Dhaka ০১:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আবার পেছলো গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাচন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৩৮:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১২৮৬ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন : গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলামের মৃতু্যতে শূন্য হয়ে যাওয়া গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আরেক দফা পেছালো।   করোনা ভাইরাসের কারণে প্রথম দফা স্থগিত হওয়ার পর এবার প্রার্থীর মৃতু্যতে আরও এক দফা পেছালো। প্রার্থী  নুরুল ইসলাম মন্ডলের মৃতু্যর একদি আগে গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনের নতুন তারিখ নির্ধারণ হয় আগামী ১০ অক্টোবর। রাজবাড়ী জেলা নির্বাচন অফিসার হাবিবুর রহমান জানান, গোয়ালন্দ উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল ইসলাম মন্ডলের মৃত্যুর খবর তিনি জেনেছেন। নুরুল ইসলাম মন্ডলের প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী মৃত্যু সনদ নিয়ে আবেদন করলে এ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। সে তফসিল অনুযায়ী নতুন প্রার্থী হতে আবেদন করতে পারবেন উপজেলার যে কেউ। তবে পুরাতন তফসিল অনুযায়ী অন্য প্রার্থীদের প্রার্থিতা বহাল থাকবে। নুরুল ইসলামের মৃত্যু সনদ পেলে তার দাফতরিক কার্যক্রম সম্পন্ন করবেন।

একটি পৌরসভা ও চারটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত গোয়ালন্দ উপজেলা। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের তারিখ চলতি বছরের ২৯ মার্চ নির্ধারিত হয়েছিল।   এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন তিন জন প্রার্থী। এরা হলেন, ক্ষতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. মোস্তফা মুন্সি (নৌকা), স্বতন্ত্র উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল (ঘোড়া) এবং বিএনপি মনোনীত মাহবুব আলম (ধানের শীষ)।  কিন্তু প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ২৩ মার্চ নির্বাচন স্থাগিতের সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন।

 ১৪ সেপ্টেম্বর স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল মৃত্যুবরণ করেন। প্রার্থীর মৃত্যুতে আবার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। আগের তফসিলে নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের প্রার্থিতা বহাল থাকবে। নতুন তফসিলে নতুন কেউ প্রার্থী হতে চাইলে আবেদন করতে পারবেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

আবার পেছলো গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাচন

প্রকাশের সময় : ০৬:৩৮:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন : গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলামের মৃতু্যতে শূন্য হয়ে যাওয়া গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আরেক দফা পেছালো।   করোনা ভাইরাসের কারণে প্রথম দফা স্থগিত হওয়ার পর এবার প্রার্থীর মৃতু্যতে আরও এক দফা পেছালো। প্রার্থী  নুরুল ইসলাম মন্ডলের মৃতু্যর একদি আগে গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনের নতুন তারিখ নির্ধারণ হয় আগামী ১০ অক্টোবর। রাজবাড়ী জেলা নির্বাচন অফিসার হাবিবুর রহমান জানান, গোয়ালন্দ উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল ইসলাম মন্ডলের মৃত্যুর খবর তিনি জেনেছেন। নুরুল ইসলাম মন্ডলের প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী মৃত্যু সনদ নিয়ে আবেদন করলে এ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। সে তফসিল অনুযায়ী নতুন প্রার্থী হতে আবেদন করতে পারবেন উপজেলার যে কেউ। তবে পুরাতন তফসিল অনুযায়ী অন্য প্রার্থীদের প্রার্থিতা বহাল থাকবে। নুরুল ইসলামের মৃত্যু সনদ পেলে তার দাফতরিক কার্যক্রম সম্পন্ন করবেন।

একটি পৌরসভা ও চারটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত গোয়ালন্দ উপজেলা। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের তারিখ চলতি বছরের ২৯ মার্চ নির্ধারিত হয়েছিল।   এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন তিন জন প্রার্থী। এরা হলেন, ক্ষতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. মোস্তফা মুন্সি (নৌকা), স্বতন্ত্র উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল (ঘোড়া) এবং বিএনপি মনোনীত মাহবুব আলম (ধানের শীষ)।  কিন্তু প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ২৩ মার্চ নির্বাচন স্থাগিতের সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশন।

 ১৪ সেপ্টেম্বর স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল মৃত্যুবরণ করেন। প্রার্থীর মৃত্যুতে আবার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। আগের তফসিলে নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের প্রার্থিতা বহাল থাকবে। নতুন তফসিলে নতুন কেউ প্রার্থী হতে চাইলে আবেদন করতে পারবেন।