Dhaka ০৫:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকারি চাল উদ্ধারের ঘটনায় যশাই ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর সাময়িক বরখাস্ত

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ১১:৩০:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল ২০২০
  • / ১৪৭১ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন : ১৩৪ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধারের ঘটনায় যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহম্মেদ চৌধুরীর স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলের বিরুদ্ধে সরকারি ত্রাণের চাল আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন এবং রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন-২০০৯ -এর ৩৪ (৪) ধারা অনুযায়ী ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছেন।
সংগঠিত অপরাধমূলক কার্যক্রমের প্রেক্ষিতে তার দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদে ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করে। এ কারণে তাকে ওই পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।
পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, উপজেলার যশাই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলকে বরখাস্ত করে মন্ত্রণালয় বিকেলে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। এখন থেকে প্যানেল চেয়ারম্যান গঠন করে ইউনিয়ন পরিষদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা হবে।
যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল জানান, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে একটি মহল তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। উদ্ধারকৃত চাল যশাই ইউনিয়নের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের কাবিখার চাল। করোনা ভাইরাসের কারণে কাজ বন্ধ থাকায় শ্রমিকদের চাল সংরক্ষণ করেছিলেন। এর সকল তথ্য উপজেলা নির্বাহী অফিস, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, খাদ্য পরিদর্শকের অফিস সংরক্ষণ করা আছে। একটি চক্রান্তকারী মহলের মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে প্রশাসন এ চাল জব্দ করেছে। সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে প্রশাসনের এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানান তিনি।
প্রসঙ্গত গত ১৯ এপ্রিল রাজবাড়ীর পাংশা পৌরসভার বাঁশআড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলের গোউডাউন থেকে ১৩৪ বস্তা সরকারি চাল ও ১৩৫ বস্তা পাটের বীজ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় আব্দুর রাজ্জাক নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়।
পরে পাংশা থানায় চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল ও আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়।

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

সরকারি চাল উদ্ধারের ঘটনায় যশাই ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর সাময়িক বরখাস্ত

প্রকাশের সময় : ১১:৩০:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন : ১৩৪ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধারের ঘটনায় যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহম্মেদ চৌধুরীর স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলের বিরুদ্ধে সরকারি ত্রাণের চাল আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন এবং রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন-২০০৯ -এর ৩৪ (৪) ধারা অনুযায়ী ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছেন।
সংগঠিত অপরাধমূলক কার্যক্রমের প্রেক্ষিতে তার দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদে ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করে। এ কারণে তাকে ওই পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।
পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, উপজেলার যশাই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলকে বরখাস্ত করে মন্ত্রণালয় বিকেলে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। এখন থেকে প্যানেল চেয়ারম্যান গঠন করে ইউনিয়ন পরিষদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা হবে।
যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল জানান, তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে একটি মহল তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। উদ্ধারকৃত চাল যশাই ইউনিয়নের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের কাবিখার চাল। করোনা ভাইরাসের কারণে কাজ বন্ধ থাকায় শ্রমিকদের চাল সংরক্ষণ করেছিলেন। এর সকল তথ্য উপজেলা নির্বাহী অফিস, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, খাদ্য পরিদর্শকের অফিস সংরক্ষণ করা আছে। একটি চক্রান্তকারী মহলের মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে প্রশাসন এ চাল জব্দ করেছে। সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে প্রশাসনের এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানান তিনি।
প্রসঙ্গত গত ১৯ এপ্রিল রাজবাড়ীর পাংশা পৌরসভার বাঁশআড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে সিদ্দিকুর রহমান মন্ডলের গোউডাউন থেকে ১৩৪ বস্তা সরকারি চাল ও ১৩৫ বস্তা পাটের বীজ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় আব্দুর রাজ্জাক নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়।
পরে পাংশা থানায় চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল ও আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়।