Dhaka ০৬:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রাজবাড়ী কৃষকলীগের পাল্টা কমিটি অবৈধ ও আহ্বায়ক আজাদ বহিষ্কার

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৪৩:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মে ২০১৭
  • / ১৮৫১ জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের পাল্টা আহ্বায়ক কমিটিকে অবৈধ এবং ওই কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি। কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের দপ্তর সম্পাদক অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম পানু স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি জানা গেছে।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দেশব্যাপী কৃষকলীগকে তৃণমূলে সুসংগঠিত করার অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ১০ এপ্রিল জেলা কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুজ্জামান বিশ^াসের নেতৃত্বাধীন কার্যনির্বাহী কমিটি বিলুপ্ত করে নুরুজ্জামান বিশ^াসকে আহ্বায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। সম্প্রতি পত্রÑপত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানা যায় কথিত বর্ধিত সভার মাধ্যমে গত ১৩ এপ্রিল তারিখে আবুল কাাম আজাদকে আহ্বায়ক এবং আবু বক্করকে সদস্য সচিব করে একটি পাল্টা আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ কৃষকলীগকে সুসংগঠিত করার জন্য সহযোগীতা বা পরামর্শ প্রদান, এমনকি কেন্দ্রীয় কমিটিকে সাংগঠনিক বিষয়ে সুপারিশ করতে পারে। কোনক্রমেই কৃষকলীগের কোন শাখা কমিটি অনুমোদনের ক্ষমতা বা এখতিয়ার স্থানীয় কোনো শাখা আওয়ামী লীগের নেই। যা বাংলাদেশ কৃষকলীগের গঠনতন্ত্রের ধারা ১২, ধারা ১৯(ক) এর ২৪ (খ) এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আবুল কালাম আজাদ রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের তিন নং সহ সভাপতি ও আবু বকর সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। আবু বকর স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছিলেন। কৃষকলীগের গঠনতন্ত্রে কোনো সহ সভাপতি বা সাংগঠনিক সম্পাদক বর্ধিত সভা আহ্বান করতে পারেন না। এছাড়া কথিত আজাদ-বক্কর নামে অতীতে ও বর্তমানে কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের অনুমোদিত কোন আহ্বায়ক কমিটি রাজবাড়ী জেলায় নেই। অথচ তারা বিভিন্ন অফিস ও রাজনৈতিক অঙ্গনে নিজেদের আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব পরিচয় দিয়ে মানুষের সাথে প্রতারণা করছেন এবং স্থানীয় কৃষকলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভেদ বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।
এমতাবস্থায় বাংলাদেশ কৃষকলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করা ও সংগঠনের গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকান্ড হওয়ায় রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের আজাদÑবক্কর নামে কথিত আহ্বায়ক কমিটি ও তার সকল কর্মকান্ড অবৈধ ঘোষণা এবং কেন্দ্র অনুমোদিত জেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পদ থেকে আজাদকে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ী কৃষকলীগের পাল্টা কমিটি অবৈধ ও আহ্বায়ক আজাদ বহিষ্কার

প্রকাশের সময় : ০৭:৪৩:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মে ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের পাল্টা আহ্বায়ক কমিটিকে অবৈধ এবং ওই কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় কমিটি। কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের দপ্তর সম্পাদক অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম পানু স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি জানা গেছে।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, দেশব্যাপী কৃষকলীগকে তৃণমূলে সুসংগঠিত করার অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ১০ এপ্রিল জেলা কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুজ্জামান বিশ^াসের নেতৃত্বাধীন কার্যনির্বাহী কমিটি বিলুপ্ত করে নুরুজ্জামান বিশ^াসকে আহ্বায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। সম্প্রতি পত্রÑপত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানা যায় কথিত বর্ধিত সভার মাধ্যমে গত ১৩ এপ্রিল তারিখে আবুল কাাম আজাদকে আহ্বায়ক এবং আবু বক্করকে সদস্য সচিব করে একটি পাল্টা আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ কৃষকলীগকে সুসংগঠিত করার জন্য সহযোগীতা বা পরামর্শ প্রদান, এমনকি কেন্দ্রীয় কমিটিকে সাংগঠনিক বিষয়ে সুপারিশ করতে পারে। কোনক্রমেই কৃষকলীগের কোন শাখা কমিটি অনুমোদনের ক্ষমতা বা এখতিয়ার স্থানীয় কোনো শাখা আওয়ামী লীগের নেই। যা বাংলাদেশ কৃষকলীগের গঠনতন্ত্রের ধারা ১২, ধারা ১৯(ক) এর ২৪ (খ) এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আবুল কালাম আজাদ রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের তিন নং সহ সভাপতি ও আবু বকর সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। আবু বকর স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছিলেন। কৃষকলীগের গঠনতন্ত্রে কোনো সহ সভাপতি বা সাংগঠনিক সম্পাদক বর্ধিত সভা আহ্বান করতে পারেন না। এছাড়া কথিত আজাদ-বক্কর নামে অতীতে ও বর্তমানে কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের অনুমোদিত কোন আহ্বায়ক কমিটি রাজবাড়ী জেলায় নেই। অথচ তারা বিভিন্ন অফিস ও রাজনৈতিক অঙ্গনে নিজেদের আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব পরিচয় দিয়ে মানুষের সাথে প্রতারণা করছেন এবং স্থানীয় কৃষকলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভেদ বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।
এমতাবস্থায় বাংলাদেশ কৃষকলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করা ও সংগঠনের গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকান্ড হওয়ায় রাজবাড়ী জেলা কৃষকলীগের আজাদÑবক্কর নামে কথিত আহ্বায়ক কমিটি ও তার সকল কর্মকান্ড অবৈধ ঘোষণা এবং কেন্দ্র অনুমোদিত জেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পদ থেকে আজাদকে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো।