Dhaka ১০:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বালিয়াকান্দিতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে শ্বশুর শাশুড়ি ও ননদ গ্রেফতার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৮:০১:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ নভেম্বর ২০১৯
  • / ১৮২১ জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের জাবরকোল গ্রামে গৃহবধূ শারমীন খাতুনকে হত্যার অভিযোগে শ্বশুর আলী আজ্জান, শাশুড়ি জুলেখা বেগম ও ননদ আছিয়া আঁখিকে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতার করেছে বালিয়াকান্দি থানার পুলিশ। তাদের সবার বাড়ি একই গ্রামে।
বালিয়াকান্দি থানা সূত্র জানায়, গত ৯ অক্টোবর তারিখে জাবরকোল গ্রামে তার নিজ বাড়ি থেকে শারমীনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শারমীনের শ্বশুর বাড়ির লোকেরা বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলে প্রচারণা চালায়। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করেছে। এব্যাপারে এশটি ইউডি মামলাও করা হয়েছে।
এদিকে শারমীনের বাবা মোহাম্মদ আলী শেখ গত ২০ অক্টোবর তারিখে তার মেয়েকে হত্যার অভিযোগে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় শারমীনের স্বামী আকরাম হোসেন, শ্বশুর আলী আজ্জান, শাশুড়ি জুলেখা বেগম ও ননদ আছিয়া আঁখিকে আসামি করা হয়। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, বিয়ের পর থেকে শারমীনের স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি মিলে শারমীনকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৯ অক্টোবর শারমীনকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচারণা চালিয়েছে।
বালিয়াকান্দি থানার ওসি একেএম আজমল হুদা জানান, আদালতের নির্দেশে মামলাটি বালিয়াকান্দি থানায় রেকর্ড করার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের নিজ বাড়ি থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে চালান করা হয়েছে। পুলিশ মামলাটি তদন্ত করছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বালিয়াকান্দিতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে শ্বশুর শাশুড়ি ও ননদ গ্রেফতার

প্রকাশের সময় : ০৮:০১:৫১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ নভেম্বর ২০১৯

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার সদর ইউনিয়নের জাবরকোল গ্রামে গৃহবধূ শারমীন খাতুনকে হত্যার অভিযোগে শ্বশুর আলী আজ্জান, শাশুড়ি জুলেখা বেগম ও ননদ আছিয়া আঁখিকে বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতার করেছে বালিয়াকান্দি থানার পুলিশ। তাদের সবার বাড়ি একই গ্রামে।
বালিয়াকান্দি থানা সূত্র জানায়, গত ৯ অক্টোবর তারিখে জাবরকোল গ্রামে তার নিজ বাড়ি থেকে শারমীনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শারমীনের শ্বশুর বাড়ির লোকেরা বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলে প্রচারণা চালায়। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করেছে। এব্যাপারে এশটি ইউডি মামলাও করা হয়েছে।
এদিকে শারমীনের বাবা মোহাম্মদ আলী শেখ গত ২০ অক্টোবর তারিখে তার মেয়েকে হত্যার অভিযোগে রাজবাড়ীর আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় শারমীনের স্বামী আকরাম হোসেন, শ্বশুর আলী আজ্জান, শাশুড়ি জুলেখা বেগম ও ননদ আছিয়া আঁখিকে আসামি করা হয়। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, বিয়ের পর থেকে শারমীনের স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি মিলে শারমীনকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৯ অক্টোবর শারমীনকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচারণা চালিয়েছে।
বালিয়াকান্দি থানার ওসি একেএম আজমল হুদা জানান, আদালতের নির্দেশে মামলাটি বালিয়াকান্দি থানায় রেকর্ড করার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের নিজ বাড়ি থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে চালান করা হয়েছে। পুলিশ মামলাটি তদন্ত করছে।