Dhaka 4:40 pm, Wednesday, 8 February 2023

সাবেক প্রধান শিক্ষক আবুল খায়েরের কুলখানী অনুষ্ঠিত

সংবাদদাতা-
  • প্রকাশের সময় : 06:20:09 pm, Thursday, 16 March 2017
  • / 1361 জন সংবাদটি পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবুল খায়ের মিয়ার কুলখানী গত ১৩ মার্চ সোমবার রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মদাপুর ইউনিয়নের সংগ্রামপুর তার নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভান্ডারিয়া মাদ্রাসার হুজুর মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন। এসময় গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
গত ১ ফেব্রুয়ারি তারিখে আবুল খায়ের মিয়া ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। ওইদিন ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, নতুন বাজার ও সংগ্রামপুর দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে জানাজা শেষে সংগ্রামপুর গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে মাস্টার্স শেষ করে তিনি শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে নিয়োজত করেন। পাবনা জেললার নাজিরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে তিনি নিষ্ঠা ও সততার সাথে দীর্ঘ ২১ বছর প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। ১৯৯৭ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেন।
তিনি কাশিয়ানী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন। এছাড়া শিক্ষক আন্দোলন লিয়াজো কমিটির সাবেক আহ্বায়কও ছিলেন তিনি। এলাকার শিক্ষা বিস্তারেও তিনি অবদান রেখে গেছেন। সংগ্রামপুর দাখিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি।
৬ মাস নিউইয়র্কে তার মেঝ ছেলের কাছে বসবাস করে রাজবাড়ীতে ফিরে আসেন। এর এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি ইন্তেকাল করেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

সাবেক প্রধান শিক্ষক আবুল খায়েরের কুলখানী অনুষ্ঠিত

প্রকাশের সময় : 06:20:09 pm, Thursday, 16 March 2017

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজবাড়ী ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবুল খায়ের মিয়ার কুলখানী গত ১৩ মার্চ সোমবার রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার মদাপুর ইউনিয়নের সংগ্রামপুর তার নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভান্ডারিয়া মাদ্রাসার হুজুর মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন। এসময় গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
গত ১ ফেব্রুয়ারি তারিখে আবুল খায়ের মিয়া ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। ওইদিন ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ, নতুন বাজার ও সংগ্রামপুর দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে জানাজা শেষে সংগ্রামপুর গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে মাস্টার্স শেষ করে তিনি শিক্ষকতা পেশায় নিজেকে নিয়োজত করেন। পাবনা জেললার নাজিরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে তিনি নিষ্ঠা ও সততার সাথে দীর্ঘ ২১ বছর প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। ১৯৯৭ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেন।
তিনি কাশিয়ানী কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন। এছাড়া শিক্ষক আন্দোলন লিয়াজো কমিটির সাবেক আহ্বায়কও ছিলেন তিনি। এলাকার শিক্ষা বিস্তারেও তিনি অবদান রেখে গেছেন। সংগ্রামপুর দাখিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি।
৬ মাস নিউইয়র্কে তার মেঝ ছেলের কাছে বসবাস করে রাজবাড়ীতে ফিরে আসেন। এর এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি ইন্তেকাল করেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।