Dhaka ০৩:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাচন

নগন্য ভোটার উপস্থিতি

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : ০৭:৪৪:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪
  • / ১০৪০ জন সংবাদটি পড়েছেন

রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সদর, বালিয়াকান্দি ও গোয়ালন্দ উপজেলায়। রাজবাড়ী সদর উপজেলার কোনো কেন্দ্রেই ভোটার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। অলস সময় কাটাতে দেখা গেছে ভোট সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ১০ ভাগ ভোট পড়েছে বলে জানা যায়। সদর উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা গেছে এমন চিত্র। তিনটি পদে মোট ১১৮ জন প্রার্থী হওয়ায় অনেকেরই ধারণা ছিল রাজবাড়ী সদরে ভোটার উপস্থিতি বেশি হবে। সে ধারণাও ভুল প্রমাণিত হলো। অনেক কেন্দ্রে সব প্রার্থীর পোলিং এজেন্টও দেখা যায়নি।

রাজবাড়ী শহরের প্রাণকেন্দ্রে রয়েছে পাশাপাশি তিনটি কেন্দ্র। রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। বেশির ভাগ প্রার্থীর বাড়ি এ এলাকায়। তবুও ভোটার উপস্থিতি নেই। কেন্দ্রের বাইরে কর্মী সমর্থকদের সেই সাজ সাজ রবও নেই। ভোটের কোনো আবহও লক্ষ্য করা যায়নি।

বেলা ১১টার দিকে শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, ভোটারের কোনো লাইন নেই। বাইরে প্রার্থীর সমর্থকদের জটলা। মাঝে মধ্যে দুই একজন ভোটার আসছেন। নির্বিঘেœ ভোট দিয়ে চলে যাচ্ছেন। এখানে পুরুষ ও নারী আলাদা দুটি কেন্দ্র। সকাল ১০ট পর্যন্ত এখানে পুরুষ কেন্দ্রে ভোট পড়ে ১৪০টি। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৫৯টি। মোট ভোটার ৩ হাজার ৪৭১ জন। এখানে নারী কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ৬৩৯জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৭৫টি। কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মধুসুদন সাহা ও নৃপেন্দ্রনাথ সরকার জানিয়েছেন এ তথ্য।

দুুপুর ১২টার দিকে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় একই চিত্র। এ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার পার্থ প্রতীম দাশ জানান, ৩ হাজার ১৬৫ জন ভোটার রয়েছে এ কেন্দ্রে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৫১টি। এই কেন্দ্রের ৮ নং বুথে গিয়ে দেখা গেছে একজন মাত্র পোলিং এজেন্ট। তিনি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাহিদুল আলম রাজুর। পাশের ৭ নং বুথে ছিলেন দুজন। চেয়ারম্যান প্রার্থী নওয়াব আলী ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাহিদুল আলম রাজুর।

রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ৫২৪ জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ১৩৯টি। এই কেন্দ্রে মোট ১০টি বুথে পোলিং এজেন্ট রয়েছে মোট ১৬ জন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এই কেন্দ্রের একটি বুথে গিয়ে জানা যায়, মাত্র ১২জন ভোট দিয়ে চলে গেছেন। ভোটারের অপেক্ষায় তারা বসে আছেন চাতক পাখির মত।

শহর থেকে একটু দূরে লক্ষীকোল মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ১২০ জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৮৪টি। পাশে আল্লাহ নেওয়াজ খায়রু একাডেমি কেন্দ্রেও একই চিত্র। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ২০২ জন। দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৭৩টি। এই দুটি কেন্দ্রে সব প্রার্থী পোলিং এজেন্ট দিতে পারেননি।

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দুজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। মোট ভোটার ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৬৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৩০ হাজার ৫৮৩ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ২৯ হাজার ২৮৬ জন।

Tag :

সংবাদটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন-

রাজবাড়ী সদর উপজেলা নির্বাচন

নগন্য ভোটার উপস্থিতি

প্রকাশের সময় : ০৭:৪৪:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

রাজবাড়ীতে দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে সদর, বালিয়াকান্দি ও গোয়ালন্দ উপজেলায়। রাজবাড়ী সদর উপজেলার কোনো কেন্দ্রেই ভোটার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। অলস সময় কাটাতে দেখা গেছে ভোট সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ১০ ভাগ ভোট পড়েছে বলে জানা যায়। সদর উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করে দেখা গেছে এমন চিত্র। তিনটি পদে মোট ১১৮ জন প্রার্থী হওয়ায় অনেকেরই ধারণা ছিল রাজবাড়ী সদরে ভোটার উপস্থিতি বেশি হবে। সে ধারণাও ভুল প্রমাণিত হলো। অনেক কেন্দ্রে সব প্রার্থীর পোলিং এজেন্টও দেখা যায়নি।

রাজবাড়ী শহরের প্রাণকেন্দ্রে রয়েছে পাশাপাশি তিনটি কেন্দ্র। রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। বেশির ভাগ প্রার্থীর বাড়ি এ এলাকায়। তবুও ভোটার উপস্থিতি নেই। কেন্দ্রের বাইরে কর্মী সমর্থকদের সেই সাজ সাজ রবও নেই। ভোটের কোনো আবহও লক্ষ্য করা যায়নি।

বেলা ১১টার দিকে শেরে বাংলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, ভোটারের কোনো লাইন নেই। বাইরে প্রার্থীর সমর্থকদের জটলা। মাঝে মধ্যে দুই একজন ভোটার আসছেন। নির্বিঘেœ ভোট দিয়ে চলে যাচ্ছেন। এখানে পুরুষ ও নারী আলাদা দুটি কেন্দ্র। সকাল ১০ট পর্যন্ত এখানে পুরুষ কেন্দ্রে ভোট পড়ে ১৪০টি। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৫৯টি। মোট ভোটার ৩ হাজার ৪৭১ জন। এখানে নারী কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ৬৩৯জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৭৫টি। কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মধুসুদন সাহা ও নৃপেন্দ্রনাথ সরকার জানিয়েছেন এ তথ্য।

দুুপুর ১২টার দিকে রাজবাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় একই চিত্র। এ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার পার্থ প্রতীম দাশ জানান, ৩ হাজার ১৬৫ জন ভোটার রয়েছে এ কেন্দ্রে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৫১টি। এই কেন্দ্রের ৮ নং বুথে গিয়ে দেখা গেছে একজন মাত্র পোলিং এজেন্ট। তিনি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাহিদুল আলম রাজুর। পাশের ৭ নং বুথে ছিলেন দুজন। চেয়ারম্যান প্রার্থী নওয়াব আলী ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নাহিদুল আলম রাজুর।

রাজবাড়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ৫২৪ জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ১৩৯টি। এই কেন্দ্রে মোট ১০টি বুথে পোলিং এজেন্ট রয়েছে মোট ১৬ জন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এই কেন্দ্রের একটি বুথে গিয়ে জানা যায়, মাত্র ১২জন ভোট দিয়ে চলে গেছেন। ভোটারের অপেক্ষায় তারা বসে আছেন চাতক পাখির মত।

শহর থেকে একটু দূরে লক্ষীকোল মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ১২০ জন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৮৪টি। পাশে আল্লাহ নেওয়াজ খায়রু একাডেমি কেন্দ্রেও একই চিত্র। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ২০২ জন। দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ২৭৩টি। এই দুটি কেন্দ্রে সব প্রার্থী পোলিং এজেন্ট দিতে পারেননি।

রাজবাড়ী সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দুজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১০ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রতিদ্ব›িদ্বতা করেন। মোট ভোটার ২ লাখ ৫৯ হাজার ৮৬৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৩০ হাজার ৫৮৩ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ২৯ হাজার ২৮৬ জন।