Dhaka 7:39 pm, Friday, 3 February 2023

পাংশায় শিক্ষক হত্যায় জড়িতদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 07:08:46 pm, Tuesday, 29 September 2020
  • / 1203 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের সুবর্ণখোলা গ্রামে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের বিচার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায় পাংশা উপজেলাবাসীর উদ্যোগে এসব কর্মসূচি পালিত হয়।

         নিহতের নাম আসাদুল খান (৪৫)। তিনি সেনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি সুবর্ণখোলা গ্রামে। আসাদুল খোকশায় ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। হত্যাকান্ডের আগের রাতে চলতি বছরের ১২ মার্চ অসুস্থ ভাইকে দেখার জন্য বাড়িতে এসেছিলেন।

হত্যাকান্ডের দিন ১৩ মার্চ দিবাগত রাতে প্রতিপক্ষ জজ আলী বিশ্বাসকে প্রধান করে ৫১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ১৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে নিহতের ভাতিজা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করে। মামলাটি বর্তমানে পিবিআইতে তদন্তাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আসাদুল খানের হত্যামামলায় জড়িতদের দ্রুত বিচার ও শাস্তির দাবিতে স্থানীয়রা পাংশা শহরের রেলগেট এলাকায় জড়ো হয়। সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি বিভিন্ন শহর প্রদক্ষিণ করে শহরের কালীবাড়ি মোড় নামক স্থানে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মিলিত হয়। এসময় আসামীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তির দাবিতে বক্তব্য দেন নিহতের স্ত্রী রতœা বেগম, মারুফ খান প্রমূখ। মানববন্ধনের ছবি তুলতে গেলে টুটুল নামে এক ব্যক্তি সাংবাদিকদের বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে নেয়। কর্মসূচিতে পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করে। মানববন্ধন শেষে আবারও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি টেম্পুস্ট্রান্ড মোড় প্রদক্ষিণ করে পৌরসভা কাছে এসে শেষ হয়। এসময় আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ সুপার ও পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে ও আসামীদের দ্রুত বিচার করে ফাঁসির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেওয়া হয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

পাংশায় শিক্ষক হত্যায় জড়িতদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশের সময় : 07:08:46 pm, Tuesday, 29 September 2020

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কসবামাজাইল ইউনিয়নের সুবর্ণখোলা গ্রামে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের বিচার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায় পাংশা উপজেলাবাসীর উদ্যোগে এসব কর্মসূচি পালিত হয়।

         নিহতের নাম আসাদুল খান (৪৫)। তিনি সেনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি সুবর্ণখোলা গ্রামে। আসাদুল খোকশায় ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। হত্যাকান্ডের আগের রাতে চলতি বছরের ১২ মার্চ অসুস্থ ভাইকে দেখার জন্য বাড়িতে এসেছিলেন।

হত্যাকান্ডের দিন ১৩ মার্চ দিবাগত রাতে প্রতিপক্ষ জজ আলী বিশ্বাসকে প্রধান করে ৫১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ১৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে নিহতের ভাতিজা নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করে। মামলাটি বর্তমানে পিবিআইতে তদন্তাধীন রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আসাদুল খানের হত্যামামলায় জড়িতদের দ্রুত বিচার ও শাস্তির দাবিতে স্থানীয়রা পাংশা শহরের রেলগেট এলাকায় জড়ো হয়। সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি বিভিন্ন শহর প্রদক্ষিণ করে শহরের কালীবাড়ি মোড় নামক স্থানে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মিলিত হয়। এসময় আসামীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তির দাবিতে বক্তব্য দেন নিহতের স্ত্রী রতœা বেগম, মারুফ খান প্রমূখ। মানববন্ধনের ছবি তুলতে গেলে টুটুল নামে এক ব্যক্তি সাংবাদিকদের বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে নেয়। কর্মসূচিতে পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করে। মানববন্ধন শেষে আবারও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি টেম্পুস্ট্রান্ড মোড় প্রদক্ষিণ করে পৌরসভা কাছে এসে শেষ হয়। এসময় আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ সুপার ও পাংশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে ও আসামীদের দ্রুত বিচার করে ফাঁসির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেওয়া হয়।