Dhaka ০৫:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে ভাবিকে হত্যার দায়ে দেবরের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:১৬:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১৪১২ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন॥রাজবাড়ীতে ভাবি পারভীন বেগমকে হত্যার দায়ে দেবর হামেদ আলী মন্ডলকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদন্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিলুফার সুলতানা এ রায় ঘোষণা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত হামেদ আলী রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের মল্লিকপাড়া গ্রামের মৃত কেসমত আলীর ছেলে। মৃত পারভীন বেগম একই গ্রামের হাসেম মন্ডলের স্ত্রী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৯ আগস্ট তারিখে পারিবারিক কলহের জের ধরে পারভীন বেগমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে বাড়ির ল্যাট্রিন থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনার পরদিন ১০ আগস্ট তারিখে নিহতের ভাই মো. খোকন বাদী হয়ে দেবর হামেদ আলীসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে চার্জশীট প্রদান করেন। দীর্ঘ সাক্ষ্য প্রমাণ ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে আদালতের বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন।

রাজবাড়ী আদালতের পিপি অ্যড. উজীর আলী জানান, মামলার অপর তিন আসামির বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ না পাওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে ভাবিকে হত্যার দায়ে দেবরের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

প্রকাশের সময় : ০৬:১৬:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন॥রাজবাড়ীতে ভাবি পারভীন বেগমকে হত্যার দায়ে দেবর হামেদ আলী মন্ডলকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদন্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিলুফার সুলতানা এ রায় ঘোষণা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত হামেদ আলী রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ইউনিয়নের মল্লিকপাড়া গ্রামের মৃত কেসমত আলীর ছেলে। মৃত পারভীন বেগম একই গ্রামের হাসেম মন্ডলের স্ত্রী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৯ আগস্ট তারিখে পারিবারিক কলহের জের ধরে পারভীন বেগমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে বাড়ির ল্যাট্রিন থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনার পরদিন ১০ আগস্ট তারিখে নিহতের ভাই মো. খোকন বাদী হয়ে দেবর হামেদ আলীসহ চারজনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে চার্জশীট প্রদান করেন। দীর্ঘ সাক্ষ্য প্রমাণ ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে আদালতের বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন।

রাজবাড়ী আদালতের পিপি অ্যড. উজীর আলী জানান, মামলার অপর তিন আসামির বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ না পাওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।