Dhaka ১০:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দৌলতদিয়া ঘাটে দালাল চক্রের ৬ সদস্যের দন্ড

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১১:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ অক্টোবর ২০২০
  • / ১২৯৫ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন : অবৈধ উপায়ে গাড়ি পারাপারের সময় গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট থেকে আটক ৬জনকে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে আটক কয়েকজনকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তদবীর করার অভিযোগ উঠেছে গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লার বিরুদ্ধে। ওই নেতা হাতেনাতে আটক কয়েকজন দালালকে ছেড়ে দেয়ার জন্য বুধবার ভোর ৩টার দিকে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসিকে ফোন করে অনুরোধ করেন।

জানা যায়, সম্প্রতি গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভায় দৌলতদিয়া ঘাট চাঁদাবাজ ও দালাল মুক্ত করতে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে কথা বলা, ঘাট সংশ্লিষ্টদের মাইকিং করে সচেতন করা, বিক্ষোভ মিছিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়। এসকল কর্মসূচীতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লা। কিন্তু দালালদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসনের অভিযানে আটক ব্যাক্তিদের ছাড়াতে তদবীর করায় বিষয়টি হাস্যকর হিসেবে মনে করছে স্থানীয় প্রশাসন ও অন্যান্যরা।

অবৈধ উপায়ে যানবাহন পারাপারের চেষ্টাকালে বুধবার ভোররাতে আটককৃত ৬জন হলো, গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের শহিদ মোল্লার ছেলে সবুজ মোল্লা (২৫), শাজাহান মোল্লার ছেলে রজব মোল্লা (২৯), মো. ছবদুলের ছেলে মাসুদুর আলম রানা (৩৩), শুকুর আলী সরদারের ছেলে আ. মান্নান সরদার (৩৩), ছোট ভাকলা ইউনিয়নের নলডুবি গ্রামের আশরাফ আলী খানের ছেলে ইমদাদ খান (২৬), উজানচর ইউনিয়নের নিজাম মোল্লার ছেলে রুবেল মোল্লা (৩১)। আটককৃতদের বুধবার দুপুরে গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আমিনুল ইসলাম পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করলে আদালত প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা করে।

গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লা কাউকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তদবীর না করার দাবী করে বলেন, গভীর রাতে আমি ওসি সাহেবকে অন্য একটি কারণে ফোন করেছিলাম।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া ঘাট এলাকা চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী ও দালাল মুক্ত করতে পুলিশের অভিযানে ওই ৬ জন আটক হয়। যারা দৌলতদিয়া ঘাট দালাল মুক্ত করার আন্দোলন করছেন তাদের তদবীর আসলে অনেকটা বিব্রত হতে হয়। তবে এই অভিযান আরো জোরদার করা হবে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

দৌলতদিয়া ঘাটে দালাল চক্রের ৬ সদস্যের দন্ড

প্রকাশের সময় : ০৬:১১:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ অক্টোবর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন : অবৈধ উপায়ে গাড়ি পারাপারের সময় গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট থেকে আটক ৬জনকে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে আটক কয়েকজনকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তদবীর করার অভিযোগ উঠেছে গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লার বিরুদ্ধে। ওই নেতা হাতেনাতে আটক কয়েকজন দালালকে ছেড়ে দেয়ার জন্য বুধবার ভোর ৩টার দিকে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসিকে ফোন করে অনুরোধ করেন।

জানা যায়, সম্প্রতি গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভায় দৌলতদিয়া ঘাট চাঁদাবাজ ও দালাল মুক্ত করতে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে কথা বলা, ঘাট সংশ্লিষ্টদের মাইকিং করে সচেতন করা, বিক্ষোভ মিছিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়। এসকল কর্মসূচীতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লা। কিন্তু দালালদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসনের অভিযানে আটক ব্যাক্তিদের ছাড়াতে তদবীর করায় বিষয়টি হাস্যকর হিসেবে মনে করছে স্থানীয় প্রশাসন ও অন্যান্যরা।

অবৈধ উপায়ে যানবাহন পারাপারের চেষ্টাকালে বুধবার ভোররাতে আটককৃত ৬জন হলো, গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের শহিদ মোল্লার ছেলে সবুজ মোল্লা (২৫), শাজাহান মোল্লার ছেলে রজব মোল্লা (২৯), মো. ছবদুলের ছেলে মাসুদুর আলম রানা (৩৩), শুকুর আলী সরদারের ছেলে আ. মান্নান সরদার (৩৩), ছোট ভাকলা ইউনিয়নের নলডুবি গ্রামের আশরাফ আলী খানের ছেলে ইমদাদ খান (২৬), উজানচর ইউনিয়নের নিজাম মোল্লার ছেলে রুবেল মোল্লা (৩১)। আটককৃতদের বুধবার দুপুরে গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আমিনুল ইসলাম পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করলে আদালত প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা করে।

গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মোল্লা কাউকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তদবীর না করার দাবী করে বলেন, গভীর রাতে আমি ওসি সাহেবকে অন্য একটি কারণে ফোন করেছিলাম।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, দেশের গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া ঘাট এলাকা চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী ও দালাল মুক্ত করতে পুলিশের অভিযানে ওই ৬ জন আটক হয়। যারা দৌলতদিয়া ঘাট দালাল মুক্ত করার আন্দোলন করছেন তাদের তদবীর আসলে অনেকটা বিব্রত হতে হয়। তবে এই অভিযান আরো জোরদার করা হবে।