Dhaka 2:28 am, Friday, 9 December 2022

রাজবাড়ীতে ৪০ জেলের কারাদন্ড

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 07:34:29 pm, Saturday, 20 October 2018
  • / 1371 জন সংবাদটি পড়েছেন

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পদ্মা নদী থেকে মা ইলিশ আহরণের দায়ে ৪০ জেলেকে আটকের পর শনিবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১৫ দিন করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। অভিযানকালে সাড়ে তিন মণ ইলিশ ও ৭৫ হাজার মিটার জাল জব্দ করা হয়। পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, কালুখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া ইসলাম ও রাজবাড়ীর সহকারী কমিশনার মো. সজীব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।
রাজবাড়ী জেলা মৎস্য অফিস সূত্র জানায়, জেলার সদর, পাংশা, কালুখালী ও গোয়ালন্দের পদ্মা নদী বিভিন্ন পয়েন্টে শুক্রবার রাতভর পৃথক অভিযান চালানো হয়। রাজবাড়ী সদরে ২৬ জেলে আটক, ৮৫ কেজি ইলিশ ও ৩৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। পাংশায় তিন জেলেকে আটক, ১০ কেজি মাছ, ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ, কালুখালীতে ১১ জেলে আটক, ২০ কেজি মাছ, ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ এবং গোয়ালন্দে ২০ কেজি মাছ ও ১০ হাজার জাল জব্দ করা হয়।
জব্দকৃত মাছ বিভিন্ন এতিম খানা ও মাদ্রাসায় দান এবং জাল পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।
গোয়ালন্দে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬ জেলের কারাদন্ড
গোয়ালন্দ প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে শনিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলার উজানচর, দেবগ্রাম, ছোটভাকলা ও দৌলতদিয়া ইউনিয়ন এলাকায় পদ্মানদীতে অভিযান চালায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবায়েত হায়াত শিপলুর নেতৃত্বে গঠিত ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় চল্লিশ কেজি মা ইলিশ, এক লক্ষ মিটার কারেন্টজালসহ পাঁচ জেলেকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে ওই দিন বিকেলে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে মা ইলিশ ধরার অপরাধে প্রত্যেককে ১০ দিন করে কারাদন্ডে দন্ডিত করে তাদেরকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ওই ভ্রাম্যমাণ আদালত।
গোয়ালন্দ উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল ফরিদ বলেন, ‘জব্দকৃত ওই জালগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস ও ইলিশ মাছগুলো স্থানীয় মাদ্রাসায় এতিম ছাত্রদের মাঝে বিলি করা হয়েছে।’

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে ৪০ জেলের কারাদন্ড

প্রকাশের সময় : 07:34:29 pm, Saturday, 20 October 2018

জনতার আদালত অনলাইন ॥ রাজবাড়ীতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পদ্মা নদী থেকে মা ইলিশ আহরণের দায়ে ৪০ জেলেকে আটকের পর শনিবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১৫ দিন করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। অভিযানকালে সাড়ে তিন মণ ইলিশ ও ৭৫ হাজার মিটার জাল জব্দ করা হয়। পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, কালুখালী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাদিয়া ইসলাম ও রাজবাড়ীর সহকারী কমিশনার মো. সজীব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।
রাজবাড়ী জেলা মৎস্য অফিস সূত্র জানায়, জেলার সদর, পাংশা, কালুখালী ও গোয়ালন্দের পদ্মা নদী বিভিন্ন পয়েন্টে শুক্রবার রাতভর পৃথক অভিযান চালানো হয়। রাজবাড়ী সদরে ২৬ জেলে আটক, ৮৫ কেজি ইলিশ ও ৩৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। পাংশায় তিন জেলেকে আটক, ১০ কেজি মাছ, ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ, কালুখালীতে ১১ জেলে আটক, ২০ কেজি মাছ, ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ এবং গোয়ালন্দে ২০ কেজি মাছ ও ১০ হাজার জাল জব্দ করা হয়।
জব্দকৃত মাছ বিভিন্ন এতিম খানা ও মাদ্রাসায় দান এবং জাল পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়।
গোয়ালন্দে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬ জেলের কারাদন্ড
গোয়ালন্দ প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে শনিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলার উজানচর, দেবগ্রাম, ছোটভাকলা ও দৌলতদিয়া ইউনিয়ন এলাকায় পদ্মানদীতে অভিযান চালায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবায়েত হায়াত শিপলুর নেতৃত্বে গঠিত ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় চল্লিশ কেজি মা ইলিশ, এক লক্ষ মিটার কারেন্টজালসহ পাঁচ জেলেকে হাতেনাতে আটক করা হয়। পরে ওই দিন বিকেলে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে মা ইলিশ ধরার অপরাধে প্রত্যেককে ১০ দিন করে কারাদন্ডে দন্ডিত করে তাদেরকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ওই ভ্রাম্যমাণ আদালত।
গোয়ালন্দ উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল ফরিদ বলেন, ‘জব্দকৃত ওই জালগুলো আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস ও ইলিশ মাছগুলো স্থানীয় মাদ্রাসায় এতিম ছাত্রদের মাঝে বিলি করা হয়েছে।’