Dhaka ০৫:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৩ ঘন্টা পর লঞ্চ চলাচল শুরু, ফেরি চলাচল ব্যাহত

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:০৬:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অগাস্ট ২০২০
  • / ১২৬২ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন : বৈরী আবহাওয়ার কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া এবং আরিচা-কাজীরহাট নৌরুটে ২৩ ঘন্টা পর বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। বুধবার (২৬ আগস্ট) সকাল ৯টায় এ রুটের সব ধরণের লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। পদ্মা-যমুনা নদীতে প্রচন্ড বাতাস ও উত্তাল ঢেউয়ের কারণে ঝুঁকি এড়াতে এ পদক্ষেপ নেয় বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। তবে প্রচন্ড ¯্রােতে রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

মানিকগঞ্জ লঞ্চ মালিক সমিতির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক মো. নুরুল আনোয়ার মিলন জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে তাদের দুই রুটে চলাচলকারী সকল লঞ্চ (৩৩টি) ২৩ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হয়েছে।

এ দিকে লঞ্চ চলাচল শুরু হলেও বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে টানা ভারী বর্ষণে আবারো লঞ্চ চলাচল বিঘœ ঘটে। নদীতে তীব্র ¯্রােতের কারণে এবং পদ্মার পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় ফেরি চলাচলও ব্যাহত হচ্ছে।

অপর দিেেক উত্তাল নদীর মধ্যে বুধবার সকাল ১০টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে আসা পন্য বোঝাই একটি ট্রলার  পদ্মা নদীতে ডুবে  যাওয়ার ঘটনা  ঘটে। ট্রলারের মাঝি শিবালয় উপজেলার কাউলিকান্দি গ্রামের মো. শরিফ উদ্দিন (৩০) প্রায় ৩ ঘন্টা পর পাটুরিয়া ঘাটের প্রায় ৩ কিমি ভাটিতে গিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হন।

বিআইডব্লিউটিএ আরিচা কার্যালয়ের ট্রাফিক পরিদর্শক আফতাব হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ২৩ ঘন্টা পর ঐ অঞ্চলের দুটি নৌরুটে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। তবে এখনো আবহাওয়া অনেকটা বৈরী থাকায় সতর্কতার সাথে চালকদের চলাচল করতে বলা হয়েছে।

বৈরি আবহাওয়ার কারণে পদ্মা নদীর পানি উত্তাল হয়ে উঠায় এ এলাকায় নদীতে ২ নম্বর বিপদসংকেত ও সুমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর বিপৎসংকেত চলছিল।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

২৩ ঘন্টা পর লঞ্চ চলাচল শুরু, ফেরি চলাচল ব্যাহত

প্রকাশের সময় : ০৭:০৬:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ অগাস্ট ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন : বৈরী আবহাওয়ার কারণে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া এবং আরিচা-কাজীরহাট নৌরুটে ২৩ ঘন্টা পর বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। বুধবার (২৬ আগস্ট) সকাল ৯টায় এ রুটের সব ধরণের লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। পদ্মা-যমুনা নদীতে প্রচন্ড বাতাস ও উত্তাল ঢেউয়ের কারণে ঝুঁকি এড়াতে এ পদক্ষেপ নেয় বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। তবে প্রচন্ড ¯্রােতে রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

মানিকগঞ্জ লঞ্চ মালিক সমিতির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক মো. নুরুল আনোয়ার মিলন জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে তাদের দুই রুটে চলাচলকারী সকল লঞ্চ (৩৩টি) ২৩ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হয়েছে।

এ দিকে লঞ্চ চলাচল শুরু হলেও বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে টানা ভারী বর্ষণে আবারো লঞ্চ চলাচল বিঘœ ঘটে। নদীতে তীব্র ¯্রােতের কারণে এবং পদ্মার পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় ফেরি চলাচলও ব্যাহত হচ্ছে।

অপর দিেেক উত্তাল নদীর মধ্যে বুধবার সকাল ১০টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে আসা পন্য বোঝাই একটি ট্রলার  পদ্মা নদীতে ডুবে  যাওয়ার ঘটনা  ঘটে। ট্রলারের মাঝি শিবালয় উপজেলার কাউলিকান্দি গ্রামের মো. শরিফ উদ্দিন (৩০) প্রায় ৩ ঘন্টা পর পাটুরিয়া ঘাটের প্রায় ৩ কিমি ভাটিতে গিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হন।

বিআইডব্লিউটিএ আরিচা কার্যালয়ের ট্রাফিক পরিদর্শক আফতাব হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ২৩ ঘন্টা পর ঐ অঞ্চলের দুটি নৌরুটে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। তবে এখনো আবহাওয়া অনেকটা বৈরী থাকায় সতর্কতার সাথে চালকদের চলাচল করতে বলা হয়েছে।

বৈরি আবহাওয়ার কারণে পদ্মা নদীর পানি উত্তাল হয়ে উঠায় এ এলাকায় নদীতে ২ নম্বর বিপদসংকেত ও সুমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর বিপৎসংকেত চলছিল।