Dhaka 11:12 am, Friday, 2 December 2022

আশুলিয়ায় টিসিবির পণ্য বিক্রিতে সামাজিক দুরত্ব মানছেনা কেউ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 07:36:17 pm, Thursday, 9 April 2020
  • / 1377 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজধানীর পার্শবর্তী আশুলিয়া পুরাতন ইপিজেড সংলগ্ন ওভার ব্রীজের নিচে বিক্রি হচ্ছে টিসিবির নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য। তবে এখানে নেই কোন সামাজিক নিরাপত্তার বালাই। গায়ের সাথে গা লাগিয়ে ঠেলাঠেলি করে পন্য কিনতে ব্যস্ত সবাই। পেটের ক্ষুধা নিবারন করতে করোনার ভয়কে জয় করেই রাস্তায় নেমে পড়েছেন এসব নি¤œ ও নি¤œ মধ্যবিত্ত পরিবারের নারী পুরুষ।
সরেজমিনে এলাকা ঘুড়ে জানা যায়, শিল্পাঞ্চল খ্যাত আশুলিয়া অঞ্চল বরাবরই ঘনবসতি পুর্ন এলাকা হিসেবেও পরিচিত। এখানে বসবাস প্রায় ১০ লক্ষাধিক পোষাক শ্রমিকের। ফলে এ এলাকার বেশির ভাগ মানুষ নি¤œমধ্যবিত্ত শ্রেনীর। আর এরাই টিসিবির নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল ক্রেতা। এদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকই অশিক্ষিত ও অল্প শিক্ষিত হওয়ায় সচেতনতার বড় অভাব।
দেশের এই করোনা পরিস্থিতিতে যেখানে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে এবং জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের হতে সরকারী নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, সেখানে টিসিবির এসব পন্য ক্রয়ে মানছেন না কেউ কোন সামাজিক নিরাপত্তা।
টিসিবির পন্য ক্রয় করতে আসা নাজমুল হাসান জানান, ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, চাঁদ যেন একখানা ঝলসানো রুটি। আর সেখানে করোনার ভয় করে কি না খেয়ে মরতে বলেন। বাঁচলে তো করোনা ধরবে।। এখানে আমি একা আইন মানলে ও অন্যরা মানছে না। আমি লাইনের সামনে ফাঁকা রেখে দাঁড়ালে অন্যকেউ সুযোগে সেখানে ঢুকে পড়ছে।
স্থানীয় সচেতন মহল জানান, টিসির পন্য ক্রয়ে নিয়মতান্ত্রিকতার বালাই না থাকলে করোনা এখান থেকেই বিস্তার লাভ করতে পারে। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

আশুলিয়ায় টিসিবির পণ্য বিক্রিতে সামাজিক দুরত্ব মানছেনা কেউ

প্রকাশের সময় : 07:36:17 pm, Thursday, 9 April 2020

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজধানীর পার্শবর্তী আশুলিয়া পুরাতন ইপিজেড সংলগ্ন ওভার ব্রীজের নিচে বিক্রি হচ্ছে টিসিবির নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য। তবে এখানে নেই কোন সামাজিক নিরাপত্তার বালাই। গায়ের সাথে গা লাগিয়ে ঠেলাঠেলি করে পন্য কিনতে ব্যস্ত সবাই। পেটের ক্ষুধা নিবারন করতে করোনার ভয়কে জয় করেই রাস্তায় নেমে পড়েছেন এসব নি¤œ ও নি¤œ মধ্যবিত্ত পরিবারের নারী পুরুষ।
সরেজমিনে এলাকা ঘুড়ে জানা যায়, শিল্পাঞ্চল খ্যাত আশুলিয়া অঞ্চল বরাবরই ঘনবসতি পুর্ন এলাকা হিসেবেও পরিচিত। এখানে বসবাস প্রায় ১০ লক্ষাধিক পোষাক শ্রমিকের। ফলে এ এলাকার বেশির ভাগ মানুষ নি¤œমধ্যবিত্ত শ্রেনীর। আর এরাই টিসিবির নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল ক্রেতা। এদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকই অশিক্ষিত ও অল্প শিক্ষিত হওয়ায় সচেতনতার বড় অভাব।
দেশের এই করোনা পরিস্থিতিতে যেখানে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে এবং জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে বের হতে সরকারী নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, সেখানে টিসিবির এসব পন্য ক্রয়ে মানছেন না কেউ কোন সামাজিক নিরাপত্তা।
টিসিবির পন্য ক্রয় করতে আসা নাজমুল হাসান জানান, ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়, চাঁদ যেন একখানা ঝলসানো রুটি। আর সেখানে করোনার ভয় করে কি না খেয়ে মরতে বলেন। বাঁচলে তো করোনা ধরবে।। এখানে আমি একা আইন মানলে ও অন্যরা মানছে না। আমি লাইনের সামনে ফাঁকা রেখে দাঁড়ালে অন্যকেউ সুযোগে সেখানে ঢুকে পড়ছে।
স্থানীয় সচেতন মহল জানান, টিসির পন্য ক্রয়ে নিয়মতান্ত্রিকতার বালাই না থাকলে করোনা এখান থেকেই বিস্তার লাভ করতে পারে। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।