Dhaka ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বর ৫৫ঃ কনে ৫০

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৫৩:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯
  • / ২১২৩ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ৫৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তির সাথে বিয়ে হয়েছে ৫০ বছর বয়সী নারীর। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের শোলাবাড়িয়া গ্রামে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। বর একই গ্রামের মইজুদ্দিন তিন সন্তানের জনক। পেশায় তিনি গুড় ব্যবসায়ী। কনে পার্শ্ববর্তী খালিয়া গ্রামের আলেয়া বেগম চার সন্তানের মা। বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মইজুদ্দিনের স্ত্রী রয়েছে। তার একমাত্র ছেলে থাকে বিদেশে। আলেয়া বেগমের স্বামী মারা গেছে কয়েক বছর আগে। কিছুদিন যাবৎ মইজুদ্দিনের সাথে আলেয়া বেগমের পরকীয়া প্রেম চলছিল। শুক্রবার রাত দুইটার দিকে মইজুদ্দিন আলেয়া বেগমের বাড়িতে গেলে স্থানীয় লোকজন তাদের দুজনকে ধরে আটকে রাখে। শনিবার সকালে গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে তাদেরকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হলে দুজনেই সম্মত হন। পরে স্থানীয় মসজিদের ইমাম ওমর আলী ১০ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন।
নারুয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড মেম্বার জামাল উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই দুজনের মধ্যে পরকীয়া প্রেম চলছিল। এর আগে একবার সালিসও হয়েছিল এ নিয়ে। শুক্রবার রাতে তাদের ধরে শনিবার সকালে বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুই পরিবারই এ বিয়ে মেনে নিয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বর ৫৫ঃ কনে ৫০

প্রকাশের সময় : ০৬:৫৩:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯

জনতার আদালত অনলাইন ॥ ৫৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তির সাথে বিয়ে হয়েছে ৫০ বছর বয়সী নারীর। রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের শোলাবাড়িয়া গ্রামে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। বর একই গ্রামের মইজুদ্দিন তিন সন্তানের জনক। পেশায় তিনি গুড় ব্যবসায়ী। কনে পার্শ্ববর্তী খালিয়া গ্রামের আলেয়া বেগম চার সন্তানের মা। বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মইজুদ্দিনের স্ত্রী রয়েছে। তার একমাত্র ছেলে থাকে বিদেশে। আলেয়া বেগমের স্বামী মারা গেছে কয়েক বছর আগে। কিছুদিন যাবৎ মইজুদ্দিনের সাথে আলেয়া বেগমের পরকীয়া প্রেম চলছিল। শুক্রবার রাত দুইটার দিকে মইজুদ্দিন আলেয়া বেগমের বাড়িতে গেলে স্থানীয় লোকজন তাদের দুজনকে ধরে আটকে রাখে। শনিবার সকালে গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে তাদেরকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হলে দুজনেই সম্মত হন। পরে স্থানীয় মসজিদের ইমাম ওমর আলী ১০ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন।
নারুয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড মেম্বার জামাল উদ্দিন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই দুজনের মধ্যে পরকীয়া প্রেম চলছিল। এর আগে একবার সালিসও হয়েছিল এ নিয়ে। শুক্রবার রাতে তাদের ধরে শনিবার সকালে বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুই পরিবারই এ বিয়ে মেনে নিয়েছে।