Dhaka ০৪:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে হামলায় আহত ব্যাক্তির মৃত্যু

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:১৪:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল ২০২০
  • / ১৪০১ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥
গোয়ালন্দে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনায় আহত আইজদ্দিন শেখ নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে গত ১২ এপ্রিল প্রতিবেশীদের হামলায় আহত হন তিনি।
থানা পুলিশ ও নিহত ব্যাক্তি স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের পূর্ব তেনাপচা গ্রামের খলিল শেখ ও আজাই ফকীরের পাশাপাশি দু’টি পায়খানার দুর্গন্ধ নিয়ে ঝগড়া বাঁধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে আজাই ফকীরের পরিবারের সদস্যরা খলিল শেখের পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা চালায়। এসময় খলিল শেখের চাচা আইজদ্দিন শেখ, মা আমেনা বেগম, ভাই টাবলু শেখ ও তার স্ত্রী শিউলি বেগম গুরুতর আহত হয়। তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এসময় আশঙ্কাজনক গুরুতর আহত আইজদ্দিন শেখকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে কর্তব্যরত চিকিৎসক। পরে সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার বিকেলে তিনি মারা যান।
এদিকে গত ১২ এপ্রিল হামলার ঘটনায় ওইদিনই খলিল শেখ বাদি হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেন।
দেবগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম জানান, প্রতিবেশী দু’জনের টয়লেট পাশাপশি। কার টয়লেট থেকে গন্ধ ছাড়াচ্ছে এই সামন্য বিষয় নিয়ে মারামারির ঘটনা করোরই কাম্য নয়। তিনি আরো বলেন, নিহত আইজদ্দিন শেখের দাফন মঙ্গলবার সম্পন্ন হয়েছে।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, গত ১২ তারিখের হত্যাচেষ্টার যে মামলা হয়েছে সেটিই এখন হত্যা মামলা হিসেবে গণ্য হবে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যহত আছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

গোয়ালন্দে হামলায় আহত ব্যাক্তির মৃত্যু

প্রকাশের সময় : ০৭:১৪:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল ২০২০

জনতার আদালত অনলাইন ॥
গোয়ালন্দে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনায় আহত আইজদ্দিন শেখ নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে গত ১২ এপ্রিল প্রতিবেশীদের হামলায় আহত হন তিনি।
থানা পুলিশ ও নিহত ব্যাক্তি স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নের পূর্ব তেনাপচা গ্রামের খলিল শেখ ও আজাই ফকীরের পাশাপাশি দু’টি পায়খানার দুর্গন্ধ নিয়ে ঝগড়া বাঁধে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে আজাই ফকীরের পরিবারের সদস্যরা খলিল শেখের পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা চালায়। এসময় খলিল শেখের চাচা আইজদ্দিন শেখ, মা আমেনা বেগম, ভাই টাবলু শেখ ও তার স্ত্রী শিউলি বেগম গুরুতর আহত হয়। তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এসময় আশঙ্কাজনক গুরুতর আহত আইজদ্দিন শেখকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে কর্তব্যরত চিকিৎসক। পরে সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার বিকেলে তিনি মারা যান।
এদিকে গত ১২ এপ্রিল হামলার ঘটনায় ওইদিনই খলিল শেখ বাদি হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেন।
দেবগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম জানান, প্রতিবেশী দু’জনের টয়লেট পাশাপশি। কার টয়লেট থেকে গন্ধ ছাড়াচ্ছে এই সামন্য বিষয় নিয়ে মারামারির ঘটনা করোরই কাম্য নয়। তিনি আরো বলেন, নিহত আইজদ্দিন শেখের দাফন মঙ্গলবার সম্পন্ন হয়েছে।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, গত ১২ তারিখের হত্যাচেষ্টার যে মামলা হয়েছে সেটিই এখন হত্যা মামলা হিসেবে গণ্য হবে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যহত আছে।