Dhaka ০৮:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা জয় করেই কর্মমুখর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:০১:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১৮১২ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ একটানা ২২ দিন মহামারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ইং তারিখে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট হাতে পেয়েছেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার।  গত ১৬ আগষ্ট তার করোনা’র পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তখন থেকে পারিবারিক তত্ত্বাবধানে পুরোপুরি হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। উল্লেখ্য যে করোনা মহামারি আবির্ভাবের প্রথম থেকেই তিনি মানুষের পাশে থেকে জেলা পরিষদ, রেড ক্রিসেন্ট ও তার নিজের প্রাণ প্রিয় সংগঠন কেকেএসসহ ব্যক্তিগত ভাবেও অসহায় মানুষের জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবসত নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। ব্যক্তি জীবনে নিয়মানুবর্তীতার এক মূর্ত প্রতীক এবং জনবান্ধব মানুষ।

ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, “মহান আল্লাহ পাকের প্রতি অশেষ শুকরিয়া। আমি এখন শারীরিক ভাবেও সুস্থতা অনুভব করছি। অসুস্থতাকালীন সময়ে যারা আমার জন্য মহান স্রষ্টার নিকট প্রান খুলে দোয়া করেছেন, খোঁজ নিয়েছেন, দূর থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করেছেন আমি তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। একটি কথা না বললেই নয়, আজ এই দূর্যোগে জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ ব্যবস্থাপনায় বিশে^র যেকোন দেশের চেয়ে আমরা করোনা মোকাবেলায় এগিয়ে আছি। আশা করি আমরা খুব দ্রুতই এই মহামারি কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবো ইনসাআল্লাহ। পূর্বের ন্যায় নিজেকে জনসেবায় বিলিয়ে দেয়ার শক্তি সঞ্চয়ের জন্য সকল শুভাকাঙ্খিসহ জেলাবাসীর কাছে দোয়া কামনা করছি”। এছাড়াও তিনি খুব দ্রুতই জনসেবায় ভুমিকা রাখতে সক্ষম হবেন বলে তার পরিবারও আশা প্রকাশ করছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

করোনা জয় করেই কর্মমুখর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার

প্রকাশের সময় : ০৭:০১:৪৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ একটানা ২২ দিন মহামারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ইং তারিখে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট হাতে পেয়েছেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আব্দুল জব্বার।  গত ১৬ আগষ্ট তার করোনা’র পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তখন থেকে পারিবারিক তত্ত্বাবধানে পুরোপুরি হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। উল্লেখ্য যে করোনা মহামারি আবির্ভাবের প্রথম থেকেই তিনি মানুষের পাশে থেকে জেলা পরিষদ, রেড ক্রিসেন্ট ও তার নিজের প্রাণ প্রিয় সংগঠন কেকেএসসহ ব্যক্তিগত ভাবেও অসহায় মানুষের জন্য হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবসত নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। ব্যক্তি জীবনে নিয়মানুবর্তীতার এক মূর্ত প্রতীক এবং জনবান্ধব মানুষ।

ফকীর আব্দুল জব্বার বলেন, “মহান আল্লাহ পাকের প্রতি অশেষ শুকরিয়া। আমি এখন শারীরিক ভাবেও সুস্থতা অনুভব করছি। অসুস্থতাকালীন সময়ে যারা আমার জন্য মহান স্রষ্টার নিকট প্রান খুলে দোয়া করেছেন, খোঁজ নিয়েছেন, দূর থেকে যোগাযোগের চেষ্টা করেছেন আমি তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। একটি কথা না বললেই নয়, আজ এই দূর্যোগে জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ ব্যবস্থাপনায় বিশে^র যেকোন দেশের চেয়ে আমরা করোনা মোকাবেলায় এগিয়ে আছি। আশা করি আমরা খুব দ্রুতই এই মহামারি কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবো ইনসাআল্লাহ। পূর্বের ন্যায় নিজেকে জনসেবায় বিলিয়ে দেয়ার শক্তি সঞ্চয়ের জন্য সকল শুভাকাঙ্খিসহ জেলাবাসীর কাছে দোয়া কামনা করছি”। এছাড়াও তিনি খুব দ্রুতই জনসেবায় ভুমিকা রাখতে সক্ষম হবেন বলে তার পরিবারও আশা প্রকাশ করছে।