Dhaka 2:49 pm, Thursday, 8 December 2022

রাজবাড়ীতে যুবমৈত্রীর ২ নেতার মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 08:04:08 pm, Saturday, 3 June 2017
  • / 1304 জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়ন যুব মৈত্রীর সভাপতি আলমগীর খান ও সহ সভাপতি সেলিম প্রামানিকের মুক্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যুবমৈত্রী রাজবাড়ী জেলা শাখা। শনিবার সকালে জেলা ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয়ে জনাকীর্ণ এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তারা এ দাবি জানান।
সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ও বরাট ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম, জেলা যুব মৈত্রীর সভাপতি অ্যড. বিপ্লব রায়, সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে স্থানীয় একটি কুচক্রী মহল প্রশাসনের কতিপয় ব্যক্তিবর্গের সাথে যোগসাজশ করে আলমগীর ও সেলিম প্রামানিককে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে গ্রেফতার করিয়েছে। গত ২৩ মে তারিখে বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের বিরুদ্ধে যুবমৈত্রীর বিক্ষোভ কর্মসূচীতে যোগদানের জন্য আলমগীর বাড়ি থেকে রাজবাড়ী শহরে আসছিলেন। সে সময় পুলিশ তাকে আটকের পর মারপিট করে কোমরে পিস্তল গুজে দেয়। এর আগে গত ১ মার্চ সেলিমকে রাজবাড়ী রেলগেট থেকে আটকের পর উড়াকান্দা বাজারে খোলা ঝাপ বিশিষ্ট ভাঙা দোকান ঘর থেকে রিভলবার ও গুলি উদ্ধার দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা দায়ের করে।
বক্তারা যুবমৈত্রীর দুই নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।
রাজবাড়ী জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে যুবমৈত্রীর ২ নেতার মুক্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশের সময় : 08:04:08 pm, Saturday, 3 June 2017

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়ন যুব মৈত্রীর সভাপতি আলমগীর খান ও সহ সভাপতি সেলিম প্রামানিকের মুক্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যুবমৈত্রী রাজবাড়ী জেলা শাখা। শনিবার সকালে জেলা ওয়ার্কার্স পার্টি কার্যালয়ে জনাকীর্ণ এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তারা এ দাবি জানান।
সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ও বরাট ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সালাম, জেলা যুব মৈত্রীর সভাপতি অ্যড. বিপ্লব রায়, সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে স্থানীয় একটি কুচক্রী মহল প্রশাসনের কতিপয় ব্যক্তিবর্গের সাথে যোগসাজশ করে আলমগীর ও সেলিম প্রামানিককে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে গ্রেফতার করিয়েছে। গত ২৩ মে তারিখে বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের বিরুদ্ধে যুবমৈত্রীর বিক্ষোভ কর্মসূচীতে যোগদানের জন্য আলমগীর বাড়ি থেকে রাজবাড়ী শহরে আসছিলেন। সে সময় পুলিশ তাকে আটকের পর মারপিট করে কোমরে পিস্তল গুজে দেয়। এর আগে গত ১ মার্চ সেলিমকে রাজবাড়ী রেলগেট থেকে আটকের পর উড়াকান্দা বাজারে খোলা ঝাপ বিশিষ্ট ভাঙা দোকান ঘর থেকে রিভলবার ও গুলি উদ্ধার দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা দায়ের করে।
বক্তারা যুবমৈত্রীর দুই নেতার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।
রাজবাড়ী জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।