Dhaka 4:17 pm, Thursday, 8 December 2022

জটিল রোগে আক্রন্ত মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ নিজাম মন্টু

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 08:14:24 pm, Monday, 17 July 2017
  • / 1451 জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আহমেদ নিজাম মন্টু। তার সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। রাজবাড়ীর রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে একটি পরিচিত নাম। সর্বত্র ছিল  তার পদচারণা। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর তিনি। যখনই বক্তৃতা দিতেন তার ভরাট কণ্ঠে এলাকা মুখর হতো। মুক্তিযুদ্ধকে হৃদয়ে লালন করেছেন তিনি। একসময়  যার সারাটা দিন ব্যস্ততায় কাটতো। আজ বিছানায় শুয়ে পার করতে হচ্ছে সময়।
রাজবাড়ী জেলা জাসদের সভাপতি আহমেদ নিজাম মন্টু দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস ধরে জটিল ও বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী। চলাফেরা করতে পারেন না। একসময় অনর্গল বক্তৃতা দিতেন যে মানুষটি আজ একটু কথা বললেই হাঁপিয়ে ওঠেন।
সম্প্রতি রাজবাড়ী শহরের বড়পুলে তার বাসভবনে গিয়ে কথা হয় তার সাথে। জানালেন, গত বছরের ১৫ আগস্ট থেকে তিনি শয্যাশায়ী। স্পাইনাল কর্ড অপারেশন করতে গিয়ে ধরা পড়ে টিউমারের। এখন মাল্টিপুল মাইলোমা নামক রোগে আক্রান্ত। এ রোগ হলে ধীরে ধীরে হাঁড় ক্ষয়ে যায়। রোগটি নিবারণযোগ্য। প্রতি মাসে চারটি করে মোট ২৫টি কেমোথেরাপি দিতে হবে। প্রতিটি কেমোথেরাপি দিতে খরচ ২৫ হাজার টাকা। এছাড়া ওষুধপত্র, পরীক্ষা, নিরীক্ষার ব্যয়তো রয়েছেই। ঢাকা থেকে রাজবাড়ী। আবার রাজবাড়ী থেকে ঢাকা যেতে হয় এই অসুস্থ শরীর নিয়ে।
জানালেন, হাঁটা চলা করতে পারেন না। তবে ডাক্তার এক ধরনের বিশেষ বেল্ট দিয়েছেন। যেটি পড়ে ঘরের মধ্যে একটু আধটু হাঁটতে পারেন। আরোগ্য লাভের জন্য সবার কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

জটিল রোগে আক্রন্ত মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ নিজাম মন্টু

প্রকাশের সময় : 08:14:24 pm, Monday, 17 July 2017

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আহমেদ নিজাম মন্টু। তার সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। রাজবাড়ীর রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে একটি পরিচিত নাম। সর্বত্র ছিল  তার পদচারণা। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর তিনি। যখনই বক্তৃতা দিতেন তার ভরাট কণ্ঠে এলাকা মুখর হতো। মুক্তিযুদ্ধকে হৃদয়ে লালন করেছেন তিনি। একসময়  যার সারাটা দিন ব্যস্ততায় কাটতো। আজ বিছানায় শুয়ে পার করতে হচ্ছে সময়।
রাজবাড়ী জেলা জাসদের সভাপতি আহমেদ নিজাম মন্টু দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস ধরে জটিল ও বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশায়ী। চলাফেরা করতে পারেন না। একসময় অনর্গল বক্তৃতা দিতেন যে মানুষটি আজ একটু কথা বললেই হাঁপিয়ে ওঠেন।
সম্প্রতি রাজবাড়ী শহরের বড়পুলে তার বাসভবনে গিয়ে কথা হয় তার সাথে। জানালেন, গত বছরের ১৫ আগস্ট থেকে তিনি শয্যাশায়ী। স্পাইনাল কর্ড অপারেশন করতে গিয়ে ধরা পড়ে টিউমারের। এখন মাল্টিপুল মাইলোমা নামক রোগে আক্রান্ত। এ রোগ হলে ধীরে ধীরে হাঁড় ক্ষয়ে যায়। রোগটি নিবারণযোগ্য। প্রতি মাসে চারটি করে মোট ২৫টি কেমোথেরাপি দিতে হবে। প্রতিটি কেমোথেরাপি দিতে খরচ ২৫ হাজার টাকা। এছাড়া ওষুধপত্র, পরীক্ষা, নিরীক্ষার ব্যয়তো রয়েছেই। ঢাকা থেকে রাজবাড়ী। আবার রাজবাড়ী থেকে ঢাকা যেতে হয় এই অসুস্থ শরীর নিয়ে।
জানালেন, হাঁটা চলা করতে পারেন না। তবে ডাক্তার এক ধরনের বিশেষ বেল্ট দিয়েছেন। যেটি পড়ে ঘরের মধ্যে একটু আধটু হাঁটতে পারেন। আরোগ্য লাভের জন্য সবার কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।