Dhaka 7:09 am, Sunday, 5 February 2023

রাজবাড়ীতে ট্রাক-প্রাইভেটকার মুখোমুখি সংঘর্ষে মা-ছেলেসহ নিহত ৪, আহত ৪

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 07:08:35 pm, Sunday, 14 June 2020
  • / 1421 জন সংবাদটি পড়েছেন

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কের রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ছোট ব্রীজ এলাকায় সোমবার সকালে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ চারজন নিহত ও চারজন হয়েছে। নিহতরা হলেন মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলার বল্লমপুর গ্রামের বিপুল বিশ্বাসের স্ত্রী শুভ্রতা মন্ডল ও তার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে লিজান, শুভ্রতা মন্ডলের ভাই শ্যামল মন্ডল এবং চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বাসিন্দা রিপন। নিহতদের মধ্যে প্রথম তিনজন প্রাইভেটকার আরোহী। অপরজন ট্রাকের চালক।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন শুভ্রতার স্বামী বিপুল বিশ্বাস, রেজিনা মন্ডল, রাজন মন্ডল ও ট্রাকের হেলপার আব্দুর রহিম। তাদেরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শুভ্রতা মন্ডল তার স্বামী, সন্তান, ভাইসহ ছয়জনকে নিয়ে মেহেরপুর থেকে একটি প্রাইভেটকারে করে ঢাকায় যাচ্ছিলেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সকাল ১০টার দিকে মেহেরপুর থেকে ঢাকাগামী প্রাইভেটকারটি খানখানাপুর ছোট ব্রীজ অতিক্রম করার সময় বিপরীত দিকে থেকে আসা রড বোঝাই ট্রাকটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারে থাকা তিন আরোহী মারা যায়। গুরুতর আহত হয় অপর তিনজন। প্রাইভেটকারটি ছিটকে গিয়ে রাস্তার পার্শ্ববর্তী গিয়ে পড়ে। আর ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে গিয়ে সজোরে ধাক্কা খায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় ট্রাকের চালক। গুরুতর আহত হয় ট্রাকের হেলপার। দুর্ঘটনায় প্রাইভেটকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে ট্রাকটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় চার ঘণ্টা চেষ্টার পর ট্রাকের ভেতরে আটকে পড়া হেলপার ও প্রাইভেটকারের ভেতরে আটকে পড়া এক যাত্রীকে উদ্ধার করে। এদিকে দুর্ঘটনার কবলে প্রাইভেটকার ও ট্রাকের ভেতরে  জটিলভাবে আটকে পড়াদের উদ্ধার করার সময় মহাসকড়কের দুপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে আটকা পড়ে  কয়েকশ যানবাহন।

রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিাভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার রবিউল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করে। দীর্ঘ চার ঘণ্টা চেষ্টার পর ট্রাক ও প্রােিভটকারে আটকে পড়া দুজনকে আহতাবস্থায় উদ্ধার আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আহ্লাদিপুর হাইওয়ে থানার ওসি লুৎফর রহমান জানান, দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত ব্যক্তিদের আত্মীয় পরিজনদের কাছে খবর পাঠানো হয়েছে। তারা এলেই মরদেহ হস্তান্তর করা হবে। এব্যাপারে আইনী কার্যক্রমের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে ট্রাক-প্রাইভেটকার মুখোমুখি সংঘর্ষে মা-ছেলেসহ নিহত ৪, আহত ৪

প্রকাশের সময় : 07:08:35 pm, Sunday, 14 June 2020

 

জনতার আদালত অনলাইন ॥ দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কের রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর ছোট ব্রীজ এলাকায় সোমবার সকালে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ চারজন নিহত ও চারজন হয়েছে। নিহতরা হলেন মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলার বল্লমপুর গ্রামের বিপুল বিশ্বাসের স্ত্রী শুভ্রতা মন্ডল ও তার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে লিজান, শুভ্রতা মন্ডলের ভাই শ্যামল মন্ডল এবং চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বাসিন্দা রিপন। নিহতদের মধ্যে প্রথম তিনজন প্রাইভেটকার আরোহী। অপরজন ট্রাকের চালক।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন শুভ্রতার স্বামী বিপুল বিশ্বাস, রেজিনা মন্ডল, রাজন মন্ডল ও ট্রাকের হেলপার আব্দুর রহিম। তাদেরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শুভ্রতা মন্ডল তার স্বামী, সন্তান, ভাইসহ ছয়জনকে নিয়ে মেহেরপুর থেকে একটি প্রাইভেটকারে করে ঢাকায় যাচ্ছিলেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সকাল ১০টার দিকে মেহেরপুর থেকে ঢাকাগামী প্রাইভেটকারটি খানখানাপুর ছোট ব্রীজ অতিক্রম করার সময় বিপরীত দিকে থেকে আসা রড বোঝাই ট্রাকটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারে থাকা তিন আরোহী মারা যায়। গুরুতর আহত হয় অপর তিনজন। প্রাইভেটকারটি ছিটকে গিয়ে রাস্তার পার্শ্ববর্তী গিয়ে পড়ে। আর ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছের সঙ্গে গিয়ে সজোরে ধাক্কা খায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় ট্রাকের চালক। গুরুতর আহত হয় ট্রাকের হেলপার। দুর্ঘটনায় প্রাইভেটকারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে ট্রাকটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় চার ঘণ্টা চেষ্টার পর ট্রাকের ভেতরে আটকে পড়া হেলপার ও প্রাইভেটকারের ভেতরে আটকে পড়া এক যাত্রীকে উদ্ধার করে। এদিকে দুর্ঘটনার কবলে প্রাইভেটকার ও ট্রাকের ভেতরে  জটিলভাবে আটকে পড়াদের উদ্ধার করার সময় মহাসকড়কের দুপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে আটকা পড়ে  কয়েকশ যানবাহন।

রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিাভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার রবিউল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করে। দীর্ঘ চার ঘণ্টা চেষ্টার পর ট্রাক ও প্রােিভটকারে আটকে পড়া দুজনকে আহতাবস্থায় উদ্ধার আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আহ্লাদিপুর হাইওয়ে থানার ওসি লুৎফর রহমান জানান, দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত ব্যক্তিদের আত্মীয় পরিজনদের কাছে খবর পাঠানো হয়েছে। তারা এলেই মরদেহ হস্তান্তর করা হবে। এব্যাপারে আইনী কার্যক্রমের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।