Dhaka ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্যাতন ও নিপীড়নবিরোধী আন্দোলন এর উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৩০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০২০
  • / ১৩৭০ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর সামাজিক সংগঠন নির্যাতন ও নিপীড়ন বিরোধী আন্দোলন এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দুইজন অশীতিপর বীর মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় রাজবাড়ী শহরের ভবানীপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুন্নবী আলমের বাসায় গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ। শহিদুন্নবী আলম দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। বর্তমানে তিনি পারিবারিকভাবে আইসোলেটেড অবস্থায় রয়েছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুন্নবী আলমের ছেলে নুরুন্নবী জুয়েল জানান, তার বাবা খুবই অসুস্থ অবস্থায় রয়েছেন। মাঝে মধ্যে কথা বলেন। তবে খুবই কম।

এরপরে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সজ্জনকান্দা বড়পুলে বীর মুক্তিযোদ্ধা গীতা করের বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। গীতা কর জানান, দীর্ঘ বছর পরে হলেও তার নাম গেজেটভুক্ত হয়েছে। আমরা তিন বোন মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। দুই বোনের নাম গেজেট ভুক্ত হলেও ভক্তি রানীর নাম গেজেটভুক্ত হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের গোবরা ক্যাম্পের স্মৃতিচারণ করেন তিনি। জানালেন, তার আক্ষেপের কথা। আগে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে জেলা প্রশাসন থেকে চিঠি পেতেন। গত দুবছর ধরে পাচ্ছেঠন না। আমরা তো এই চিঠিটা প্রত্যাশা করি। কিছুদিন যাবৎ কোমরের সমস্যায় ভুগছেন বলে জানান তিনি। পরে তার নিজের লেখা ‘যুদ্ধ আমার মুক্তিযুদ্ধ’ বইটি উপহার দেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান চৌধুরী বাবলা, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম স্বপন, সাংবাদিক সৌমিত্র শীল,  আহনাফ হাসান রবিন, কাউসার আহমেদ রিপন প্রমুখ।

এর আগে বুধবার বিজয় দিবসে সংগঠনটির পক্ষ থেকে রেলগেট মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলক, শহীদ খুশীর কবর ও লোকোসেড বধ্যভূমিতে শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

নির্যাতন ও নিপীড়নবিরোধী আন্দোলন এর উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ

প্রকাশের সময় : ০৬:৩০:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর সামাজিক সংগঠন নির্যাতন ও নিপীড়ন বিরোধী আন্দোলন এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দুইজন অশীতিপর বীর মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় রাজবাড়ী শহরের ভবানীপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুন্নবী আলমের বাসায় গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ। শহিদুন্নবী আলম দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। বর্তমানে তিনি পারিবারিকভাবে আইসোলেটেড অবস্থায় রয়েছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুন্নবী আলমের ছেলে নুরুন্নবী জুয়েল জানান, তার বাবা খুবই অসুস্থ অবস্থায় রয়েছেন। মাঝে মধ্যে কথা বলেন। তবে খুবই কম।

এরপরে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সজ্জনকান্দা বড়পুলে বীর মুক্তিযোদ্ধা গীতা করের বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। গীতা কর জানান, দীর্ঘ বছর পরে হলেও তার নাম গেজেটভুক্ত হয়েছে। আমরা তিন বোন মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। দুই বোনের নাম গেজেট ভুক্ত হলেও ভক্তি রানীর নাম গেজেটভুক্ত হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের গোবরা ক্যাম্পের স্মৃতিচারণ করেন তিনি। জানালেন, তার আক্ষেপের কথা। আগে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে জেলা প্রশাসন থেকে চিঠি পেতেন। গত দুবছর ধরে পাচ্ছেঠন না। আমরা তো এই চিঠিটা প্রত্যাশা করি। কিছুদিন যাবৎ কোমরের সমস্যায় ভুগছেন বলে জানান তিনি। পরে তার নিজের লেখা ‘যুদ্ধ আমার মুক্তিযুদ্ধ’ বইটি উপহার দেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান চৌধুরী বাবলা, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম স্বপন, সাংবাদিক সৌমিত্র শীল,  আহনাফ হাসান রবিন, কাউসার আহমেদ রিপন প্রমুখ।

এর আগে বুধবার বিজয় দিবসে সংগঠনটির পক্ষ থেকে রেলগেট মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলক, শহীদ খুশীর কবর ও লোকোসেড বধ্যভূমিতে শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।