Dhaka 7:43 pm, Friday, 3 February 2023

বিয়ের প্রলোভনে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 08:28:28 pm, Saturday, 7 December 2019
  • / 1551 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজছাত্রী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মিলন মন্ডল নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। মিলন রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়নের বিলচত্রা গ্রামের আলফেত মন্ডলের ছেলে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর চাচী শুক্রবার পাংশা থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। ওই তরুণী যশোর জেলার একটি কলেজের ছাত্রী। তার বাড়ি যশোর এলাকার। মিলন তার দুরসম্পর্কের আত্মীয় বলে জানা গেছে।
ওই কলেজছাত্রী জানান, আত্মীয়তার সূত্র ধরে মিলনের সাথে পরিচয়। গত পাঁচ মাস আগে তার সাথে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। এরপর মিলন তাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে বিয়ের আশ্বাসে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। এক পর্যায়ে অন্ত্বসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন তিনি। মিলনের কথামতো গর্ভপাত করান। কয়েকদিন আগে মিলনের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মিলনের বোনের বাড়ি নিয়ে তার সাথে রাতযাপন করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মিলনের বাড়িতে গিয়ে ওঠেন। তিন দিন থাকার পর তাকে হুমকি ধমকি দিয়ে বের করে দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি এক আত্মীয় বাড়িতে অবস্থান করছেন।
ওই তরুণীর চাচী জানান, মিলন তার চাচাতো ভাই। আর তরুণী তার ভাসুরের মেয়ে। এমতাবস্থায় চরম বিপাকে পড়েছেন তিনি।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, এ ব্যাপারে শুক্রবার একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। ভুক্তভোগীরা বিষয়টি প্রথমে তাকে ফোনে জানিয়েছিল। মেয়েটির বাড়ি যশোর এলাকায়। ছেলেটির বাড়ি পাংশা এলাকায়। আর ঘটনাস্থল বিভিন্ন জায়গায়। যেখানের ঘটনা সেই এলাকার থানায় অভিযোগ দিতে পরামর্শ দিয়েছি।
এব্যাপারে অভিযুক্ত মিলন মন্ডলের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে এ সম্পর্কে তার কিছুই বলার নেই বলে জানান।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বিয়ের প্রলোভনে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : 08:28:28 pm, Saturday, 7 December 2019

জনতার আদালত অনলাইন ॥ প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কলেজছাত্রী তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মিলন মন্ডল নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। মিলন রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়নের বিলচত্রা গ্রামের আলফেত মন্ডলের ছেলে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর চাচী শুক্রবার পাংশা থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। ওই তরুণী যশোর জেলার একটি কলেজের ছাত্রী। তার বাড়ি যশোর এলাকার। মিলন তার দুরসম্পর্কের আত্মীয় বলে জানা গেছে।
ওই কলেজছাত্রী জানান, আত্মীয়তার সূত্র ধরে মিলনের সাথে পরিচয়। গত পাঁচ মাস আগে তার সাথে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। এরপর মিলন তাকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে বিয়ের আশ্বাসে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। এক পর্যায়ে অন্ত্বসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন তিনি। মিলনের কথামতো গর্ভপাত করান। কয়েকদিন আগে মিলনের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মিলনের বোনের বাড়ি নিয়ে তার সাথে রাতযাপন করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মিলনের বাড়িতে গিয়ে ওঠেন। তিন দিন থাকার পর তাকে হুমকি ধমকি দিয়ে বের করে দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি এক আত্মীয় বাড়িতে অবস্থান করছেন।
ওই তরুণীর চাচী জানান, মিলন তার চাচাতো ভাই। আর তরুণী তার ভাসুরের মেয়ে। এমতাবস্থায় চরম বিপাকে পড়েছেন তিনি।
পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ আহসানউল্লাহ জানান, এ ব্যাপারে শুক্রবার একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। ভুক্তভোগীরা বিষয়টি প্রথমে তাকে ফোনে জানিয়েছিল। মেয়েটির বাড়ি যশোর এলাকায়। ছেলেটির বাড়ি পাংশা এলাকায়। আর ঘটনাস্থল বিভিন্ন জায়গায়। যেখানের ঘটনা সেই এলাকার থানায় অভিযোগ দিতে পরামর্শ দিয়েছি।
এব্যাপারে অভিযুক্ত মিলন মন্ডলের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে এ সম্পর্কে তার কিছুই বলার নেই বলে জানান।