Dhaka ১২:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দৌলতদিয়ায় দীর্ঘ যানজটে চরম ভোগান্তি যাত্রীদের॥ নদী পারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৩৭:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ অগাস্ট ২০২০
  • / ১২৯৯ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলে ফেরা মানুষ ও পরিবহনের চাপ ক্রমশঃ বাড়তে থাকায় দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলের দ্বারপথ খ্যাত রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। নদী পারের অপেক্ষায় প্রহর গুণছে শত শত যানবাহন।  এতে ভোগান্তিতে পড়েছে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।

দৌলতদিয়া ঘাট সূত্র জানায়,  দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের পদ্মা নদীতে তীব্র  ¯্রােতে ফেরি চলাচল এমনিতেই ব্যাহত হচ্ছে। ফেরিগুলোকে গন্তব্যে  পৌছাতে সময় লাগছে দ্বিগুণেরও বেশি। এর উপর  দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলা হতে গাড়ির চাপ বাড়ছেই। গাড়িগুলোকে সময় মতো পার করতে না পারায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। সময় বাড়ার সাথে সাথে এর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুপুর ১২টায় দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে গোয়ালন্দ বাজার পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকায় নদী পারের অপেক্ষায় যানবাহনগুলো দাঁড়িয়ে ছিল। এছাড়া গোয়ালন্দ  মোড় এলাকায় আটকে আছে কয়েকশ যান।

অন্যদিকে লঞ্চঘাটে দেখা গেছে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। তাদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়নি।

বিআইডব্লিউটিসি কতৃপক্ষ জানিয়েছে, ঈদের পর গত তিন চারদিন ১৯টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হলেও ৩টি ফেরি যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় তা বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে এ নৌ-রুটে ১৬টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে যানবাহন। দৌলতদিয়ায়-পাটুরিয়া নৌ-রুটে তীব্র ¯্রােত থাকায় ও ফেরির সংখ্যা কম থাকায় যানবাহন পারাপারে বেশি সময় লাগছে। অন্যান্য সময়ের তুলনায় ঈদের পর কর্মমুখী মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাট ও গোয়ালন্দমোড় এলাকায় কয়েকশত যানবাহন ফেরি পারেরর অপেক্ষায় রয়েছে। তবে সময় যত গড়িয়ে যাবে যানবাহনের সংখ্যাও তত বাড়বে বলে জানান ঘাট কতৃপক্ষ।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

দৌলতদিয়ায় দীর্ঘ যানজটে চরম ভোগান্তি যাত্রীদের॥ নদী পারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

প্রকাশের সময় : ০৬:৩৭:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ অগাস্ট ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলে ফেরা মানুষ ও পরিবহনের চাপ ক্রমশঃ বাড়তে থাকায় দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলের দ্বারপথ খ্যাত রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। নদী পারের অপেক্ষায় প্রহর গুণছে শত শত যানবাহন।  এতে ভোগান্তিতে পড়েছে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।

দৌলতদিয়া ঘাট সূত্র জানায়,  দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের পদ্মা নদীতে তীব্র  ¯্রােতে ফেরি চলাচল এমনিতেই ব্যাহত হচ্ছে। ফেরিগুলোকে গন্তব্যে  পৌছাতে সময় লাগছে দ্বিগুণেরও বেশি। এর উপর  দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলা হতে গাড়ির চাপ বাড়ছেই। গাড়িগুলোকে সময় মতো পার করতে না পারায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। সময় বাড়ার সাথে সাথে এর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুপুর ১২টায় দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে গোয়ালন্দ বাজার পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকায় নদী পারের অপেক্ষায় যানবাহনগুলো দাঁড়িয়ে ছিল। এছাড়া গোয়ালন্দ  মোড় এলাকায় আটকে আছে কয়েকশ যান।

অন্যদিকে লঞ্চঘাটে দেখা গেছে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। তাদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়নি।

বিআইডব্লিউটিসি কতৃপক্ষ জানিয়েছে, ঈদের পর গত তিন চারদিন ১৯টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হলেও ৩টি ফেরি যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ায় তা বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে এ নৌ-রুটে ১৬টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে যানবাহন। দৌলতদিয়ায়-পাটুরিয়া নৌ-রুটে তীব্র ¯্রােত থাকায় ও ফেরির সংখ্যা কম থাকায় যানবাহন পারাপারে বেশি সময় লাগছে। অন্যান্য সময়ের তুলনায় ঈদের পর কর্মমুখী মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাট ও গোয়ালন্দমোড় এলাকায় কয়েকশত যানবাহন ফেরি পারেরর অপেক্ষায় রয়েছে। তবে সময় যত গড়িয়ে যাবে যানবাহনের সংখ্যাও তত বাড়বে বলে জানান ঘাট কতৃপক্ষ।