্থা করেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, শনিবার সন্ধ্যার দিকে রাজবাড়ী শহরের ২ নং রেলগেট এলাকায় আট দশ বছর বয়সী একটি শিশুকে খালি গায়ে দেখতে পেয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় নিয়ে আসে কর্তব্যরত পুলিশ। প্রচন্ড শীতে সে কাঁপছিল। ওই অবস্থা দেখে তাৎক্ষণিক তার গরম কাপড় চোপড়ের ব্যবস্থা করা হয়। রাতে তাকে খাবার খাওয়ানো হয়। ছেলেটি কিছুটা মনসিক প্রতিবন্ধী। কথা বলতে পারেনা, কানেও শোনেনা। যেকারণে তার পরিবারের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। এখনও সে রাজবাড়ী সদর থানায় আছে।  আদালতের মাধ্যমে তাকে সমাজসেবা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। পুলিশ সুপার শাকিলুজ্জামানের নির্দেশনায় তারা এ মহান কাজটি করেছেন। শিশুটির পরিবারের কেউ খোঁজ পেলে তা রাজবাড়ী সদর থানার ওসিকে জানাতে পারেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পুলিশের মহানুভবতা

প্রকাশের সময় : ০৭:১৭:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১

জনতার আদালত অনলাইন ॥  প্রচন্ড শীতে খালি গায়ে রাজবাড়ী শহরের ২ নং রেলগেট এলকায় এদিক ওদিক ঘোরাফিরা করছিল একটি শিশু। ওই সময় রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ সদস্যরা শিশুটিকে দেখে থানায় নিয়ে যান। গায়ে জড়িয়ে দেন গরম কাপড়। শিশুটিকে দেন জুতা মোজা। রাতের খাবারেরও ব্যবস্থা করেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, শনিবার সন্ধ্যার দিকে রাজবাড়ী শহরের ২ নং রেলগেট এলাকায় আট দশ বছর বয়সী একটি শিশুকে খালি গায়ে দেখতে পেয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় নিয়ে আসে কর্তব্যরত পুলিশ। প্রচন্ড শীতে সে কাঁপছিল। ওই অবস্থা দেখে তাৎক্ষণিক তার গরম কাপড় চোপড়ের ব্যবস্থা করা হয়। রাতে তাকে খাবার খাওয়ানো হয়। ছেলেটি কিছুটা মনসিক প্রতিবন্ধী। কথা বলতে পারেনা, কানেও শোনেনা। যেকারণে তার পরিবারের নাম ঠিকানা সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। এখনও সে রাজবাড়ী সদর থানায় আছে।  আদালতের মাধ্যমে তাকে সমাজসেবা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। পুলিশ সুপার শাকিলুজ্জামানের নির্দেশনায় তারা এ মহান কাজটি করেছেন। শিশুটির পরিবারের কেউ খোঁজ পেলে তা রাজবাড়ী সদর থানার ওসিকে জানাতে পারেন।