Dhaka ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ : প্রাণ দিল কলেজছাত্র

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৯:০৩:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুন ২০২০
  • / ১৩৭৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ এবং তাদের অন্যত্র সংসার করার হতাশা থেকে কলেজ ছাত্র অসীম (১৯) অভিমান করে গলায় ফাঁস নিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার ভোরে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সোহরাব মন্ডল পাড়ায় অসিমের নানা কদম ফকিরের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। অসীম মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ চর মকিমপুর গ্রামের আঃ গফুরের ছেলে। তার মায়ের নাম মোছাঃ সুরাইয়া বেগম। অসীম মানিকগঞ্জ খান বাহাদুর আওলাদ হোসেন কলেজের এইচ এসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অসীম নানা বাড়ীতে বেড়ানো অবস্থায় গত রবিবার তার মা সুরাইয়া বেগম সেখানে বেড়াতে আসে। তখন মায়ের সাথে তার কথা কাটাকাটি ও মান-অভিমানের ঘটনা ঘটে। সূত্র জানায়, বিচ্ছেদের পর অসীমের বাবা অন্যত্র বিবাহ করে সংসার করছেন। তার মা সুরাইয়া বেগমও একজনের সাথে চলে গিয়ে বিবাহ করে আলাদা সংসার পেতেছেন। এ অস্থায় অসীম একা হয়ে হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে। এদিকে নানা বাড়িতে মায়ের সাথে কথা কাটকাটির পর অসীম পরদিন সোমবার ভোর ৫ টার দিকে নানা বাড়ীর জাম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মাহত্যা করার চেষ্টা করে। এ সময় বাড়ীর লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে অসমীকে উদ্ধার করে দ্রুত গোয়ালন্দ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, আমরা লাশটি উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠাই। ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি তার নিকট স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ : প্রাণ দিল কলেজছাত্র

প্রকাশের সময় : ০৯:০৩:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুন ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥ বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ এবং তাদের অন্যত্র সংসার করার হতাশা থেকে কলেজ ছাত্র অসীম (১৯) অভিমান করে গলায় ফাঁস নিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার ভোরে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সোহরাব মন্ডল পাড়ায় অসিমের নানা কদম ফকিরের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। অসীম মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ চর মকিমপুর গ্রামের আঃ গফুরের ছেলে। তার মায়ের নাম মোছাঃ সুরাইয়া বেগম। অসীম মানিকগঞ্জ খান বাহাদুর আওলাদ হোসেন কলেজের এইচ এসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অসীম নানা বাড়ীতে বেড়ানো অবস্থায় গত রবিবার তার মা সুরাইয়া বেগম সেখানে বেড়াতে আসে। তখন মায়ের সাথে তার কথা কাটাকাটি ও মান-অভিমানের ঘটনা ঘটে। সূত্র জানায়, বিচ্ছেদের পর অসীমের বাবা অন্যত্র বিবাহ করে সংসার করছেন। তার মা সুরাইয়া বেগমও একজনের সাথে চলে গিয়ে বিবাহ করে আলাদা সংসার পেতেছেন। এ অস্থায় অসীম একা হয়ে হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে। এদিকে নানা বাড়িতে মায়ের সাথে কথা কাটকাটির পর অসীম পরদিন সোমবার ভোর ৫ টার দিকে নানা বাড়ীর জাম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মাহত্যা করার চেষ্টা করে। এ সময় বাড়ীর লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে অসমীকে উদ্ধার করে দ্রুত গোয়ালন্দ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, আমরা লাশটি উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠাই। ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি তার নিকট স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।