Dhaka ০৮:২২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ীতে ফোর মার্ডার মামলার আসামি চরমপন্থী আলমগীর অস্ত্রগুলিসহ গ্রেফতার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৯:০৯:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০১৭
  • / ১৪৬৭ জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীর চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার মামলার অন্যতম আসামি চরমপন্থী দলের সদস্য আলমগীর খানকে অস্ত্রগুলিসহ গ্রেফতার করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের আগমাড়াই এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে একই ইউনিয়নের গোপালবাড়ি গ্রামের মোসলেম খানের ছেলে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে নাইন এমএম বোরের একটি বিদেশি পিস্তল ও পাঁচ রাউন্ড গুলি।
রাজবাড়ী সদর থানা সূত্র জানায়, ২০০৯ সালের ২৯ আগস্ট সন্ধ্যায় একদল দুর্বৃত্ত সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের উড়াকান্দা বাজারে হামলা চালিয়ে গুলি করে চারজনকে হত্যা করে। ওই মামলায় আলমগীর এজাহারভুক্ত আসামি। মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি আবুল বাশার মিয়া জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে চরমপন্থী  সংগঠন এমবিআরএম এর সক্রিয় সদস্য। এলাকায় তার বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি, অপহরণসহ সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ডের বহু অভিযোগ রয়েছে। অস্ত্রসহ গ্রেফতারের ঘটনায় রাজবাড়ী সদর থানায় তার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা হয়েছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ীতে ফোর মার্ডার মামলার আসামি চরমপন্থী আলমগীর অস্ত্রগুলিসহ গ্রেফতার

প্রকাশের সময় : ০৯:০৯:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ীর চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার মামলার অন্যতম আসামি চরমপন্থী দলের সদস্য আলমগীর খানকে অস্ত্রগুলিসহ গ্রেফতার করেছে রাজবাড়ী সদর থানার পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের আগমাড়াই এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে একই ইউনিয়নের গোপালবাড়ি গ্রামের মোসলেম খানের ছেলে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে নাইন এমএম বোরের একটি বিদেশি পিস্তল ও পাঁচ রাউন্ড গুলি।
রাজবাড়ী সদর থানা সূত্র জানায়, ২০০৯ সালের ২৯ আগস্ট সন্ধ্যায় একদল দুর্বৃত্ত সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের উড়াকান্দা বাজারে হামলা চালিয়ে গুলি করে চারজনকে হত্যা করে। ওই মামলায় আলমগীর এজাহারভুক্ত আসামি। মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি আবুল বাশার মিয়া জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে চরমপন্থী  সংগঠন এমবিআরএম এর সক্রিয় সদস্য। এলাকায় তার বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি, অপহরণসহ সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ডের বহু অভিযোগ রয়েছে। অস্ত্রসহ গ্রেফতারের ঘটনায় রাজবাড়ী সদর থানায় তার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা হয়েছে।