Dhaka ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বকেয়া পেনশন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে রাজবাড়ীতে অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মচারীদের ট্রেন অবরোধ ॥ আত্মাহুতির ঘোষণা

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৫৫:১২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০১৯
  • / ১৬২৩ জন সংবাদটি পড়েছেন


জনতার আদালত অনলাইন ॥ দুই মাসের বকেয়া পেনশন, ঈদ বোনাস ও বৈশাখী ভাতার দাবিতে বুধবার বিকেলে রাজবাড়ীতে ট্রেন অবরোধ করে অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারীরা। ঈদের আগে পেনশন বোনাস দেয়া না হলে আত্মাহুতিরও ঘোষণা দেয় তারা।
দুপুর সাড়ে তিনটায় অবরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারীরা রেল স্টেশন এলাকায় একত্রিত হয়ে মিছিল সমাবেশ করে। এসময় গোয়ালন্দ ঘাট থেকে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাজবাড়ী স্টেশনে পৌছালে তারা সেটি অবরোধ করে রাখে এবং রেল লাইনের উপর শুয়ে পড়ে।
অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী গোলাম মোর্শেদ, আবুল হোসেন, খলিলুর রহমান, মঞ্জুর মোর্শেদ সহ অনেকেই জানান, রাজবাড়ীতে চারশ অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী রয়েছে। যারা পেনশনের উপর নির্ভরশীল। গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তারা কোনো পেনশন পাচ্ছে না। ফলে পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে। ঈদ সমাগত এ সময় কারো কাছে কোনো টাকা পয়সা নেই। সবার ঈদ নিরানন্দ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে পেনশন ও ঈদ বোনাস দেয়া না হলে তারা ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দেবেন।
অবরোধ চলাকালে রাজবাড়ী রেলওয়ের জুনিয়র ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (জেটিআই) শফিকুর রহমান স্বপন ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলা হবে এমন আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

বকেয়া পেনশন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে রাজবাড়ীতে অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মচারীদের ট্রেন অবরোধ ॥ আত্মাহুতির ঘোষণা

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৫:১২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০১৯


জনতার আদালত অনলাইন ॥ দুই মাসের বকেয়া পেনশন, ঈদ বোনাস ও বৈশাখী ভাতার দাবিতে বুধবার বিকেলে রাজবাড়ীতে ট্রেন অবরোধ করে অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারীরা। ঈদের আগে পেনশন বোনাস দেয়া না হলে আত্মাহুতিরও ঘোষণা দেয় তারা।
দুপুর সাড়ে তিনটায় অবরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারীরা রেল স্টেশন এলাকায় একত্রিত হয়ে মিছিল সমাবেশ করে। এসময় গোয়ালন্দ ঘাট থেকে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাজবাড়ী স্টেশনে পৌছালে তারা সেটি অবরোধ করে রাখে এবং রেল লাইনের উপর শুয়ে পড়ে।
অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী গোলাম মোর্শেদ, আবুল হোসেন, খলিলুর রহমান, মঞ্জুর মোর্শেদ সহ অনেকেই জানান, রাজবাড়ীতে চারশ অবসরপ্রাপ্ত রেল কর্মচারী রয়েছে। যারা পেনশনের উপর নির্ভরশীল। গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে তারা কোনো পেনশন পাচ্ছে না। ফলে পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে। ঈদ সমাগত এ সময় কারো কাছে কোনো টাকা পয়সা নেই। সবার ঈদ নিরানন্দ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে পেনশন ও ঈদ বোনাস দেয়া না হলে তারা ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দেবেন।
অবরোধ চলাকালে রাজবাড়ী রেলওয়ের জুনিয়র ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (জেটিআই) শফিকুর রহমান স্বপন ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলা হবে এমন আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।