Dhaka ০৪:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে সকল শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের আনতে চায় জেলা প্রশাসন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৩৫:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ১৪৮৩ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ করোনাকালীন সময়ে পাঠদান কার্যক্রম গতিশীল করার লক্ষে রাজবাড়ীর সকল শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের আওতায় আনতে চায় জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে জেলার ১৪টি শিক্ষা  প্রতিষ্ঠান অনলাাইন ক্লাস চালু করেছে। রাজবাড়ী কেবল নেটওয়ার্কের মাধ্যমেও প্রচারিত হচ্ছে কিছু ক্লাস। অনলাইন ক্লাস কার্যক্রমে সারা দেশের মধ্যে রাজবাড়ী এখন দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।

জানা গেছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হলে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। স্থবির হয়ে পড়ে  শিক্ষা কার্যক্রম ও পাঠদান। শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাস  উদ্যোগি হয়ে ৯ মে থেকে চালু করেন অনলাইন ক্লাস। এতে সাড়াও পড়ে বেশ। পরবর্তীতে অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে ১৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চালু হয়। এর মধ্যে দুটি মাদ্রাসা ও একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও রয়েছে। এতে করে ইন্টারনেট এবং এন্ড্রয়েড ফোন রয়েছে এমন অভিভাবকের  সন্তানরাই ক্লাসটি দেখার সুযোগ পেত। তবে সকল শিক্ষার্থীই যাতে ক্লাসগুলো দেখার সুযোগ পায় এজন্য রাজবাড়ী কেবল নেটওয়ার্কে  ক্লাসগুলো প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত মকয়েকদিন ধরে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসগুলো প্রতিদিন সন্ধ্যা সাতটা থেকে কেবল নেটওয়ার্কে প্রচারিত হচ্ছে।

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও ডিস্ট্রিক অ্যম্বাসেডর প্রদ্যুৎ কুমার দাস জানান, শিক্ষক বাতায়নের ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী অনলাইন ক্লাস পাঠদানে রাজবাড়ী দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজবাড়ীতে মোট ২৩৬৪টি ক্লাস নেয়া হয়েছে। পাঁচ উপজেলা নিয়ে গঠিত ছোট্ট রাজবাড়ী জেলার জন্য এটি নেহায়েৎ কম নয়। তিনি জানান, বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে অনলাইন ক্লাস আগে চালু হলেও প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে তারাই প্রথম অনলাইন ক্লাস চালু করেছেন। সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনলাইন ক্লাস চালু করলে ভালো হতো। এতে করে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাসটি দেখতে আগ্রহী হতো। সাধারণতঃ শিক্ষার্থীরা নিজের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের চিনে থাকে। এখন আমরা চিন্তা করছি কীভাবে আরও শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের সাথে যুক্ত করা যায়। অনলাইনের মাধ্যমে পরীক্ষা নেয়ার কথাও ভাবা হচ্ছে। তিনি আরও জানান,  অনলাইন ক্লাস চালু করার পর জেলা প্রশাসন থেকে সার্বিক সহযোগিতা করেছে। যেকারণে রাজবাড়ীর অবস্থান এখন দ্বিতীয়। আমরা প্রথম হওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক  দিলসাদ বেগম বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে পাঠদান কার্যক্রমের যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছিল তা অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে পূরণ করার  চেষ্টা চলছে। আমরা সকল শিক্ষার্থীকে এই কার্যক্রমের আওতায় আনতে চাই। শিক্ষার্থীরা কীভাবে নিয়মিত ক্লাসগুলো দেখতে পারে সে বিষয়ে ভাবনা চিন্তা চলছে। শিক্ষকদের ছোট ছোট গ্রুপ করে দেয়া হবে মনিটরিংয়ের জন্য। যাতে করে তারা শিক্ষার্থীদের এই ক্লাসের আওতায় আনতে পারেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে সকল শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের আনতে চায় জেলা প্রশাসন

প্রকাশের সময় : ০৭:৩৫:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ করোনাকালীন সময়ে পাঠদান কার্যক্রম গতিশীল করার লক্ষে রাজবাড়ীর সকল শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের আওতায় আনতে চায় জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে জেলার ১৪টি শিক্ষা  প্রতিষ্ঠান অনলাাইন ক্লাস চালু করেছে। রাজবাড়ী কেবল নেটওয়ার্কের মাধ্যমেও প্রচারিত হচ্ছে কিছু ক্লাস। অনলাইন ক্লাস কার্যক্রমে সারা দেশের মধ্যে রাজবাড়ী এখন দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে।

জানা গেছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হলে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। স্থবির হয়ে পড়ে  শিক্ষা কার্যক্রম ও পাঠদান। শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার দাস  উদ্যোগি হয়ে ৯ মে থেকে চালু করেন অনলাইন ক্লাস। এতে সাড়াও পড়ে বেশ। পরবর্তীতে অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে ১৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চালু হয়। এর মধ্যে দুটি মাদ্রাসা ও একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও রয়েছে। এতে করে ইন্টারনেট এবং এন্ড্রয়েড ফোন রয়েছে এমন অভিভাবকের  সন্তানরাই ক্লাসটি দেখার সুযোগ পেত। তবে সকল শিক্ষার্থীই যাতে ক্লাসগুলো দেখার সুযোগ পায় এজন্য রাজবাড়ী কেবল নেটওয়ার্কে  ক্লাসগুলো প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত মকয়েকদিন ধরে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাসগুলো প্রতিদিন সন্ধ্যা সাতটা থেকে কেবল নেটওয়ার্কে প্রচারিত হচ্ছে।

রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও ডিস্ট্রিক অ্যম্বাসেডর প্রদ্যুৎ কুমার দাস জানান, শিক্ষক বাতায়নের ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী অনলাইন ক্লাস পাঠদানে রাজবাড়ী দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজবাড়ীতে মোট ২৩৬৪টি ক্লাস নেয়া হয়েছে। পাঁচ উপজেলা নিয়ে গঠিত ছোট্ট রাজবাড়ী জেলার জন্য এটি নেহায়েৎ কম নয়। তিনি জানান, বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে অনলাইন ক্লাস আগে চালু হলেও প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে তারাই প্রথম অনলাইন ক্লাস চালু করেছেন। সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনলাইন ক্লাস চালু করলে ভালো হতো। এতে করে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাসটি দেখতে আগ্রহী হতো। সাধারণতঃ শিক্ষার্থীরা নিজের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের চিনে থাকে। এখন আমরা চিন্তা করছি কীভাবে আরও শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের সাথে যুক্ত করা যায়। অনলাইনের মাধ্যমে পরীক্ষা নেয়ার কথাও ভাবা হচ্ছে। তিনি আরও জানান,  অনলাইন ক্লাস চালু করার পর জেলা প্রশাসন থেকে সার্বিক সহযোগিতা করেছে। যেকারণে রাজবাড়ীর অবস্থান এখন দ্বিতীয়। আমরা প্রথম হওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক  দিলসাদ বেগম বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে পাঠদান কার্যক্রমের যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছিল তা অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে পূরণ করার  চেষ্টা চলছে। আমরা সকল শিক্ষার্থীকে এই কার্যক্রমের আওতায় আনতে চাই। শিক্ষার্থীরা কীভাবে নিয়মিত ক্লাসগুলো দেখতে পারে সে বিষয়ে ভাবনা চিন্তা চলছে। শিক্ষকদের ছোট ছোট গ্রুপ করে দেয়া হবে মনিটরিংয়ের জন্য। যাতে করে তারা শিক্ষার্থীদের এই ক্লাসের আওতায় আনতে পারেন।