Dhaka ০৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে এক বছরের শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যা, মা গ্রেপ্তার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:১৯:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ জুলাই ২০২০
  • / ১৩২১ জন সংবাদটি পড়েছেন

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার বাণিবহ ইউনিয়নের বার্থা গ্রামে এক বছরের শিশু সুমাইয়াকে  পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগে তার মা হনুফা বেগম সুমীকে  গ্রেপ্তার করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। বুধবার সকালে সদর উপজেলার কালিচরণপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বার্থা গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে ও আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

রাজবাড়ী সদর থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে আলমগীরের সাথে হনুফা বেগমের বিয়ে হয়। স্বামীর সাথে দাম্পত্য কলহের কারণে ছয় মাস আগে তার  মেয়েকে  নিয়ে বাবার বাড়ি চলে আসে হনুফা। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে হনুফা তার মেয়েকে নিয়ে বার্থার অনতিদূরে মুরারীপুর গ্রামের একটি পুকুরে নিয়ে ফেলে দেয়। এলাকাবাসী হনুফাকে পুকুর পাড় দিয়ে দৌড়ে  চলে যেতে দেখেছে। পরে হনুফার নানী ও এলাকাবাসী ওই পুকুর থেকে শিশু সুমাইয়াকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে আনেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনার পর থেকেই নিহত শিশুটির মা হনুফা পলাতক ছিল। পরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় শিশু সুমাইয়ার বাবা আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে হনুফার বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে এক বছরের শিশুকে পানিতে ফেলে হত্যা, মা গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৭:১৯:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ জুলাই ২০২০

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার বাণিবহ ইউনিয়নের বার্থা গ্রামে এক বছরের শিশু সুমাইয়াকে  পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগে তার মা হনুফা বেগম সুমীকে  গ্রেপ্তার করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। বুধবার সকালে সদর উপজেলার কালিচরণপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বার্থা গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে ও আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

রাজবাড়ী সদর থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে আলমগীরের সাথে হনুফা বেগমের বিয়ে হয়। স্বামীর সাথে দাম্পত্য কলহের কারণে ছয় মাস আগে তার  মেয়েকে  নিয়ে বাবার বাড়ি চলে আসে হনুফা। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে হনুফা তার মেয়েকে নিয়ে বার্থার অনতিদূরে মুরারীপুর গ্রামের একটি পুকুরে নিয়ে ফেলে দেয়। এলাকাবাসী হনুফাকে পুকুর পাড় দিয়ে দৌড়ে  চলে যেতে দেখেছে। পরে হনুফার নানী ও এলাকাবাসী ওই পুকুর থেকে শিশু সুমাইয়াকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে আনেন।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনার পর থেকেই নিহত শিশুটির মা হনুফা পলাতক ছিল। পরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় শিশু সুমাইয়ার বাবা আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে হনুফার বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।